২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

কফি আনানের মৃত্যুতে বিশ্বনেতৃবৃন্দের শোক

কফি আনান - ফাইল ছবি

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার কর্মকর্তারা। শনিবার মৃত্যুবরণর করেন ৮০ বছর বয়সী কফি আনান। সুইজারল্যান্ডের বার্ন শহরের একটি হাসপাতালে শনিবার সকালে মারা যান তিনি। মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

মৃত্যুর খবর প্রকাশের পরই শোক প্রকাশ করেন জাতিসঙ্ঘের বর্তমান মহাসচিব অ্যান্থনিও গুতেরেস, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাসহ অনেকে।

১৯৩৮ সালে ঘানায় জন্ম নেওয়া কফি আনান ছিলেন কর্মী হিসেবে জাতিসংঘে যোগ দিয়ে সংস্থাটির শীর্ষ পদে আসীন হওয়া প্রথম ব্যক্তি। হয়েছিলেন। জাতিসংঘের সপ্তম মহাসচিব ছিলেন তিনি। প্রথম আফ্রিকান কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে ১৯৯৭ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে ওই দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

জাতিসংঘের বর্তমান মহাসচিব অ্যান্থনিও গুতেরেস কফি আনানকে ‘শুভশক্তির পথপ্রদর্শক হিসেবে উল্লেখ করেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ‘অনেকদিক দিয়েই কফি আনান নিজেই জাতিসংঘ ছিলেন। কর্মী হিসেবে যোগদান করে তিনিই একসময় এই সংস্থার নেতৃত্ব দিয়েছেন। তার সততা ও ইচ্ছাশক্তির কোনও তুলনা হয় না।’

আর রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তাকে ‘অসাধারণ ব্যক্তিত্ব’ বলে উল্লেখ করে বলেছেন, ‘কফি আনান সর্বদাই রুশদের হৃদয়ে উজ্জ্বল হয়ে থাকবেন।’

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, কফি আনান সবসময়ই একটি সুন্দর পৃথিবীর জন্য লড়াই করেছেন। তিনি বলেন, ‘সকল প্রতিবন্ধকতা ভেঙে ফেলেছিলেন কফি আনান। সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ পৃথিবীর জন্য কখনোই লড়াই থামাননি।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘বিশ্ব শুধু একজন আফ্রিকান নেতাই হারালো না বরং আন্তর্জাতিক শান্তির এক নিরলস যোদ্ধাকে হারালো।’

জাতিসংঘের মানবাদিকার বিষয়ক হাইকমিশনার জায়েদ রাদ আল হুসেন এক টুইটবার্তায় বলেন, তিনি আনানের মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme