২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আয়নায় অন্দর

-

অন্দর সাজের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে- এর উপকরণ অর্থাৎ কোন জিনিসগুলো আপনি ব্যবহার করছেন। একটি নান্দনিক আয়না বদলে দিতে পারে আপনার অন্দরসজ্জার পুরো চেহারা। এ জন্য আপনি ব্যবহার করতে পারেন বিভিন্ন মাপ, আকার ও ডিজাইনের আয়না। আয়না যেমন বাড়ির একটি কর্নারকে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলতে পারে, তেমনি ছোট্ট ঘরকে বড় দেখাতেও এর জুড়ি নেই। এমনকি শোপিস হিসেবেও আয়না হতে পারে অসাধারণ।

জানালার সাজে আয়না : জানালার গতানুগতিক কাচ ব্যবহার না করে এতে সুন্দর ও নকশাকাটা কাচ ব্যবহার করতে পারেন। এতে সহজেই ঘরে চলে আসবে নতুন আমেজ।
প্যানেল করা : ঘরের এক ধারে একটি কাচ ব্যবহার না করে প্যানেল করে কাচের ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে ছোট-বড় বিভিন্ন সাইজের কাচ ব্যবহার করতে পারেন।
ফ্রেম : কাচ ব্যবহারের পাশাপাশি ফ্রেমও খুব গুরুত্বপূর্ণ। ফ্রেম হিসেবে পুরনো দিনের নকশাদার ফ্রেমও ব্যবহার করতে পারেন। এতে একটা এন্টিক ভাব আসবে ঘরে।
বাথরুমের ওয়ালে বড় কাচের ব্যবহার বাথরুমের লুকে আনবে নতুন মাত্রা। তবে বাথরুমে লম্বা কাচ ব্যবহার না করে আড়াআড়ি কাচ ব্যবহার করা ভালো। তাতে পানি লেগে কাচ নষ্ট হওয়ার ভয় থাকবে না।

পেইন্টিংয়ের বদলে আয়না : বসার ঘরে সিটিং স্পেসের ওপরে পেইন্টিংয়ের বদলে পেইন্টেড গ্লাস ব্যবহার করতে পারেন। ঘরে জমকালো একটা ভাব আসবে।
বিভিন্ন আকার : আজকাল বাজারে বিভিন্ন শেপের আয়না পাওয়া যায়। দেখেশুনে বিভিন্ন শেপের আয়না কিনুন। সদর দরজার পাশে, সিঁড়ির ল্যান্ডিং-করিডোরসহ সব জায়গাতেই এসব আয়না ব্যবহার করতে পারবেন।
ছোট ঘরকে বড় দেখাতে আয়নার জুড়ি নেই। কারণ যেকোনো জায়গায় একটি বড় আয়না রাখা গেলে এর মধ্যে ঘরের প্রতিবিম্ব পড়ে ঘরকে বেশ বড় দেখায়। তাই ঘর ছোট হলে আয়নার অপশন রাখা যেতেই পারে।

পার্টিশন হিসেবে : অনেকের ড্রয়িং-ডাইনিং একসাথে লাগোয়া থাকে। এ ক্ষেত্রে যদি কেউ দুই ঘরের মধ্যে একটা পর্দা বা পার্টিশন করতে চায়, তাহলে পেইন্টেড আয়না হতে পারে একটি ভালো অপশন। শুধু তা-ই নয়, ফয়ার বা বাড়িতে ঢোকার মুখেও এ রকম একটি আয়না লাগানো যায়; এটি পার্টিশন হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি ডেকোরেশনের কাজও করবে।

আর্টপিসের মতো ব্যবহার : আয়না সাজানোর সময় সেটি যেনতেনভাবে ব্যবহার না করে একে আর্টের মতো ব্যবহার করুন। ঘরে শুধু একটি আয়না রেখে দিলেই হয় না, একে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করাও জরুরি। এর ফ্রেম, কাটিং ও সাইজয়ের সাথে এর সেটিংয়ের বিষয়টিও দেখা জরুরি। বড় দেয়ালে একটি ছোট আয়না যেমন ভালো দেখাবে না, তেমনি ছোট একটা দেয়ালেও বড় আয়না বসানোর সময় লক্ষ রাখুন সেটি দেখতে ভালো লাগছে কি না। আয়না বসানোর সময় লক্ষ রাখুন যেন এর ওপর ঠিকমতো আলো পড়ে, তবেই ভালো লাগবে।

ঠিকমতো লাগানো গেলে সিলিংয়েও নকশা করে কিছু আয়না ব্যবহার করতে পারেন। এতে ঘরের ভেতরের একিট রিফ্লেক্ট সিলিংয়ে পড়বে, এটিও একটি ড্রামাটিক বিষয় হতে পারে।


আরো সংবাদ