২০ জানুয়ারি ২০২০

দু’মাস ধরে প্রচণ্ড কাশি; রোগীর নাক-গলা থেকে বেরলো ৪ ইঞ্চি লম্বা ২ জ্যান্ত জোঁক!

দু’মাস ধরে কাশি থামছিল না বৃদ্ধের। নানা রকম ওষুধপত্র, ঘরোয়া টোটকা— কোনও কিছুতেই ফল মিলছিল না। শেষমেশ হাসপাতালে যেতেই সামনে এল কাশি আর শ্বাসকষ্টের আসল কারণ। চিকিৎসকরা ওই বৃদ্ধের নাক আর গলা থেকে দু’টি জ্যান্ত জোঁক বের করেছেন। শরীর থেকে জোঁক দু’টি বেরিয়ে যেতেই একেবারে সুস্থ হয়ে ওঠেন ওই বৃদ্ধ।

আজব এই ঘটনাটি ঘটেছে চীনের লংগিয়ানের উপিং কাউন্টি হাসপাতালে। ডেইলি মেল-এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, জিংওয়েন শহরের বাসিন্দা ৬০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি গত শুক্রবার উপিং কাউন্টি হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে আসেন। বৃদ্ধ জানান, বিগত দু’মাস ধরে তার অনবরত কাশি হচ্ছে। মাঝে মধ্যেই কাশতে কাশতে রক্ত বেরচ্ছে। কোনও ওষুধপত্রেই কাজ হচ্ছে না।

বৃদ্ধের কথা শুনে চিকিৎসকরা বৃদ্ধের বুকের সিটি স্ক্যান করেন। কিন্তু সিটি স্ক্যানের রিপোর্টে কোনও অস্বাভাবিক কিছুই ধরা পরেনি। এর পর ব্রঙ্কোস্কপি করার সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। আর ব্রঙ্কোস্কপির রিপোর্ট দেখে অবাক হয়ে যান তারা। চিকিৎসকরা দেখেন, বৃদ্ধের নাক আর গলার ভিতরে আটকে রয়েছে দু’টি জ্যান্ত জোঁক। এই দু’টি জ্যান্ত জোঁকের কারণেই বৃদ্ধের শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হচ্ছিল যার ফলে টানা দু’মাস অনবরত কাশি হচ্ছিল তার।

একটুও দেরি না করে বৃদ্ধের নাক আর গলার ভিতরে আটকে থাকা জ্যান্ত জোঁক দু’টিকে বের করার ব্যবস্থা করেন চিকিৎসকরা। উপিং কাউন্টি হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, বৃদ্ধের নাক আর গলার ভিতরে আটকে থাকা জোঁক দু’টি লম্বায় প্রায় ৪ ইঞ্চি!

চিকিৎসকরা অনুমান, স্থানীয় পাহাড়ি নদীর জল খাওয়ার সময় কোনও ভাবে এই দু’টি জোঁক বৃদ্ধের শরীরে ঢুকে গিয়েছিল। দু’মাস আগে আকারেও খুব ছোট ছিল জোঁক দু’টি। ফলে কোনও ভাবে তা বৃদ্ধের নজর এড়িয়ে যায়।


আরো সংবাদ




krunker gebze evden eve nakliyat