২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

অচেনা আর্জেন্টিনা এমন দুর্ধর্ষ!

অচেনা আর্জেন্টিনা এমন দুর্ধর্ষ! - ছবি : সংগৃহীত

অচেনা আর্জেন্টিনা এমন দুর্ধর্ষ হতে পারে! বৃহস্পতিবার প্রায় নতুন করে গড়া আর্জেন্টিনাই দুর্দান্ত খেলল। নিরপেক্ষ মাঠে তারা বিশাল ব্যবধানে জয়ী হয়ে তাদের শক্তিমত্তা প্রদর্শন করল। সৌদি আরবের রিয়াদে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে তারা ৪-০ গোলে হারিয়েছে ইরাককে।
এই ম্যাচে বেশ কয়েকজন তারকাকে রাখেনি আর্জেন্টিনা। অনুপস্থিতদের মধ্যে সবচেয়ে বড় নামটি হলো মেসি। কিন্তু তিনি যে অনুপস্থিত, সেটিই বুঝতে দেননি নবাগত এক তারকা। চার গোলের জয়ে আর্জেন্টিনার হয়ে একটি করে বল জালে পাঠান মার্টিনেজ, পেরেইরা, পেজ্জেলা ও সেরভি।

কোচ লিওনেল স্কালোনি আর্জেন্টিনাকে নতুন করে গড়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তিনি যাদের ওপর ভরসা রেখেছেন তারা তাকে হতাশ করেননি। বরং প্রমাণ করেছেন, আগামী দিনে তাদের ওপর ভরসা রাখা যায়।

ম্যাচের ১৮ মিনিটেই ইরাকের জালে প্রথম গোলটি জড়িয়ে দেন ইন্টার মিলান তারকা মার্টিনেজ। মার্কোস অ্যাকুনার ক্রস থেকে হেডে ইরাকের জালে বল জড়াতে কোনো সমস্যাই হয়নি মার্টিনিজের। এরপর প্রথমার্ধে বেশ কিছু গোলের সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি দিবালা।

তবে দ্বিতীয়ার্ধের ৫৩ মিনিটে দিবালার সঙ্গে ওয়ান-টু পাসে ক্লিনিক্যাল ফিনিশে গোল পান পেরেইরা। ৮২ মিনিটে আর্জেন্টিনার হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন পেজ্জেলা। কর্নার কিক থেকে সার্ভিওর মাথা ছুঁয়ে বল যায় পেজ্জেলার কাছে। হাওয়ায় ভাসা বলে হেডে বল জালে জড়ান তিনি। যোগ হওয়া সময়ে ইরাকের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকেন সেরভি। কান্নেমানের পাস থেকে জোরালো শটে চার নম্বর গোলটি করেন এই মিডফিল্ডার।

আরো খবর

দুঃসময়ের ফাঁদেই আটকা ইতালি
ক্রীড়া প্রতিবেদক

দুঃসময় কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালির। সঙ্কটের আবর্তে আটকা ২০১৮ সালের রাশান বিশ্বকাপে চূড়ান্ত পর্বে প্রতিনিধিত্বে ব্যর্থ ইউরোপের জায়ান্টরা। নতুন কোচ নিয়োগের পরও মাঠের ফুটবলে প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স প্রদর্শনের চ্যালেঞ্জে দুঃস্বপ্নের বৃত্তেই ঘুরপাক খাচ্ছে ইতালি। টানা ৫ খেলায় উন্নীত তাদের জয়-খরা নতুন রবার্তো মানচিনির অধীনে। বুধবার জেনোয়ার হোম ভেনুতে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে প্রথমে লিড নিয়েও জয়বঞ্চিতের যন্ত্রণা হজম চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। উত্তেজনায় ঠাসা নব্বই মিনিটের খেলায় নাটকীয়ভাবেই তাদেরকে ১-১ গোলে রুখে দেয় লড়াকু ইউক্রেন।

সফরের অ্যাওয়ে ম্যাচের বাড়তি চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও সূচনা থেকেই ইউক্রেনের আক্রমণাত্মক ফুটবলের প্রদর্শনীতে কোণঠাসা ইতালি। তবে গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর খেলার ধারার বিপরীতে চমৎকার এক গোলে লিড তাদের। ৫৫ মিনিটে উদীয়মান স্ট্রাইকার ফ্রেডরিকো বেনার্ডশির চমৎকার ফিনিশিংয়ের গোল টানা ৪ ম্যাচের জয়-খরার দুঃস্বপ্ন পেছনে ফেলার রেসে দলটির আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে তুলে দেয়। কিন্তু প্রথমে পিছিয়ে পড়লেও হাল ছাড়েনি ইউক্রেন। লড়াকু নৈপুণ্যেই তারা নিশ্চিত করেছে স্বাগতিক ইতালির সাম্প্রতিক ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা। ৭ মিনিটের মধ্যেই সফরকারীদের সমতার উৎসব ভেস্তে দেয় স্বাগতিকদের বহু প্রতীক্ষিত জয়োৎসবের প্রস্তুতি। তারকা ফুটবলার রুসলান মানিনোভস্কির দুর্দান্ত গোলে যোগ্যতম দল হিসেবেই ইউক্রেন জয়বঞ্চিত করেছে ইতালিয়ানদের। খেলার অন্তিম মুহূর্তে তারা অল্পের জন্য বেঁচে গেছে হারের দুঃস্বপ্ন থেকে সফরকারীদের একমাত্র গোলদাতার অসাধারণ ফ্রি-কিক ক্রসবারে লেগে প্রতিহত হওয়ায়।

নতুন কোচ মানচিনির অভিষেকে জয়োৎসবের উচ্ছ্বাস দীর্ঘস্থায়ী হয়নি ইতালির ড্রেসিংরুমে। ৬ খেলায় সৌদি আরবের বিপক্ষে ওই এক জয়েই সীমাবদ্ধ দেশটির হেড কোচ হিসেবে সাবেক ম্যানসিটি ম্যানেজারের ক্যারিয়ার। ডাগ-আউটে দাঁড়িয়ে তাকে সইতে হয়েছে শেষ ৫ ম্যাচের মধ্যে ফ্রান্স-পর্তুগালের কাছে পরাজয়ের যন্ত্রণাও!


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme