১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

নড়াইলে মহানবীকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে যুবক আটক

মহানবী
মুসল্লিদের বিক্ষোভ ও গ্রেফতারকৃত রাজকুমার - ছবি : নয়া দিগন্ত

ফেসবুকে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা:) সম্পর্কে কটূক্তির অভিযোগে রাজকুমার সেন (২৮) নামে এক যুবককে আটক করেছে নড়াইল থানা পুলিশ।

আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে নড়াইল শহর থেকে তাকে আটক করা হয়।

রাজকুমার সদরের হবখালী ইউনিয়নের সিঙ্গিয়া বসুপাড়ার চান্দু সেনের ছেলে এবং স্থানীয় সিঙ্গিয়া বাজারের কাঁচামাল দোকানি।

এদিকে, রাজকুমার সেনের বিচার দাবিতে রোববার সকালে সিঙ্গিয়া বাজার এলাকায় মুসল্লিরা বিক্ষোভসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ মানববন্ধন করেন।

এলাকার মুসল্লিরা জানান, গত বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) রাজকুমার তার ফেসবুক আইডিতে মহানবী (সা:) সম্পর্কে বাজে মন্তব্য করেন।

এ ব্যাপারে নড়াইল থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন জানান, রাজকুমার সেনকে আটক করা হয়েছে। তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

আরো পড়ুন :

মহানবীকে অবজ্ঞা বাকস্বাধীনতা নয় : ইউরোপীয় আদালত
ডেইলি সাবাহ, ৩১ অক্টোবর ২০১৮
ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালত (ইউরোপীয়ান কোর্ট অব হিউম্যান রাইটস-ইসিএইচআর) এক রুল জারি করে বলেছে, মহানবী (সা.)কে নিয়ে অপমানজনক বক্তৃতা দেয়ায় অস্ট্রিয়ার এক নারীকে অপরাধী সাব্যস্ত করা এবং জরিমানা করা হয়েছে তাতে ওই নারীর বাক স্বাধীনতা লঙ্ঘিত হয়নি। কারণ ইসলাম ধর্মের নবীকে নিয়ে অবজ্ঞাসূচক বক্তৃতা কিছুতেই বাকস্বাধীনতা হতে পারে না।

২০০৮-০৯ সালে অস্ট্রিয়ার কট্টর ডানপন্থী ফ্রিডম পার্টির পক্ষে কয়েকটি সেমিনার আয়োজন করে সেখানে ওই নারী ইসলাম বিদ্বেষী বক্তব্য দিয়েছিলেন। সে সময় তিনি বেশ কয়েক জায়গায় মহানবী (সা.) এর সাথে হযরত আয়শা (রা) এর বিয়ে নিয়ে আপত্তিকর কথা বলেন। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয় অস্ট্রিয়ার একটি আদালত। ২০১১ সালে আদালত ধর্ম অবমাননার দায়ে ওই নারীকে অভিযুক্ত করে আর্থিক জরিমানা করে।

কিন্তু ওই নারী নিজের এই বক্তব্যকে বাকস্বাধীনতা উল্লেখ করে আদালতের রায় মানতে অস্বীকৃতি জানান এবং পরপর দুবার আপিল করেন স্থানীয় উচ্চ আদালতে। তবে উচ্চ আদালতও তার পক্ষে রায় দেয়নি। দেশে শাস্তি বাতিল করতে না পেরে ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতের দারস্থ হন তিনি। শুনানি শেষে গত বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতের ৭ সদস্যের বিচারক প্যানেল ওই নারীর শাস্তি বহাল রেখে এবং বাকস্বাধীনতার নামে মহানবীকে নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয় মর্মে রুল জারি করেন।

ইসিএইচআর তাদের জারিকৃত রুলে ওই নারীর নাম উল্লেখ না করে তাকে ই.সি. নামে সম্মোধন করেছে। পর্যবেক্ষণে বলেছে, আবেদনকারীর (ওই নারী ) বক্তব্য মুসলিমদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি করতে পারে এবং যথাযথ ভিত্তি ছাড়া বক্তব্য হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। আদালত আরো বলেছে, তার বক্তব্য কিছুতেই বাকস্বাধীনতা হিসেবে গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। তারা এ বিষয়ে অস্ট্রিয়ার আদালত যে রায় দিয়েছে তাকে যথাযথ বলেছে। আরো বলেছে, বৃহত্তর চিন্তা থেকেই আদালত তাকে শাস্তি দিয়েছে, কারণ প্রত্যেকের ধর্মীয় অনুভূতিকে সুরক্ষিত রাখাও তার মানবাধিকার। অস্ট্রিয়ায় ধর্মীয় শান্তি বজায় রাখার লক্ষ্যে তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

আদালত আরো বলেছে, অস্ট্রিয়ার আদালতের রায়ে ইউরোপীয় কনভেনশনের বাকস্বাধীনতা বিষয়ক ধারা ‘আর্টিকেল টেন’ লঙ্ঘিত হয়নি।

প্রসঙ্গত ফ্রান্সের স্ট্রাসবার্গ শহরে অবস্থিত ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতের কার্যালয়। ইউরোপীয় নাগরিকদের মানবাধিকার সুরক্ষিত রাখা নিয়েই মূলত কাজ এই আদালতের।

৮৮ লাখ জনসংখ্যার দেশ অস্ট্রিয়ার অবস্থান মধ্য ইউরোপে। জার্মান ভাষাভাষীদের দেশটিতে মুসলিমদের সংখ্যা ৬ লাখের মতো। সাম্প্রতিক সময়ে দেশটিতে ইসলামবিদ্বেষ ব্যাপকভাবে মাথাচাড়া দিয়েছে। বিশেষ করে গত কয়েক বছরে আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে ইউরোপে অভিবাসীর ঢল নামার পর পর দেশটিতে ইসলাম বিদ্বেষীরা স্বোচ্চার হয়েছে। গত নির্বাচনেও রক্ষণশীল ও ডানপন্থীদের জোট ক্ষমতায় এসেছে। অভিবাসীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় সভা সমাবেশও করেছে ডানপন্থীরা। গত এপ্রিলে দেশটির চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ হুমকি দিয়েছেন ভিয়েনায় অবস্থিত দেশটির সবচেয়ে বড় মসজিদ বন্ধ করে দেয়ার।

কমলগঞ্জে মহানবীকে নিয়ে কটূক্তিকারী শিক্ষক আটক
কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা, ০৫ আগস্ট ২০১৮
মহানবীকে নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করে স্ট্যাটাস দেওয়ার অভিযোগে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মুন্সিবাজার কালিপ্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আশিষ বিজয় দেবকে পুলিশ গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাত ৩টায় দুর্বৃত্তরা অভিযুক্ত শিক্ষকের বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের চেষ্টা করে। পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সহকারী পুলিশ সুপার রোববার শিক্ষকের বাড়ি পরিদর্শন করেন।

জানা যায়, কালিপ্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আশিষ বিজয় দেব গত বৃহস্পতিবার রাতে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে কঠুক্তি করে একটি স্ট্যাটার্স ফেইসবুকে আপলোড করলে স্থানীয়ভাবে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ফলে শুক্রবার রাতে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তার আগে এই শিক্ষক বৃহস্পতিবার রাতেই তার ফেইসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে বলে কমলগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করেছিলেন।

কমলগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকাল থেকে তদন্তে নামে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ। অবশেষে তার আইডি থেকে বিভিন্ন সময়ে ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত হানার নানা পোষ্ট দেয়ার প্রমাণ পাওয়ায় শুক্রবার রাতেই রহিমপুর ইউনিয়নের ছয়কুট গ্রামের বাড়ি থেকে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আশিষ বিজয় দেবকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রহিমপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের সায়েক আলী গত শুক্রবার রাতে বাদি হয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে কমলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ থাকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার মৌলভীবাজার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এদিকে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আশিষ বিজয় দেব কর্তৃক মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে ও তার ফাসির দাবিতে শনিবার বিকেলে স্থানীয় চৈত্রঘাট বাজারে মাইকিং করে প্রতিবাদ সমাবেশ এর আয়োজন করেছিল বিক্ষুদ্ধ তৌহিদী জনতা। খবর পেয়ে রহিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল, বিপুল সংখ্যক পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের তৎপরতার কারণে প্রতিবাদ সভা হয়নি। পুলিশ বিক্ষুদ্ধদের সরিয়ে দেয় এবং তদন্তক্রমে দোষী প্রমাণিত হলে আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে বিক্ষুদ্ধ লোকজন সরে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।

অপরদিকে শনিবার দিবাগত রাত ৩টায় দুর্বৃত্তরা গ্রেফতার হওয়া শিক্ষক আশিষ বিজয় দেবের ছয়কুট গ্রামের বাড়িতে হামলা চালানোসহ একটি পরিত্যক্ত ঘরে অগ্নি সংযোগ করে। এসময় ঐ এলাকায় টহলরত পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। টহল পুলিশ সদস্যরা আগুন নিভিয়ে ফেলেন। ঘটনার খবর পেয়ে রোববার সকালে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ারুল হক, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক, সহকারী পুলিশ সুপার(শ্রীমঙ্গল সার্কেল) আশফাকুজ্জামান, কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো: মোকতাদির হোসেন পিপিএম ও রহিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল সরেজিমন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল মহানবী (স:)কে নিয়ে কটূক্তি করার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে। এ বিষয় নিয়ে কোন পক্ষ রাজনীতির চেষ্টা করলে কাউকে ছাড়া দেওয়া হবে না বলে হুশিয়ারী দেন।


আরো সংবাদ




hacklink Paykwik Paykasa
Paykwik