২৬ এপ্রিল ২০১৯

ফুটবল ক্রিকেটে হলে হকিতে কেন নয়?

-

বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেট এখন এশিয়া সেরা। মহিলা ফুটবল অনূর্ধ্ব-১৬ বিভাগে এশিয়ার সাত নাম্বার দল। একই দেশের মহিলা ফুটবলার এবং ক্রিকেটাররা এশিয়া মাতাচ্ছেন। এরা পারলে হকিতে কেন সে পর্যায়ে যেতে পারবেন না বাংলাদেশের মেয়েরা। বাংলাদেশের হকিতে কোনো জাতীয় দল নেই। তিন বছর পর শুরু হয়েছে মহিলা হকি। ২০১৫ সালে প্রথম যাত্রা শুরু এই আসরের। তবে হকি সংশ্লিষ্টদের মতে, সঠিক পরিচর্যা করতে পারলে অন্য দুই ডিসিপ্লিনের মতো হকিতেও সাফল্য আসবে। এজন্য উদ্যোগী হতে হবে হকি ফেডারেশনকেই।

মাওলানা ভাষানী হকি স্টেডিয়ামে এখন চলছে জাতীয় মহিলা হকি। দেশের সাত বিভাগের দল এতে অংশ নিচ্ছে। মানের দিক থেকে নিম্নই বলতে হবে এই আসরকে। দেড় দুই মাসের প্রস্তুতি এবং সরঞ্জামের সংকটে অবশ্য এর চেয়ে বেশী কিছু এখনই আশা করা অন্যায়। তারপরও এদের মধ্যে প্রতিভা খুঁজে পাচ্ছেন কোচরা। অবশ্য তা অচিরেই হারিয়ে যাবে। যদি এই মহিলা হকির নিয়মিত চর্চা না থাকে। ক্রীড়া পরিদপ্তরের অধীনে বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা হকি দল গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ৬০ জন থেকে বাছাই করে সেখান থেকে ৩০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকাও করা হয়েছে। ক্রীড়া পরিদপ্তরের লক্ষ্য, এই দল নিয়ে ভারত সফর করা। তা হকি ফেডারেশনের সহযোগিতায়।

মহিলা হকিতেও বাংলাদেশের ভালো করা সম্ভব। জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় গত প্রিমিয়ার লিগে অ্যাজাক্সের কোচ হেদায়েতুল ইসলাম রাজীবের মতে, ক্রীড়া পরিদপ্তরের যে ৩০ জন বাছাইকৃত মহিলা খেলোয়াড় আছেন এদের মধ্যে ২০/২২ জন বেশ মান সম্পন্ন। এদের ভালো মতো প্র্যাকটিস করাতে পারলে রেজাল্ট আসবে। ১৯৭৬ সালে গঠিত প্রথম মহিলা হকি দলের সদস্য পারভীন নাসিমা নাহার পুতুলেরও এক সূর।

এখন যারা মেয়েরা হকি খেলতে ঢাকায় এসেছেন এদের অধিংকাংশই ফুটবল খেলোয়াড়। ফুটবলের তুলনায় হকিতে আগে বাংলাদেশ দলে সুযোগ মিলবে তাই তারা হকিতে আগ্রহী। জানান রংপুর বিভাগের খেলোয়াড় সাবিনা, তন্বী, রুবিনারা। এদের বাড়ী ঠাকুরগাঁয়ে। এই দলের কর্মকর্তা মাসুদ রানা বললেন, যে প্রতিভা আছে তাতে এইসব মেয়েরা হকিতেও দেশের মুখ উজ্জ্বল করবে। এজন্য নিয়মিত হতে হবে মহিলা হকি এবং যথাযথ অনুশীলন। কিশোরগঞ্জের মেয়েদের নিয়ে ঢাকা বিভাগের দল গঠন করেছেন কোচ রিপেল হাসান। এই দলের সুমী আক্তার আগে ফুটবল খেলতেন। এখন তিনি হকিতে। এই স্ট্রাইকারও ফুটবল ছেড়েছেন হকির প্রতি আন্তরিক হয়ে। জানান সুমি। এখন তিনি হকি দলের অধিনায়ক। কোচ রিপেল তথ্য দেন, এক সময় মহিলা ফুটবল দল গড়তাম। কিন্তু জাতীয় ক্রীড়ায় আঞ্চলিক পর্যায়ে তিন বার আমাদের দল টাইব্রেকারে হেরে যাওয়ায় এরপর ২০১২ সালে মহিলা হকি দল গঠন করি। সে থেকে এখনও মহিলা হকি নিয়ে আছি। আমিও আশাবাদী এদেশের মহিলা হিক নিয়ে।

পটুয়াখলীর পারভীন আক্তার আগে ফুটবল খেলতেন। এখন তার হাতে হকির স্টিক। খেলছেন বরিশাল বিভাগের হয়ে। অবশ্য ফুটবল একেবারে ছাড়েননি। তিনিও স্বপ্ন দেখছেন বাংলাদেশ মহিলা হকি দলে খেলার। দলের কোচ সৈয়দ তারেক মাহমুদ তাদের পটুয়াখালী জেলা শহরের ব্যায়ামাগারে হকি শিখিয়েছেন তাদের। তারা ঢাকায় খেলতে এসেছেন এক মাসের প্রস্তুতি নিয়ে।

হকি খেলতে ঢাকায় আসলেও এই মেয়েদের এখন পুরোপুরি হকিতে মনযোগ দেয়ার সুযোগ নেই। আজ থেকে শুরু হওয়া জাতীয় জুনিয়র অ্যাথলেটিক্সে তাদের অংশ নিতে হবে জেলার হয়ে। কিশোরগঞ্জের ফাদিয়া আক্তার রাত্রি ও সাজেদা আক্তার মনি ১০০ ও ২০০ মিটারে , সুমি আক্তার ডিসকাস থ্রোতে অংশ নেবেন। এটা জেলা প্রশাসকের নির্দেশ। জানান কোচ রিপেল।


আরো সংবাদ

iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Bursa evden eve nakliyat
arsa fiyatları tesettür giyim
Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al
hd film izle
gebze evden eve nakliyat