২৩ আগস্ট ২০১৯

‘দুর্নীতিপরায়ণ’ বলায়, দুই বছরের নিষেধাজ্ঞার সামনে মেসি

আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লিওনেল মেসি। - ছবি : সংগৃহীত

মেসিকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা

কোপা আমেরিকার আয়োজক দক্ষিণ আমেরিকার সর্বোচ্চ ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল ও রেফারিদের বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর ছুঁড়ে নিজেরই মহাবিপদ ডেকে আনলেন না তো লিওনেল মেসি? আশঙ্কাটা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। সমালোচনা করার প্রেক্ষিতে দুই বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে নিষিদ্ধ হতে পারেন আর্জেন্টাইন তারকা।

স্প্যানিশ ক্রীড়া বিষয়ক গণমাধ্যম এএস রবিবার (৭ জুলাই) তাদের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে। কনমেবলের নীতিমালা অনুসারে, সংস্থাটি কিংবা তার কর্মীবৃন্দকে উদ্দেশ্য করে অপমানসূচক কিছু বলা হলে কঠোর শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। ফলে দীর্ঘমেয়াদি নিষেধাজ্ঞা পেতে পারেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসি।

শাস্তি পেলে আগামী ২০২২ সালে কাতারের মাটিতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে খেলতে পারবেন না মেসি। সেই সঙ্গে পরের বছরের কোপা আমেরিকা (আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া যৌথ আয়োজক) আসরেও দর্শক হয়ে থাকতে হবে তাকে।

চিলির বিপক্ষে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে সরাসরি লাল কার্ড দেখেছিলেন মেসি ও গ্যারি মেদেল। তবে রেফারির ওই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। আর্জেন্টিনা ম্যাচটা জিতলেও বিতর্কিত লাল কার্ড পাওয়ার প্রতিবাদস্বরূপ পদক নিতে যাননি মেসি। আসরের রেফারিদের ‘দুর্নীতিপরায়ণ’ বলে উল্লেখ করেন তিনি। আর ব্রাজিলের প্রতি ‘পক্ষপাতমূলক’ আচরণের অভিযোগ আনেন কনমেবলের বিরুদ্ধে।

চিলির সঙ্গে ম্যাচ শেষে মেসি বলেছিলেন, ‘কোপা আমেরিকা ব্রাজিলের জন্য পাতানো হয়েছে। আশা করছি, রেফারি ও ভিএআর কোনো প্রভাব বিস্তার করবে না এবং তারা পেরুকে (ফাইনালে) প্রতিযোগিতা করার সুযোগ দেবে। কিন্তু এমনটা হওয়ার সম্ভাবনা নেই।’


আরো সংবাদ




mp3 indir bedava internet