২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বিশ্বকাপে খেলতে গিয়েছিলাম, লাথি খেতে নয় : নেইমার

নেইমার
নেইমার - সংগৃহীত

"বিশ্বকাপ থেকে ব্রাজিলের বিদায় আমাকে গভীর শোকের মধ্যে ফেলে দিয়েছিল" এমনটাই জানিয়েছেন এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপের সবচেয়ে আলোচিত খেলোয়াড়দের একজন নেইমার।

এবার বিশ্বকাপ জয় করতে পারে-এমন দলগুলোর মধ্যে বুকিদের অন্যতম পছন্দের দল ছিল ব্রাজিল। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনাল পর্ব থেকে বাদ পড়ে যায় তারা।

বেলজিয়ামের বিপক্ষে সেই ম্যাচে পরাজয়ের পর কি প্রতিক্রিয়া ছিল দলের তারকা ফুটবলার নেইমারের?

নিজের দেশ টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ার পর নেইমার বলেন, "এরপর বলের দিকেও তাকাতে ইচ্ছে করতো না। এবং বিশ্বকাপের বাকি খেলাগুলো দেখার কোনো আশাও ছিল না।"

পিএসজি তারকা জানান, তিনি খুবই শোকাহত হয়ে পড়েছিলেন, খুব কষ্ট হচ্ছিল তার। কিন্তু এই সবকিছুকে পাশ কাটাতে হয়েছে।

"আমার ছেলে আছে, আমার পরিবার ও বন্ধুরা আছে এবং তারা কেউ চায়নি আমি অবসন্ন-ভাবে মুখ-গোমরা করে বসে থাকি।"

২৬ বছর বয়সী নেইমার আরো জানিয়ে দেন যে, পিএসজি ক্লাব ছেড়ে তার রিয়াল মাদ্রিদে চলে যাওয়ার যে খবর বিভিন্ন মাধ্যমে আসছে সে খবরের পুরোটাই গুজব।

বিশ্বজুড়ে রেকর্ড দুই শ' মিলিয়ন পাউন্ডে বার্সেলোনা ছেড়ে গত গ্রীষ্মে পিএসজিতে যোগ দেন নেইমার। এরপর থেকে ঘরোয়া যত খেলায় ফরাসি এই ক্লাবটি অংশ নেয় তার প্রায় সবগুলোতে সব মিলিয়ে ২৮টি গোল করেন তিনি।

এই ব্রাজিলিয়ান খেলার সময় মাঠে ফাউলের ঘটনার শিকার হলে মাঠে তার পড়ে যাওয়া এবং গড়াগড়ির বিষয়টিকে 'অভিনয়' উল্লেখ করে অনেকে তার সমালোচনা করতে থাকেন।

নেইমারের বক্তব্য, রেফারিদের কাছ থেকে তিনি আরো বেশি সুরক্ষা আশা করেছেন।

এই ফুটবলার বলেন, যারা ফাউল করে তাদের সমালোচনা না করে সাধারণ মানুষ সমালোচনা করেছে- তাদের- যারা ফাউলের শিকার হচ্ছে।

বিশ্বকাপে গিয়েছিলাম খেলার জন্য, বিপক্ষ দলকে হারাতে, উল্টো-লাথি খেতে নয়।

"আমার সমালোচনা ছিল অতিরঞ্জিত কিন্তু এই ধরনের বিষ আমি মোকাবেলা করে অভ্যস্ত।"

রেফারি হওয়া আর মাঠে খেলা -দুটো তো একই সময়ে করা যায় না, কিন্তু কখনো কখনো এমন সময় আসতো যে সেটাই আমি প্রার্থনা করতাম।

 

আরো পড়ুন : এবার নিজেকে নিয়ে মশকরা করলেন নেইমার

রাশিয়া বিশ্বকাপে ফুটবল ছাড়া আর কোন বিষয়টি বারবার আলোচনায় এসছে? এ প্রশ্নের উত্তর পুরো বিশ্ব জানে। তা হলো নেইমারের চোট পাওয়ার 'নাটক'। খেলার মাঠে তার বারবার পড়ে যাওয়া নিয়ে কম হাসি-ঠাট্টা হয়নি। বিশ্বকাপে ১৪ মিনিট তিনি কাটিয়েছেন মাঠে গড়াগড়ি খেয়ে। তবে শুধু মশকরাই নয়, তার প্লে-অ্যাক্টিং নিয়ে সমালোচনাও হয়েছে বিস্তর। রাশিয়া বিশ্বকাপ শেষ হয়ে যাওয়ার পর আবার নেইমারের চোট আলোচনার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়েই ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। এবার নেইমারকে নিয়ে কে হাসি-ঠাট্টা করেছেন, জানেন? ব্রাজিলের এই সুপারস্টার নিজেই।

হ্যাঁ। নিজের কাণ্ড দেখে এবার নিজেই হাসি থামাতে পারছেন না নেইমার। আর শুধু হাসলেনই না, উলটে কীভাবে পড়ে যেতে হয়, মজা করে তা বাচ্চাদের শেখাতেও দেখা গেলো পিএসজি'র এই তারকাকে।

ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন নেইমার। যেখানে দেখা যাচ্ছে, তার নির্দেশ মেনে একসাথে মাটিতে পড়ে যাচ্ছে একদল শিশু। তারপরই নেইমার বলছেন, একটা ফ্রি-কিক পাওয়া গেল। তার এই শুনে হাসছে সবাই।

কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়ামের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছে ব্রাজিল। তারপর বৃহস্পতিবার প্রথম ভক্তদের সামনে এলেন ব্রাজিলীয় স্ট্রাইকার। নেইমার জুনিয়র ইনস্টিটিউশনের একটি অনুষ্ঠানে বাচ্চাদের সাথে সময় কাটান তিনি।

ভিডিওটি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে নেইমার বলেন, মজা করছিলাম। প্রত্যেকেই এই বিষয়টা নিয়ে সমালোচনা করেছে। তবে আমি এটাকে হালকাভাবেই নিচ্ছি। আমি একেবারেই দুঃখিত নই। বাচ্চাদের সাথে সময় কাটানোর সময় হঠাৎই মাথায় এলো এরকম একটা ভিডিও বানাই।

এদিকে রিয়াল মাদ্রিদে তার যোগ দেয়া নিয়ে জল্পনায় নিজেই দল ঢেলে দিলেন নেইমার। জানিয়ে দিলেন, প্যারিসের ক্লাবেই থাকবেন তিনি।


আরো সংবাদ




Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme