০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

ইউরোপিয়ান দলের প্রীতি ম্যাচ ঢাকায়!

আগামী বছর বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী। এই শতবার্ষিকীকে স্মরণীয় করে রাখতে ক্রীড়াঙ্গনে চলছে ব্যাপক আয়োজন। মোটামুটি সব ফেডারেশনেরই কোনো না কোনো আয়োজন থাকছে এ উপলক্ষে। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনও ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে এই জন্ম শতবার্ষিকীতে। তাদের নানা খেলাধুলা এই উপলক্ষে।

ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের সাথে এখন যোগ হয়েছে দুই অতিথি দেশ বা ক্লাবের ফিফা প্রীতি ম্যাচ। এই জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে যে বাজেট হবে তাতে টাকার সংস্থান হলে ইউরোপীয় দুই বড় ফুটবল খেলুড়ে দেশ বা তাদের নামী ক্লাবের ফিফা প্রীতি ম্যাচ হবে ঢাকায়। জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন স্পোর্টস সাব কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। জানান বাফুফের সেক্রেটারি আবু নাঈম সোহাগ।

ইউরোপিয়ান দেশের তালিকায় আছে ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, পর্তুগাল ও স্পেন। ক্লাবের তালিকায় জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ, ফ্রান্সের প্যারিস সেন্ট জার্মেই, স্পেনের বার্সেলোনাসহ ইংলিশ লিগের একটি ক্লাব। বাফুফের প্রথম পছন্দ দুই দেশের মধ্যকার ফিফা প্রীতি ম্যাচ। যেমনটি ২০১১ সালে আর্জেন্টিনা ও নাইজেরিয়ার ফিফা প্রীতি ম্যাচ হয়েছিল বাংলাদেশে।

বাফুফে আগামী বছরের ফিফা প্রীতি ম্যাচের তারিখ অনুযায়ী এই ম্যাচে আয়োজনের চেষ্টা করছে। জাতীয় দলকে আনা সম্ভব না হলে ইউরোপের বিখ্যাত দুই ক্লাব দলকে এনে প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করা হবে। অবশ্য এটা নির্ভর করছে টাকা প্রাপ্তির ওপর। বাফুফে সেক্রেটারি জানান, ‘সরকার টাকা দিলে এই ম্যাচ হবে। না হলে হবে না।’ উল্লেখ্য, ২০১১ সালে মেসিদের আর্জেন্টিনাকে আনতে প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছিল বাফুফের। এই অর্থ দিয়েছিল স্পন্সর প্রতিষ্ঠান।

২০১১ সালে আর্জেন্টিনার লায়নেল মেসি এসে মাতিয়ে যান বাংলাদেশ। এখন অনেকের চাহিদা পর্তুগালের রোনালদোকে ঢাকার মাঠে দেখা। সে জন্য পর্তুগাল জাতীয় দলকে এনে আরেক জাতীয় দলের সাথে প্রীতি ম্যাচে খেলানোর চেষ্টাও করা হচ্ছে।

এই ফিফা প্রীতি ম্যাচের বাইরে আগামী বছর সিনিয়র পুরুষ সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপও হবে বাংলাদেশে। তা বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্টতো রয়েছেই। সিনিয়র ফুটবলারদের এই দুই আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের বাইরে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৫ পুরুষ সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপও হবে বাংলাদেশে।

দেশী ফুটবল আসরও হবে এই জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে। শেরেবাংলা কাপ জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ হয় না ১২-১৩ বছর ধরে। আগামী বছর এই জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপও আয়োজন করা হবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে। তা বঙ্গবন্ধুর নামেই। তবে কোন আসর কবে হবে তা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন পরে বসে ঠিক করবে। তবে সাফ ও বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে হওয়ার কথা।


আরো সংবাদ




Paykwik Paykasa
Paykwik