০৬ ডিসেম্বর ২০১৯

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে করণীয়

-

শতকরা ৯৫ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে এই রোগের কারণ কী তা সুনির্দিষ্ট করে বলা মুশকিল। তবে ভুল জীবনদৃষ্টি, বংশগত কারণ, অতিরিক্ত ওজন, অতিরিক্ত চর্বি জাতীয় খাবার গ্রহণ, মদ্যপান, ধূমপান, ক্যাফেইন, স্ট্রেস বা উৎকণ্ঠা ইত্যাদিকে এর কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।
* শতকরা পাঁচ ভাগ ক্ষেত্রে কিছু রোগের কারণে উচ্চ রক্তচাপ হয়ে থাকে। যেমনÑ কিডনি রোগ বা হরমোনঘটিত রোগ। আবার জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি ও স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ দীর্ঘ দিন সেবন করলেও উচ্চ রক্তচাপ হতে পারে। * অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এ রোগের কোনো লক্ষণ প্রকাশ পায় না। সাধারণত অন্য রোগের চিকিৎসা বা রক্তচাপ মাপতে গিয়েই এই রোগ ধরা পড়ে। তবে কোনো কোনো রোগীর ক্ষেত্রে মাথা ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, বারবার প্রস্রাব, বুক ধরফর করা, প্রচুর ঘাম হওয়া ইত্যাদি লক্ষণ প্রকাশ হতে পারে।
* দীর্ঘ দিন ধরে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে না থাকলে স্ট্রোক, রেটিনার সমস্যা, হার্ট ও কিডনির ক্ষতি হতে পারে যা রোগীকে মৃত্যুমুখে পতিত করতে পারে।
আপনার করণীয় : খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করুন। প্রাকৃতিক খাবার গ্রহণ করুন। টিনজাত খাবার, ফাস্টফুড ও কোমল পানীয় বর্জন করুন।
* সপ্তাহে দুই দিন ছোট মাছ, দুই দিন বড় মাছ, এক দিন গোশত এবং দুই দিন নিরামিষ খাবার গ্রহণ করুন। গোশতের মধ্যে গরু বা খাসির গোশত যত কম খাওয়া যায়, তত ভালো। সাথে প্রতিদিন প্রচুর শাক ও সবজি এবং পরিমিত ডাল গ্রহণ করুন।
* ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। এ জন্য সকালে ভরপেটে নাশতা করুন, দুপুরে তৃপ্তির সাথে খান এবং রাতে অল্প খাবার গ্রহণ করুন।
* খাবারে অতিরিক্ত লবণ খাওয়া বন্ধ করুন। বিশেষ করে খাবার টেবিলে লবণ নেয়া থেকে বিরত থাকুন।
* প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন। ব্যায়ামের মধ্যে যোগব্যায়াম হচ্ছে সবচেয়ে ভালো। তবে ওজন বেশি হলে সঙ্গে প্রতিদিন ৩০ মিনিট থেকে এক ঘণ্টা হাঁটুন, ঘণ্টায় চার মাইল বেগে।
* মদ্যপান ও ধূমপান বর্জন করুন। প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া হঠাৎ ওষুধ বন্ধ করবেন না, যা স্ট্রোকের কারণ হতে পারে।
* স্ট্রেস বা টেনশনমুক্ত থাকুন। এ ক্ষেত্রে ধ্যান বা মেডিটেশনের সহায়তা নিতে পারেন। নিয়মিত দুই বেলা ধ্যান টেনশনমুক্ত জীবন গড়তে সহায়তা করতে পারে।
* দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করুন। শোকর গুজার করুন। প্রতিদিন বলুন শোকর আলহামদুলিল্লাহ বেশ ভালো আছি। আপনার মধ্যে এক তৃপ্তির ঢেউ বয়ে যাবে।


আরো সংবাদ




Paykwik Paykasa
Paykwik