১৫ অক্টোবর ২০১৮

মাঠে নেমেই জোড়া গোল উসাইন বোল্টের

গোল করার পর উসাইন বোল্ট - ছবি : সংগ্রহ

স্প্রিন্ট ট্র্যাক থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়ার পর পেশাদার ফুটবলার হবার জন্য চেষ্টার কমতি নেই স্প্রিন্টের রাজা উসাইন বোল্টের। ১০০
মিটার স্প্রিন্টের দ্রুততম এই মানব ট্র্যাক ছেড়ে দেবার পর পেশাদার ফুটবলার হবার প্রচেষ্টায় ঘুরে বেড়িয়েছেন বিশ্বের নানান প্রান্তে। বিভিন্ন ক্লাবে অনুশীলনও করেছেন। তবে কোথাও থিতু হবার সুযোগ পাননি।

এই অতি আগ্রহের কারণে বোল্টের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলীয় ‘এ’ লীগের ক্লাব সেন্ট্রাল কোস্ট মেরিনার্স। অনন্ত কাল ট্রায়ালের সুযোগ করে দিয়েছে জ্যামাইকান এই গতি দানবকে। কিন্তু দৌঁড়ানো আর ফুটবল খেলা যে এক নয় সেটি হারে হারে টের পেয়েছেন বোল্ট। দলের হয়ে প্রথম মাঠে নামার সুযোগ পেয়ে মাত্র ২০ মিনিটেই ক্লান্তি ভর করেছিল তার। এগুতে পরেননি সেই দফায়।

তবে নিজের স্বপ্ন পুরণের অদম্য আগ্রহ দমাতে পারেনি বোল্টকে। লড়াই চালিয়ে গেছেন, সফলও হয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ফুটবল ক্যারিয়ারের প্রথম মাইলফলকে পৌছেছেন বোল্ট। মাঠে নেমেছেন পেশাদার ফুটবলে জার্সি  পরে। দেখা পেয়েছেন গোলেরও। তাও আবার এক ম্যাচেই দুটি গোল করেছেন অলিম্পিকের আট স্বর্ণপদক জয়ী এই স্প্রিন্টার। গোল উদযাপনটা অবশ্য তার জন্য হয়ে গেছে কস্টদায়কও। কারণ দুই গোল করা ম্যাচে কুচকির ইনজুরিতেও আক্রন্ত হয়েছে তিনি।

শুক্রবার মৌসুম পূর্ব প্রীতি ম্যাচে সেন্ট্রাল কোস্টের হয়ে ফরোয়ার্ড হিসেবে নেমে এই অসাধ্য সাধন করেছেন বোল্ট। শুক্রবার সিডনিতে ম্যাকার্থার সাউথ ওয়েস্ট ইউনাইটেডের বিপক্ষে অনুষ্টিত ম্যাচে দুই দুটি গোল করেছেন ১০০ মিটার স্প্রিন্টের এই বিশ্ব রেকর্ডধারী।ম্যাচের ৫৫তম মিনিটে গোল করেই উদযাপনে নেমে পড়েন বোল্ট। তার সেই বিখ্যাত ট্রেডমার্ক আদলে কাল্পনিক তীর ছুড়ে উদযাপন করেন
পেশাদার ফুটবলের প্রথম গোলটি। ম্যাচের ৬৯তম মিনিটে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় গোলের দেখা পান ৩২ বছর বয়সি এই বিশ্বখ্যাত তারকা।
ম্যাচে ৪-০ গোলে জয়লাভ করে তার দল।

গত আগস্টে অনির্ধারিত সময়ের জন্য ‘এ’ লীগের এই ক্লাবে ট্রায়ালে অংশগ্রহনের চুক্তিবদ্ধ হওয়া বোল্টের এটি ছিল প্রথম কোন ম্যাচ। এর
আগে অবশ্য কয়েকটি ‘অ্যামেচার’ ফুটবল ম্যাচে অংশ নিয়েছিলেন বোল্ট।

আরো পড়ুন:

আগামী সপ্তাহে শ্রীলংকা সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল
আগামী সপ্তাহে শ্রীলংকা সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল। সফরে দু’টি চার দিনের ও পাঁচটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশের যুবারা। ১৭ অক্টোবর থেকে শুরু হবে প্রথম চার দিনের ম্যাচ। ২৩ অক্টোবর শুরু হবে দ্বিতীয় চারদিনের ম্যাচ। দু’টি চারদিনের ম্যাচ শেষে পাঁচটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা। পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে- ৩০ অক্টোবর এবং নভেম্বরের ১,৩,৬,৯, ১০ তারিখ। শ্রীলংকা সফরের উদ্দেশ্যে আগামী ১৩ অক্টোবর ঢাকা ছাড়বে বাংলাদেশ দল।

বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল : তৌহিদ হৃদয়, তানজিদ হাসান তামিম, সাজিদ হোসেন সিয়াম, মোহাম্মদ প্রান্তিক, নওরোজ নাবিল, অমিত হাসান, শামিম হোসেন, আকবর আলি, মাহমুদুল হাসান জয়, রাকিবুল হাসান, মিনহাজুর রহমান মোন্না, মোহাম্মদ রিসাদ হোসেন, শরিফুল ইসলাম, মোহাম্মদ মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরি নিপুন, আসাদউল্লাহ হিল গালিব ও শাহিন আলম।
স্ট্যান্ডবাই : প্রিতম কুমার, শাহাদাত হোসেন, অভিষেক দাস, তানজিম হাসান সাকিব ও মেহেদি হাসান।


আরো সংবাদ