১৬ নভেম্বর ২০১৮

রাশিয়ার প্রশংসায় ফিফা সভাপতি

বিশ্বকাপ
ফিফা সভাপতি জিয়ানি ইনফান্তিনো - সংগৃহীত

অনেকেরই বাজে ধারণা ছিল রাশিয়া বিশ্বকাপ নিয়ে। সব চেয়ে খারাপ হবে এবারের বিশ্বকাপ। অনেক অঘটন হতে পারে। বর্ণবাদী হামলা হতে পারে ইত্যাদি। অথচ সব আশঙ্কা এবং অনুমানকে মিথ্যা প্রমাণ করেছে রাশিয়ানরা। সবার ধারণা পাল্টে দিয়ে অন্যতম সেরা আয়োজকের কাতারে এখন রাশিয়া। বিশ্বকাপ ভেন্যুর প্রতিটি শহরে রেল যাতায়ত ফ্রি। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তথ্য পেতে নেই কোনো সমস্যা। স্বোচ্ছাসেবকরা আছেন প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে। এছাড়া স্থানীয়রাও সাধ্য মতো চেস্টা করছেন উপকার করতে। কাল সংবাদ সম্মেলনে ২১তম বিশ্বকাপের আয়োজক রাশিয়ার এমন প্রশংসাই ফিফা সভাপতি জিয়ানি ইনফান্তিনোর মুখে। তার মতে, রাশিয়ায় আসা বিদেশী দর্শকরা খুব ভালো ধারণা নিয়ে গেছে এই দেশ সম্পর্কে। আমার মতে এটা সর্বকালের সেরা বিশ্বকাপ।

ফিফা সভাপতির মতে, রাশিয়া আসলেই ফুটবলের দেশ। ফুটবল তাদের আত্মার সাথে মিশে আছে। এখানকার সবগুলো স্টেডিয়ামই ছিল অসাধারণ। আশা করি, এই সব স্থাপনাকে কাজে লাগিয়ে তারা তাদের ভবিষ্যত ফুটবল কে আরো এগিয়ে নিতে পারবে। আর ফিফাও সব ধরনের সহযোগিতা করবে রাশিয়াকে।

তিনি উল্লেখ করলেন, ফুটবল সমর্থকরা সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকে সামারা, কাজান থেকে সচি সব ভেন্যুতে ঘুরে দেখেছেন। তারা দেখেছে স্থানীয়রা কতোটা আন্তরিক। তারা রাশিয়ার সংস্কৃতি সম্পর্কে জেনেছে। অবগত হয়েছে দেশের ইতিহাস সম্পর্কে। ম্যাচ শেষে জাপান এবং সেনেগালের দর্শকদের স্টেডিয়াম পরিস্কারের প্রশংসাও করেছেন ইনফান্তিনো।

এবারের বিশ্বকাপে ইতালি, নেদারল্যান্ডস, দক্ষিণ আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন চিলি, আফ্রিকা চ্যাম্পিয়ন ক্যামেরুন, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্কের মতো দল এবার বিশ্বকাপে খেলতো না পারার কথা উল্লেখ করেন তিনি। একই সাথে ছোট দেশ ক্রোয়েশিয়ার ফাইনালে উঠা, নতুন দল হিসেবে পানামার বিশ্বকাপে এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গোল করার পর পানামাবাসীদের উল্লাসের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন তিনি। তার মতে, গোলের পর পানামার উল্লাস ছিল শিরোপা জয়ের মতো। তিনি ইউরোপ বা ল্যাতিন জোন থেকে দল বাড়ানো বা কমানোর কোনো ইংগিত দিলেন না। বরং তার মুখে অন্য অঞ্চল থেকে দল বৃদ্ধির আভাস। আর এই সিদ্ধান্ত ফিফার পরবর্তী সভাতে হবে। আরো জানান, ক্রোয়েশিয়ার ফুটবলের ঐতিহ্য আছে। এছাড়া ২০২৬ সালের বিশ্বকাপে ৪৮ দল খেলবে। তখন ভিন্ন ফরম্যাটে খেলা হবে বলে জানালেন তিনি।

থাইল্যান্ডর গুহাতে আটকে পড়া ১৪ ফুটবলারকে লন্ডনের ফিফা অ্যাওয়ার্ড নাইটে আমন্ত্রন জানানোর কথা বললেন ফিফা সভাপতি। এমনকি কাতার বিশ্বকাপে ফাইনালেও তাদের খেলা দেখার সুযোগের কথাও জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, এবার চিকিৎসার জন্য গুহা থেকে উদ্ধার থাই ক্ষুদে ফুটবলারদের রাশিয়ায় এসে ফাইনাল দেখা হচ্ছে না।

দেখুন:

আরো সংবাদ