০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

দলবদলে সরগরম ফুটবল অঙ্গন

ঘোড়ার গাড়ি, ব্যান্ডদল নিয়ে দল বদল করতে এসেছে মোহামেডান ক্লাব - ছবি : নয়া দিগন্ত

বাংলাদেশী ক্লাবগুলো সেই পুরনো অভ্যাস- দলবদলের প্রথম দিন থেকে ফুটবলারদের রেজিস্ট্রেশন করায় না তারা। যত তৎপরতা শেষ সময়ে এসে। ১ অক্টোবর থেকে দলবদল শুরু হলেও এখন তারা রেজিস্ট্রেশন করাচ্ছে ফুটবলারদের। এটাই চলছে গত কয়েক দিন ধরে। ১৭ নভেম্বর তিন দল তাদের ফুটবলারদের নাম জমা দিয়েছে বাফুফেতে। এদের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস মঙ্গলবার তাদের বাকি ফুটবলারদের নিবন্ধন সম্পন্ন করেছে।

১৭ তারিখে সাইফ স্পোর্টিং ও রহমতগঞ্জ তাদের ফুটবলারদের নাম জমা দিয়েছে কার্যত নীরবে। মঙ্গলবার অবশ্য ব্যাপক আয়োজনে এই কাজ সমাধা করেছে মোহামেডান, শেখ রাসেল, বাংলাদেশ পুলিশ ও বসুন্ধরা কিংস। ঘোড়ার গাড়ি, ব্যান্ড পার্টি ও অশ্বারোহীদের নিয়ে এসেছে তারা।এতে বেশ সরগরসম ফুটবল অঙ্গন। বলতে গেলে সারা দিনই বিভিন্ন দলের সমর্থক, কোচ খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মুখরিত ছিল বাফুফে ভবন এবং বিভিন্ন ক্লাব। বুধবার দলবদলের শেষ দিন। বেশ কয়েক বছর আগে বাফুফে ব্যাপক মিডিয়া কভারেজের জন্য প্রতি ক্লাবকে ভিন্ন ভিন্ন দিনে দলবদল করিয়েছে। এবার চেষ্টা সত্ত্বেও তা সম্ভব হয়নি বলে জানান বাফুফে সেক্রেটারি আবু নাঈম সোহাগ।

মঙ্গলবার দুপুরে বাফুফে ভবনে ফুটবলারদের রেজিস্ট্রেশন করাতে এসে বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান জানান, আমাদের লক্ষ্য শ্রেষ্ঠত্ব অক্ষুন্ন রাখা এবং এএফসি কাপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশের পরিচয়টা ছড়িয়ে দেয়া।’

গতবারের দলের সাথে তুলনায় গিয়ে তিনি বলেন, গতবার ও এবারের শেখ কামাল কাপে দলের ডিফেন্স লাইনে সমস্যা ছিল। এখন তা কাটিয়ে উঠেছি।’ কোচ অস্কার ব্রুজনের মতে, ‘আমরা এবার সব ট্রফিই জিততে চাই। যদিও প্রতিপক্ষরা যথেষ্ট শক্তিশালী এবার। এরপরও আমাদের চান্স আছে প্রতি টুর্নামেন্ট শিরোপা জেতার। একই সাথে এএফসি কাপের ফাইনাল রাউন্ডে খেলাটা টার্গেট।’

এদিন সবার আগে দলবদলে আসে গত লিগের তৃতীয় স্থান পাওয়া দল শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। কোচ সাইফুল বারী টিটুর বক্তব্য, ‘চ্যাম্পিয়ন হওয়াই আমাদের লক্ষ্য। গত বছর বেশ জমজমাট লিগ হয়েছিল। এবারো ঢাকা আবাহনী, বসুন্ধরা কিংস, শেখ জামাল, চট্টগ্রাম আবাহনী সাইফ স্পোর্টিং ভালো দল গড়েছে। আশা করি এই সিজনেও তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ হবে লিগ।’

অন্যান্যবার মোহামেডান বলতে গেলে নীরবেই দলবদল সম্পন্ন করত; কিন্তু ক্যাসিনো কেলেঙ্কারির ধাক্কা সামলিয়ে নতুন নেতৃত্ব আবার ফুটবলে দাপট দেখাতে চায়। তাই এবার ব্যাপক আয়োজনে ফুটবলারদের রেজিস্ট্রেশন করানো। ক্লাবের শীর্ষ কর্মকর্তা মোস্তাকুর রহমানের মতে, আমরা আবার ঘুরে দাঁড়াতে চাই। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে লক্ষ্যস্থানে পৌঁছা এবং ট্রফির জন্য ফাইট দেয়া সম্ভব।’

সাবেক ফুটবলার রুম্মান বিন ওয়ালী সাব্বিরের মতে, এবার আমরা শিরোপার জন্য লড়তে পারব না। তবে আগামী বছর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো দল গড়া হবে।’ দলের কোচ শেন লেন গতবার মোহামেডানকে টিকিয়ে রেখেছিলেন প্রিমিয়ারে। গত বছর এবং এবারের দলের তুলনায় গিয়ে তিনি জানান, ‘এবার বেশির ভাগই তরুণ ফুটবলার। আর বিদেশীগুরা খুবই উন্নত মানের। আছে ভালো গোলরক্ষক। এদের নিয়ে সব ম্যাচই জিততে চাই।’ এবার মোহামেডানের নেতৃত্ব দেবেন গোলরক্ষক হিমেল।

প্রিমিয়ারে নবাগত পুলিশ ফুটবল ক্লাব টিকে থাকতে চায় দেশের সর্বোচ্চ লিগে। ক্লাব সভাপতি ও র‌্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ উল্লেখ করলেন, ফুটবলের আনন্দটা আমরা সবার কাছে ছড়িয়ে দিতে চাই।’

ম্যানেজার শেখ মারুফ হাসান জানান, আমরা ভালো ফুটবল ও মাঠে শৃঙ্খলা উপহার দিতে চাই। আর মাঠের খেলা দিয়ে বুঝাবো কী হবে আমাদের পজিশন। যদিও কোচ নিকোলা ভিক্টরোভিচ বললেন, আমার লক্ষ্য পুলিশ দল থেকে জাতীয় দলে বেশি মাত্রায় ফুটবলার সরবরাহ করা।


আরো সংবাদ




Paykwik Paykasa
Paykwik