২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯

মেসির মতো ফুটবলার পৃথিবীতে কখনো আসেনি : দ্রাবিড়

সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার রাহুল দ্রাবিড়ের হাতে তার নাম লেখা বার্সেলোনার জার্সি তুলে দিচ্ছেন বার্সেলোনার সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তামেউ। (ইনসেটে) লিওনেল মেসি - সংগৃহীত

ক্রিকেট মাঠে যিনি দ্য ইন্ডিয়ান গ্রেট ওয়াল নামে পরিচিত, সেই রাহুল দ্রাবিড় ন্যু ক্যাম্পে গিয়ে বনে গেলেন ফুটবল বিশ্লেষক। রোববার লা লিগায় অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে বার্সেলোনার খেলা দেখেন গ্যালারিতে বসে। প্রিয় ফুটবল তারকা লিওনেল মেসির সু-নিপুণ পায়ের করুকার্য অবলোকন করেন কাছে থেকে।

প্রিয় খেলোয়াড়ের খেলা দেখে, মুগ্ধ হয়ে অকপটে বলে ফেলেন, ‘সত্যিই মেসি জিনিয়াস। আমার মনে হয় না, ওর মতো ফুটবালার পৃথীবিতে কখনো এসেছে।’

রাহুল দ্রাবিড়ের উপস্থিতির দিনে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে বার্সেলোনা জয় লাভ করে ২-০ গোলে। টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে ৮৫ ও ৮৬ মিনিটে জয়সূচক দুটি গোল করেন রাহুলের দুই প্রিয় ফুটবলার মেসি ও সুয়ারেজ দু’জনই।

দ্রাবিড় বলেন, ‘এমন সুন্দর খেলা উপহার দেয়ার জন্য মেসি ও সুয়ারেজকে অনেক ধন্যবাদ। নিজ চোখে দেখলাম, কিভাবে মেসি এতো ডিফেন্ডারের মাঝেও শূন্য জায়গা বের করেন এবং গোল করেন। সত্যি মেসি জিনিয়াস।’

রাহুল ন্যু ক্যাম্পে অ্যাথলেটিকো ও বার্সার ম্যাচের শেষ পর্যন্ত টানটান উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সাথে নিজের দেশের আইপিএলকে মিলিয়ে বলেন, ‘আইপিএলেও কিছু কিছু ম্যাচে এমন পরস্থিতি তৈরী হয়, কোন দল জিতবে শেষ বল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়।’

খেলা শেষে বার্সেলোনার সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তামেউ বার্সোলোনার একটি জার্সি উপহার দেন রাহুল দ্রাবিড়কে। রাহুলকে উপহার দেয়া এই জার্সিটি তৈরি করা হয় রাহুল দ্রাবিড়ের নামেই।

উল্লেখ্য, রাহুল দ্রাবিড় ২০১২ সালে আস্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ক্যারিয়ারের ১৬৪ টেস্টে ৩৬ সেঞ্চুরিসহ করেন ১৩ হাজার ২৮৮ রান। আর ৩৮৮ ওডিআইতে করেন ১০ হাজার ৮৮৯ রান। তার ব্যাটিংয়ে ধৈর্যশীলতার জন্য তাকে ‘দ্য ওয়াল’ খেতাব দিয়েছিলেন কিংবদন্তীরা।

আরো পড়ুন : মেসি সম্পর্কে যা বললেন পোপ ফ্রান্সিস
নয়া দিগন্ত অনলাইন, (০২ এপ্রিল ২০১৯)

এস্প্যানিয়লের বিরুদ্ধে পানেনকা ফ্রি-কিকে তার বিস্ময় গোল নিয়ে এই মুহূর্তে উত্তাল ফুটবলবিশ্ব। কী ভাবে এ রকম গোল করলেন লিয়োনেল মেসি তা নিয়ে গবেষণায় ব্যস্ত ফুটবল পণ্ডিতেরা। লা লিগায় ভিয়ারিয়ালের বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে বার্সেলোনা তারকা নিজেই সেই গোলের রহস্য ফাঁস করলেন।

বার্সেলোনার জার্সিতে ফ্রি-কিকেই ৩৯টি গোল করেছেন মেসি। অবিশ্বাস্য সাফল্যের নেপথ্যে রয়েছে নিরন্তর সাধনা ও পরিশ্রম। অনুশীলন শেষ হওয়ার পরেও মাঠ ছাড়েন না মেসি। প্রিয় বন্ধু লুইস সুয়ারেস ও অন্য সতীর্থদের সঙ্গে শুরু করেন বিশেষ অনুশীলন। ফ্রি-কিক থেকে কখনও গোলার মতো শটে বল জালে জড়িয়ে দেন। কখনো আবার মানবপ্রাচীরের মধ্যে ফাঁক খুঁজে নিয়ে আলতো চিপে গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে গোলে বল পাঠান। বাড়তি অনুশীলনই ফ্রি-কিকে অপ্রতিরোধ্য করে তুলেছে আর্জেন্টিনা অধিনায়ককে।

মেসি নিজে মনে করেন, ফ্রি-কিকে তার সাফল্যের অন্যতম কারণ চাপমুক্ত থাকা। স্পেনের একটি সংবাদ মাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘‘ফ্রি-কিকে গোল করতে না পারলে কিছুই হয় না। কিন্তু পেনাল্টি মারার সময় সবাই ভাবে গোল হবেই। তাই চাপ অনেক বেশি থাকে।’’

এস্প্যানিয়লের বিরুদ্ধে ফ্রি-কিকে মেসির অবিশ্বাস্য গোল দেখে শুধু ফুটবপ্রেমীরা নন, মুগ্ধ আর্নেস্তো ভালভার্দেও। ম্যাচের পরে বার্সেলোনা ম্যানেজার বলেই ফেলেছিলেন, ‘‘মেসি যে এ রকম গোল করতে পারে তার কোনো ধারণা ছিল না।’’ তিনি যোগ করেছিলেন, ‘‘যদি বলতাম, পরিকল্পনা অনুযায়ী ফ্রি-কিকে এ রকম গোল করেছে মেসি, তা হলে সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যে। পুরোটাই ওর কৃতিত্ব।’’ উচ্ছ্বসিত ভালভার্দে আরো বলেছেন, ‘‘মেসি যেকোনো দলেরই সম্পদ। ও যদি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলত, তা হলেও একই রকম ভয়ঙ্কর থাকত। আমরা ভাগ্যবান বলেই ওর মতো ফুটবলারকে পেয়েছি।’’ এখানেই শেষ নয়। বার্সা ম্যানেজার যোগ করেছেন, ‘‘মেসির মতো ফুটবলারকে কোচিং করানোটা আমার কাছে বিলাসিতা।’’

পোপ ফ্রান্সিসও মেসির ভক্ত। কিন্তু তার মতে ঈশ্বরের সঙ্গে আর্জেন্টিনা অধিনায়কের তুলনা করাটা পাপ। ভাবনাটাও অপবিত্র। স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘‘অনেকেই মেসিকে ‘ঈশ্বর’ মনে করেন। কিন্তু আমি তা বিশ্বাস করি না। তুলনা করাও উচিত নয়।’’ কেন? পোপের ব্যাখ্যা, ‘‘অনেক মানুষ বলতে পারেন মেসি ঈশ্বর। তারা এ রকমও বলতে পারেন, আপনাকে আমি পছন্দ করি। কিন্তু পূজনীয় একমাত্র ঈশ্বর।’’ পোপকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, তা হলে কি তিনি মনে করেন না, মেসি ভাল ফুটবলার? জবাবে তিনি বলেছেন, ‘‘অবশ্যই। মেসি দুর্দান্ত ফুটবলার ঠিকই। কিন্তু ঈশ্বর নন।’’

মঙ্গলবার রাতে ভিয়ারিয়ালের বিরুদ্ধেও মেসি-ম্যাজিক দেখার প্রত্যাশায় ফুটবলপ্রেমীরা। যদিও এই ম্যাচে তিনি খেলবেন কি না, তা নিয়ে সংশয় ছিল স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমের। কারণ, এই মুহূর্তে ২৯ ম্যাচে ৬৯ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগা টেবলের শীর্ষে এই মুহূর্তে বার্সেলোনা। সমংখ্যক ম্যাচ খেলে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আতলেতিকো দে মাদ্রিদ।

লিগ টেবলে ১৭তম স্থানে রয়েছে ভিয়ারিয়াল। ২৯ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট তাদের। তার উপরে এক সপ্তাহ পরেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে খেলা। ফলে কোনো অবস্থাতেই ঝুঁকি নিতে রাজি হবেন না বার্সা ম্যানেজার। তবে প্রথম একাদশে বেশ কিছু পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিলেও ভালভার্দে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, এই মুহূর্তে মেসিকে বিশ্রাম দেওয়ার কোনও পরিকল্পনা নেই তাঁর। বলেছেন, ‘‘মেসিকে বিশ্রাম দেয়ার সময় এটা নয়।’’


আরো সংবাদ

সকল




portugal golden visa
paykwik