২৬ মে ২০১৯

প্রেমঘটিত বিরোধের জের ধরে মাদ্রাসা ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

প্রেমঘটিত বিরোধের জের ধরে মাদ্রাসা ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা
প্রেমঘটিত বিরোধের জের ধরে মাদ্রাসা ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা - প্রতীকী ছবি

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে প্রেম সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ইমন মোল্লা (১৭) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। নিহত ইমন উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের মৃত মামুন মোল্লার ছেলে ও চন্ডীপুর দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্র।

শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের নূরানী মাদ্রাসা সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ এ হত্যাকাণ্ডের মূল নায়ক তানভিরসহ চারজনকে আটক করেছে।

আটককৃত অপর তিনজন হলো- একই গ্রামের আলমগীর শেখের মেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী জান্নাতি (১৫), চান্দু মোল্লার ছেলে সজিব (১৮) ও নিহত ইমনের বন্ধু চন্ডীপুর গ্রামের কুদ্দুস খানের ছেলে আসিব খান (১৭)।

এ ব্যাপারে চন্ডীপুর দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক সরোয়ার হোসেন, মাহমুদুল হাসানসহ ইমনের একাধিক প্রতিবেশী বলেন, একই গ্রামের জান্নাতির সঙ্গে আসিবের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। জান্নাতিদের বাড়িতে তার কয়েকজন আত্মীয় বেড়াতে আসেন। ওই আত্মীয়ের ছেলেদের সঙ্গে কথা বলাকে কেন্দ্র করে আসিব ও ইমনের সঙ্গে জান্নাতি ও তার ফুফাতো ভাইয়ের কথা কাটাকাটি হয়। পরে আসিব ও ইমন চলে যায়। রাত ১০টার দিকে ইমন ও আসিব মাহফিল শুনছিল। এসময় মোবাইল ফোনে একটি কল পেয়ে তারা মাহফিল থেকে বের হয়ে আসে। এসময় কয়েকজন ইমনের বুকে ও হাতে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় ইমন।

মোরেলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে এম আজিজুল ইসলাম এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রেম ঘটিত বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। খবর পেয়ে সকালে ইমন মোল্লার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক নারীসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে তানভির (২০) নামে একজন সরাসরি হত্যা মিশনে জড়িত ছিল। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলে ওসি জানান।


আরো সংবাদ

Instagram Web Viewer
agario agario - agario