film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indirEzhel mp3 indir, Ezhel albüm şarkı indir mobilhttps://guncelmp3indir.com Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

পরিসংখ্যানে বিশ্বকাপ ফুটবল বাছাইয়ে বাংলাদেশ

মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশের ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব শুরু। আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয়ের কৃতিত্বটা ৩৯ বছর আগে। ১৯৭৯ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বে বাংলাদেশ তাদের সাথে প্রথম ম্যাচ ২-২ এ ড্র করলেও ফিরতি ম্যাচে জয় পায় ৪-১। এরপর ২০০৮ সাল থেকে তাদের বিপক্ষে হওয়া  চার ম্যাচের তিনটিতেই  ড্র। সর্বশেষ ২০১৫ সালের কেরালা সাথে ০-৪ গোলে হার। ২০০৮ এর এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপের বাছাই পর্বে বাংলাদেশ আফগানদের সাথে গোলশূন্য ড্র করে কিরগিজস্তানের মাটিতে। সে বছরই মালে-কলম্বো সাফে ২-২ গোলে ড্র করা। ২০১৫ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ফিফা প্রীতি ম্যাচে ১-১এ শেষ হয় দুই দলের ম্যাচ। অর্থাৎ তাদের সাথে  ছয় ম্যাচের চারটিতেই ড্র। বাংলাদেশ কি পারবে ৩৯ বছরের পুরনো সুখ স্মৃতি ফিরিয়ে আনতে। এখন আফগানরা প্রবাসী ফুটবলারদের নিয়ে বেশ শক্তিশালী। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে অবস্থান ১৪৯। বিপরীতে বাংলাদেশ আছে ১৮২ তে।

ভারতের বিপক্ষে ২৪ ম্যাচে বাংলাদেশের জয় মাত্র তিনটিতে। হার ১১ টিতে। ড্র হয়েছে ১০টি ম্যাচ। ভারতের বিপক্ষে তিন জয় ১৯৯১ এর কলম্বো সাফ গেমস, ১৯৯৯ সালে কাঠমান্ডু সাফ গেমসে, ২০০৩ এর সাফ ফুটবলে। অর্থাৎ তাদের বিপক্ষেও গত ১৬ বছরে কোনো জয়ের কৃতিত্ব নেই বাংলাদেশ দলের। সর্বশেষ ২০১৩ সালে সাফ ফুটবল এবং ২০১৪ সালে ফিফা প্রীতি ফুটবলে তাদের সাথে ড্র যথাক্রমে ১-১ এবং ২-২ এ। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ভারতের অবস্থান ১০৩।

ওমানের সাথে বাংলাদেশের এই পর্যন্ত একবারই মোকাবেলা হয়েছিল। তাতে ওমানের জয় ৩-১ এ। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ওমান আছে ৮৭তে।

কাতারের সাথে বাংলাদেশের ম্যাচ হয়েছে চার বার। এতে তিনবারই জয় মধ্য প্রচ্যের ধনী দেশটির। একটি মাত্র ম্যাচে ড্র। তা ১৯৭৯ সালের এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বে। ১-১  শেষ হয় ঢাকায় অুনষ্ঠিত সেই খেলা। ফিরতি ম্যাচে অবশ্য ৪-০তে জয় কাতারিদের। এরপর ২০০৭ সালের এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বে  (২০০৬ সালে অনুষ্ঠিত) কাতার চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ৪-১ গোলে হারায় বাংলাদেশকে। দোহাতে অনুষ্ঠিত ফিরতি ম্যাচে কাতারের শেষ হাসি ৩-০ তে। এশিয়া চ্যাম্পিয়ন এবং ২০২২ বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতারের ফিফায় অবস্থান ৬২। এই কাতারের অনূর্ধ্ব-১৬ এবং অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় ২০১৭ সালের এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ আসরে এবং ২০১৮ এর জার্কাতা এশিয়ান গেমসে। অনূর্ধ্ব-১৬ দল ২-০তে এবং অনূর্ধ্ব-২৩ দল ১-০ তে জিতেছিল। এবার কি তাহলে সিনিয়র দলের পালা?

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে পাঁচ দলের মধ্যে তলানীতে ছিল বাংলাদেশ। আট ম্যাচে হজম করেছে ৩২ গোল। প্রতিপক্ষেল জালে বল ফেলতে পেরেছে দুই বার। এর মধ্যে একটি ছিল আত্মঘাতী। কাতার বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে আরো ভালো করার টার্গেট বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে’র। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের বাধা ডিঙ্গিয়ে চ’ড়ান্ত পর্বে খেলার যোগত্য এখনও অর্জন করেনি বাংলাদেশ। তবে এবার এশিয়ান কাপের চ’ড়ান্ত পর্বে খেলার টার্গেট নিয়ে বিশ্বকাপ বাছাই এ অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। গতবারের মতো এবারের বাছাই পর্বও এশিয়ান কাপেরও বাছাই পর্ব। গ্রুপে অন্তত: তৃতীয় হলেই এশিয়ান কাপের বাছ্ইায়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার ছাড়পত্র মিলবে। চতুর্থ হলে বা পঞ্চম স্থান মিললে প্লে-অফ পর্বে খেলার সুযোগ।

এবারের বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে খেলতে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ২৬ ফুটবরলাকে ডাকেন কোচ জেমি ডে। প্রথমে ২৫ জনকে ডাকা হলেও পরে ডাক পান আরামবাগের গোলরক্ষক মাজহারুল ইসলাম হিমেল। শেষ পর্যন্ত হিমেল, নুরুল নাঈম ফয়সাল, মনজুরুর রহমান মানিককে বাদ দিয়ে  ২৩ ফুটবলারকে নিয়ে তাজিকিস্তান যান কোচ জেমি ডে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে বাংলাদেশ দল তাজিকিস্তানের প্রিমিয়ারের দুই ক্লাব এফসি কুকতোস এবং সিএসকেএ পামিরের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে। প্রথমটিতে হার ০-২ গোলে। পরেরটিতে ড্র ১-১। আফগানিস্তান প্রথমে কাতার এবং পরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে হোম ভেনু করতে চেয়ে ব্যর্থ। শেষে তাজিকিস্তানে ভরসা। এ জন্য বাফুফেকেও প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য দুই দফা পরিকল্পনা বদল করতে হয়। তাজিকিস্তানের টার্ফের মাঠে হবে বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের ম্যাচ। বাংলাদেশ দলকে তাই বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের ঘাসের মাঠ এবং কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ট শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামের টার্ফে অনুশীলন করান কোচ। ১০ দিন আগে লাল সবুজদের মধ্য এশিয়ার দেশটিতে যাওয়া সেখানকার আবহাওয়া এবং পরিবেশের সাথে মানিয়ে নিতে।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে জাতীয় দলে আফগানদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে বাংলাদেশ দলে নতুন মুখ একজনই। তিনি সাইফ স্পোর্টিংয়ের লেফট ব্যাক ইয়াসিন আরাফাত। মোট ৩৮ ফুটবলারকে রেজিষ্ট্রেশন করানো হয়েছে বাছাই পর্বের জন্য।  প্রতি ম্যাচের সাত দিন আগে সুযোগ আছে নতুন খেলোয়াড় নেয়ার।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে বাংলাদেশ

১৯৮৬ মেক্সিকো বিশ্বকাপ (১৯৮৫ সালে অনুষ্ঠিত বাছাই)

হোম ম্যাচ

বাংলাদেশ ১-২ ভারত

( চুন্নু)

বাংলাদেশ ১-০ থাইল্যান্ড

(ইলিয়াস)

বাংলাদেশ ২-১ ইন্দোনেশিয়া

( চুন্নু, কায়সার হামিদ)

অ্যাওয়ে ম্যাচ

ভারত ২-১ বাংলাদেশ

             ( আশীষ ভদ্র)

থাইল্যান্ড ৩-০ বাংলাদেশ

ইন্দোনেশিয়া ১-০ বাংলাদেশ

*বাংলাদেশ চার দলের মধ্যে চতুর্থ।

১৯৯০ ইতালী বিশ্বকাপ( ১৯৮৯ সালে অনুষ্ঠিত বাছাই)

হোম ম্যাচ

বাংলাদেশ ০-২ চীন

বাংলাদেশ ১-২ ইরান

(আসলাম)

বাংলাদেশ ৩-১ থাইল্যান্ড

(ওয়াসিম, সাব্বির, বাদল দাস)

অ্যাওয়ে ম্যাচ

ইরান ১-০ বাংলাদেশ

চীন ২-০ বাংলাদেশ

থাইল্যান্ড ১-০ বাংলাদেশ

*বাংলাদেশ চার দলের মধ্যে তৃতীয়।

১৯৯৪ যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বকাপ ( ১৯৯৩ সালে অনুষ্ঠিত বাছাই)

জাপান ৮-০ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ১-০ শ্রীলংকা

(রুমি)

সংযুক্ত আরব আমিরাত ১-০ বাংলাদেশ

থাইল্যান্ড ৪-১ বাংলাদেশ

                 ( মামুন জোয়ার্দার)

*জাপানে অনুষ্ঠিত হয় ম্যাচ গুলো।

জাপান ৪-১ বাংলাদেশ

             (রুমি)

সংযুক্ত আরব আমিরাত ৭-০ বাংলাদেশ

থাইল্যান্ড ৪-১ বাংলাদেশ

                ( সাব্বির)

বাংলাদেশ ৩-০ শ্রীলংকা

( মামুন জোয়ার্দার ২, কায়সার হামিদ)

*সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হয় ম্যাচ গুলো

*বাংলাদেশ পাচ দলের মধ্যে চতুর্থ।

১৯৯৮ এর ফ্রান্স বিশ্বকাপ  (১৯৯৭ সালে অনুষ্ঠিত বাছাই)

মালয়েশিয়া ২-০ বাংলাদেশ

সৌদি আরব ৪-১ বাংলাদেশ

                    ( জুয়েল রানা)

চাইনিজ তাইপে ৩-১ বাংলাদেশ

                         (জুয়েল রানা)

*এই ম্যাচ গুলো মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়।

সৌদি আরব ৩-০ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ২-১ চাইনিজ তাইপে

( আলফাজ, নকীব)

মালয়েশিয়া ১-০ বাংলাদেশ

*ম্যাচ গুলো অনুষ্ঠিত হয় সৌদি আরবে।

বাংলাদেশ চার দলের মধ্যে চতুর্থ।

২০০২ জাপান - দক্ষিণ কোরিয়া বিশ্বকাপ ( ২০০১ সালে সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত বাছাই)

সৌদি আরব ৩-০ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ০-০ ভিয়েতনাম

বাংলাদেশ ৩-০ মঙ্গোলিয়া

( আলফাজ ২, কাঞ্চন)

সৌদি আরব ৬-০ বাংলাদেশ

ভিয়েতনাম ৪-০ বাংলাদশ

বাংলাদেশ ২-২ মঙ্গোলিয়া

( মোহাম্মদ সুজন ২)

*বাংলাদেশ চার দলের মধ্যে তৃতীয়

২০০৬ জার্মান বিশ্বকাপ ( ২০০৩ সালে অনুষ্ঠিত প্রাক বাছাই)

হোম ম্যাচ

বাংলাদেশ ০-২ তাজিকিস্তান

অ্যাওয়ে ম্যাচ

তাজিকিস্তান ২-০ বাংলাদেশ

২০১০ দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপ ( ২০০৭ সালে অনুষ্ঠিত প্রাক বাছাই)

হোম ম্যাচ

বাংলাদেশ ১-১ তাজিকিস্তান

( জুমরাতুল ইসলাম মিঠু)

অ্যাওয়ে ম্যাচ

তাজিকিস্তান ৫-০ বাংলাদেশ

২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপ ( ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত প্রাক বাছাই)

হোম ম্যাচ

বাংলাদেশ ৩-০ পাকিস্তান

( এমিলি, জাহিদ, রেজা,)

অ্যাওয়ে ম্যাচ

পাকিস্তান ০-০ বাংলাদেশ

দ্বিতীয় রাউন্ড

লেবানন ৪-০ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ২-০ লেবানন

( মিঠুন, এমিলি)

*গোল পার্থক্যে বাংলাদেশ বাদ

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ ( ২০১৫/১৬ সালে অনুষ্ঠিত বাছাই পর্ব)

বাংলাদেশ ১-৩ কিরগিজস্তান

( আত্মঘাতী)

 

বাংলাদেশ ১-১ তাজিকিস্তান

( এমিলি)

অস্ট্রেলিয়া ৫-০ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ০-৪ জর্ডান

কিরগিজস্তান ২-০ বাংলাদেশ

তাজিকিস্তান ৫-০ বাংলাদেশ

অস্ট্রেলিয়া ৪-০ বাংলাদেশ

জর্দান ৮-০ বাংলাদেশ

*বাংলাদেশ পাঁচ দলের মধ্যে পঞ্চম।

২০২২ কাতার বিশ্বকাপ ( ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত প্রাক বাছাই)

অ্যাওয়ে ম্যাচ

লাওস ০-১ বাংলাদেশ

              ( রবিউল)

হোম ম্যাচ

বাংলাদেশ ০-০ লাওস।

লাওসকে টপকে বাছাই পর্বে উঠে বাংলাদেশ।

 

 পরিসংখ্যানে বিশ্বকাপ ফুটবল বাছাইয়ে বাংলাদেশ

১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ১৯৭৪ সালে ফিফার সদস্য হয়। ১৯৩০ সাল থেকে বিশ্বকাপ ফুটবল শুরু হলেও বাংলাদেশ প্রথম বারের মতো বিশ্বকাপ ফুটবল বাছাই পর্বে  অংশ নেয় ১৯৮৫ সালে। ১৯৮৬ সালের মেক্সিকো বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব ছিল তা। সেই থেকে আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগ পর্যন্ত এই বাছাই পর্ব এবং প্রাক বাছাই পর্ব মিলে লাল সবুজদের অংশ নেয়া ৫০ টি ম্যাচে। এই অর্ধশত ম্যাচে বাংলাদেশের জয় মাত্র ১০টিতে। ড্র করেছে ছয় ম্যাচে। হার বাকী সব খেলায়।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জয়

৩-১ থাইল্যান্ড ( ১৯৯০ এর বাছাই পর্বে)

 ৩-০ শ্রীলংকা ( ১৯৯৪ এর বাছাই পর্বে)

৩-০ মঙ্গোলিয়া ( ২০০২ এর বাছাই পর্বে)

৩-০ পাকিস্তান  (২০১৪ এর প্লে-অফ বাছাই পর্বে)

সবচেয়ে বড় হার

জাপান ৮-০ বাংলাদেশ ( ১৯৯৪ এর বাছাই পর্বে)

সংযুক্ত আরব আমিরাত ৭-০ বাংলাদেশ ( ১৯৯৪ এর বাছাই পর্বে)

সৌদি আরব ৬-০ বাংলাদেশ ( ২০০২ এর বাছাই পর্বে)

জর্দান ৮-০ বাংলাদেশ    ২০১৮ এর বাছাই পর্বে)

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অঘটান

বাংলাদেশ ২-০ লেবানন ২০১৪ এর প্রাক বাছাই পর্বে)

অঘটনের শিকার বাংলাদেশ

মঙ্গোলিয়া ২-২ বাংলাদেশ  ( ২০০২ এ বাছাই পবে)

* এটি মঙ্গোলিয়ার প্রথম পয়েন্ট বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে

বাংলাদেশের জয় গুলো

১৯৮৬ এর বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ১-০ থাইল্যান্ড

বাংলাদেশ ২-১ ইন্দোনেশিয়া

১৯৯০ এর বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ৩-১ থাইল্যান্ড

১৯৯৪ এর বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ১-০ শ্রীলংকা

বাংলাদেশ ৩-০ শ্রীলংকা

১৯৯৮ এর বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ২-১ চাইনিজ তাইপে

২০০২ এর বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ৩-০ মঙ্গোলিয়া

২০১৪ এর প্লে-অফ বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ৩-০ পাকিস্তান

প্রাক বাছাই পর্ব

বাংলাদেশ ২-০ লেবানন

২০২২ প্রাক বাছাই পর্ব

লাওস ০-১ বাংলাদেশ

বাংলাদেশের পক্ষে সবচেয়ে বেশী গোল

মামুন জোর্য়াদার ৩টি

আলফাজ আহমেদ ৩টি

জাহিদ হাসান এমিলি ৩টি

 


আরো সংবাদ

চীনে এবার কারাগারে করোনাভাইরাসের হানা তালেবানের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি ২৯ ফেব্রুয়ারি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে শনিবার মাঠে নামছে বাংলাদেশ সিনেটর গ্রাসলির মন্তব্যের কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস ঢামেক কর্মচারীদের বিক্ষোভ সরকারি হাসপাতালে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে নিয়োগ বন্ধের দাবি খালেদা জিয়ার সাথে স্বজনদের সাক্ষাৎ গাজীপুরে স্বামীর ছুরিকাঘাতে গার্মেন্টস কর্মী খুন বনশ্রীতে ভাড়াটিয়ার বাসায় চুরি কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় জাতীয় হ্যান্ডবল দলের খেলোয়ার নিহত কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধে প্রভাবশালী রাষ্ট্রগুলোকে বাধ্য করতে হবে সবুজ আন্দোলন অমর একুশে উপলক্ষে জাতিসঙ্ঘের বাংলা ফন্ট উদ্বোধন

সকল