১৯ নভেম্বর ২০১৯

ভোলার হত্যাকাণ্ডে সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল

-

ভোলায় পুলিশের গুলিতে নিরীহ মানুষ হত্যা ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বুধবার রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি।
সকালে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে পল্টন-শাহবাগ-রমনা থানা বিএনপি। মিছিলটি নয়াপল্টনের কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে নাইটিংঙ্গেল রেস্তোরাঁর মোড় ঘুরে আবার কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়।
মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ভোলায় নির্বিচারে গুলি করা হয়েছে। শুধু কথায় কথায় গুলি। দেশের মানুষ মনে হয় পশু-পাখির মতো। যেকোনো একটা সমাবেশ হলেই সেখানে গুলি আর হত্যা। মানুষ হত্যা সরকারের কাছে ডাল-ভাতে পরিণত হয়েছে। এই সরকার গণতন্ত্র হত্যা করেছে, বাকস্বাধীনতা হরণ করেছে, স্বাধীন মতামত হত্যা করেছে, সমাবেশ করা সাংবিধানিক অধিকার, সেই অধিকারকে ভোলায় সরকার সহ্য করল না, চারজনকে হত্যা করল, শতাধিক আহত করল বিনা কারণে, বিনা উসকানিতে।
তিনি বলেন, আমরা সারা দেশে ভোলা হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে কর্মসূচি পালন করছি। আমরা যদি প্রতিবাদ না করি তাহলে আপনাদের-আমাদের কারো জীবনই নিরাপদ থাকবে না, আমাদের সন্তানরা নিরাপদে স্কুল-কলেজে যেতে পারবে না, বাসায় ফিরে আসতে পারবে না।
সরকারের অপকর্মের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। এ সময় মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশারও বক্তব্য রাখেন।
কামরাঙ্গীর চর থানা : কামরাঙ্গীর চর থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল থানা বিএনপির সভাপতি হাজী মনির হোসেন মনিরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি ঝাঁউচর বেড়িবাঁধ হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে গুদাড়াঘাট গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন থানার সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী আওলাদ হোসেন, মো: পারভেজ মিয়া, জাহাঙ্গীর আলম, মো: খায়ের উদ্দিন, মো: সালাউদ্দিন, আলমগীর হোসেন, জাহাঙ্গীর মিয়া, ফারুক আহমেদ, মো: সিরাজ, মো: সিদ্দিক মিয়া প্রমুখ।
সূত্রাপুর ও ওয়ারী থানা : সূত্রাপুর ও ওয়ারী থানা বিএনপির উদ্যোগে ওয়ারী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক মুক্ত ও সূত্রাপুর থান বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম আজিজের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি জজ কোর্টের সামনে থেকে শুরু হয়ে জজ কোট এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা পরিষদের সামনে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সূত্রাপুর থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো: আক্তার হোসেন, ওয়ারী থানার সাংগঠনিক সম্পাদক কে এস হোসেন টমাস, মো: রেজাউল ইমন, মজিবুর রহমান আনু, দোলোয়ার হোসেন, অ্যাডভোকেট মাহাফুজুর রহমান মনা, ইব্রাহিম মোল্লা, আমির হোসেন, অ্যাডভোকেট ফয়েজ, মো: জন ও রামশাহা সুমনসহ বিভিন্ন অংঙ্গ-সংগঠনের নেতারা।
কদমতলী থানা : কদমতলী থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল জুরাইন রেলগেট থেকে শুরু হয়ে মেইন রোড প্রদক্ষিণ করে ধোলাইপাড় গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে রবিউল ইসলাম দিপু, আনিছুর রহমান আনিস, মো: খোকন মেম্বর, মো: দেলোয়ার হোসেনসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
ডেমরা থানা : ডেমরা থানা বিএনপির উদ্যোগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহসভাপতি ও থানা বিএনপির সভাপতি জয়নাল আবেদিন রতন, সহ-সাধারণ সম্পাদক ও থানা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আকবর হোসেন ভূঁইয়া নান্টু, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেমের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি ডগাইবাজার থেকে শুরু হয়ে তালিমুল মাদরাসা হয়ে সানারপাড় গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আবু নোমান, মো: শামীম, মো: বাবু, আবুল কাশেম, আ: গফুর, মাহাবুব, শওকত আকবর, শাওন খানসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।
গেণ্ডারিয়া থানা : গেণ্ডারিয়া থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল বানিয়ানগর মোড় থেকে শুরু হয়ে দয়াগঞ্জ মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ৪০ নং ওয়ার্ড বিএনপির নেতা মো: মাহাবুবুর রহমান মাহবুব, ৪৬ নং ওয়ার্ড বিএনপি নেতা হাজী মো: ফারুক, মো: সোহেল, মো: রবিন, মো: মাসুদ রোমান, মো: কবির, দৃপ্তি, মো: রাজনসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।
কোতোয়ালি ও বংশাল থানা : কোতোয়ালি ও বংশাল থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি মিছিল বংশাল থানা বিএনপির সভাপতি মো: তাইজুদ্দিন আহমেদ তাইজু, সাধারণ সম্পাদক মামুন আহমেদ, কোতোয়ালি থানা বিএনপির সভাপতি হায়দার আলী বাবলা ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল আজিমের নেতৃত্বে নয়াবাজার হাজী ইউসুফ মার্কেট থেকে শুরু হলে আওলাদ হোসেন লেন প্রদক্ষিণ করে বংশাল রোডে এসে সংক্ষিপ্ত সভার মধ্য দিয়ে শেষ হয়। অন্যদের মধ্যে এতে আরো উপস্থিত ছিলেন বংশাল থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী আদিল, কোতোয়ালি থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদসহ থানা বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা।
মোহাম্মদপুর শ্রমিক দল : সকালে মোহাম্মদপুর বিআরটিসি বাসস্ট্যান্ড এলাকায় থানা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক আলী কায়সার পিন্টু, ৩৩ নং ওয়ার্ড সভাপতি সিরাজ মুন্সী, শ্রমিক নেতা জাহাঙ্গীর আলম, মাসুদ বেপারি, বাবুল হাওলাদার, আকবর হোসেন, মো: শফিক, মো: সোবাহান, বিল্লাল বেপারি ও ফারুক আহম্মেদসহ প্রমুখ নেতাদের নেতৃত্বে মোহম্মদপুর থানা জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিলটি বিআরটিসি বাসস্ট্যান্ড থেকে শুরু হয়ে বেড়িবাঁধ তিন রাস্তার মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম বলেছেন, দেশবাসী এখন অত্যাচারী সরকারের বর্বর শাসনে অসহায় হয়ে পড়েছে। ভোটারবিহীন সরকারের নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচরণে দেশের মানুষ ভীত-সন্ত্রস্ত। আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা সারা দেশকে মৃত্যুপুরীতে পরিণত করেছে। দেশে এখন জংলি শাসন চলছে। ভোলার বোরহানউদ্দীনে মহানবী সা:কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের গুলিবর্ষণে চারজন নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছেন। পুলিশের এমন মারমুখী আচরণ ও নিষ্ঠুরতা ক্ষমার অযোগ্য। আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে জবাবদিহি করতে হয় না বলেই সামান্য কিছুতেই নির্বিচারে গুলি করে মানুষ হত্যা যেন এখন নিত্যদিনের ঘটনা। ভোলার হত্যাকাণ্ডের পর থেকে সরকার ও প্রশাসন দুঃখ প্রকাশ না করে বরং হত্যার পক্ষে সাফাই গাইছে। প্রশাসন সুকৌশলে ভোলায় মানুষের প্রতিবাদকে সাম্প্রদায়িক রূপ দেয়ার চক্রান্ত চালাচ্ছে। আর প্রধানমন্ত্রী তার স্বভাবসুলভ ভাষায় প্রতিবাদকারীদের প্রতি হুমকি-ধমকি দিচ্ছেন।
তিনি গতকাল বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উদ্যোগে নাসিমন ভবনে দলীয় কার্যালয় মাঠে ভোলায় নিরীহ মুসল্লি হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহসভাপতি এম এ আজিজের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসিন চৌধুরী লিটনের পরিচালনায় প্রস্তুতি সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেনÑ চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহসভাপতি মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, নাজিমুর রহমান, এস এম আবু ফয়েজ, যুগ্ম সম্পাদক কাজী বেলাল উদ্দিন, শাহ আলম, ইসকান্দর মির্জা, আর ইউ চৌধুরী শাহীন, আবদুল মান্নান প্রমুখ।
খুলনা ব্যুরো জানায়, ভোলায় প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ সা: সম্পর্কে কটূক্তির প্রতিবাদে জমায়েত হওয়া ধর্মপ্রাণ মানুষের ওপর পুলিশের নির্বিচার গুলিতে চারজন নিহত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল বুধবার খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুর সভাপতিত্বে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন : সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি, শেখ মুজিবর রহমান, আমীর এজাজ খান প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে এ ক্ষেত্রে দায়ী পুলিশ কর্মকর্তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। একই সাথে কটূক্তিকারীর বিচারের দাবিও জানানো হয়।
বগুড়া অফিস জানায়, ভোলায় পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হওয়ার প্রতিবাদে এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বগুড়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে বগুড়া জেলা বিএনপি। গতকাল বুধবার কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলা বিএনপির উদ্যোগে শহরের নবাববাড়ী রোডের দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক এমপি হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু বলেন, বিএনপি হলো সব ধর্মের ঠিকানা। তাই বিএনপির কাছে সব ধর্মই নিরাপদ। কিন্তু এ সরকারের কাছে ইসলাম নিরাপদ নয়। তাই দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে ইসলাম রক্ষা করতে হবে।
জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলুল বারী তালুকদার বেলালের সভাপতিত্বে ও কে এম খায়রুল বাশারের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তৃতা দেন সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাদশা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চান, বিএনপি নেতা লাভলী রহমান প্রমুখ।
রংপুর অফিস জানায়, মহানবী হজরত মোহাম্মদ সা:কে কটূক্তির জেরে ভোলার বোরহান উদ্দিনে তৌহিদি জনতার মিছিলে পুলিশ গুলি চালিয়ে হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করার প্রতিবাদে বুধবার রংপুর মহানগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মহানগর ও জেলা বিএনপি।
বেলা সাড়ে ১২টায় নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ে দলীয় কার্যালয় থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে মূল সড়কে আসতে চাইলে তাতে বাধা দেয় পুলিশ। এ সময় সেখানে নেতৃবৃন্দের সাথে পুলিশের কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সেখানেই সমাবেশ হয়। মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ও জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক এমপি শাহিদার রহমান জোসনার সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রংপুর মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কারমাইকেল কলেজের সাবেক জিএস শহিদুল ইসলাম মিজু, জেলা সহসভাপতি মিজানুর রহমান রন্টু, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, মহানগর যুবদল সভাপতি মাহফুজ উন নবী ডন, সাংগঠনিক সম্পাদক জহির আলম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মোকছেনুল আরেফিন রুবেল প্রমুখ।
বক্তারা অবিলম্বে তৌহিদি জনতার বিরুদ্ধে দেয়া মামলা প্রত্যাহার এবং দায়ী পুলিশ সদস্যদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পৃথকভাবে সমাবেশ ও প্রতিবাদ সভা করেছে বরিশাল জেলা ও মহানগর বিএনপি। বুধবার নগরের অশ্বিনী কুমার টাউন হল চত্বরে বরিশাল জেলা বিএনপির কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপি সভাপতি এবায়েদুল হক চাঁন। বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক এমপি মেজবা উদ্দিন ফরহাদ, বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল কালাম শাহিনসহ বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে দক্ষিণ জেলা বিএনপির বিএনপির বিভিন্ন উপজেলা নেতৃবৃন্দ অংশ নেয়। সমাবেশ সঞ্চলনা করেন বরিশাল সদর উপজেলা বিএনপি ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন লাবু।
একই কর্মসূচি নিয়ে সদররোডস্থ জেলা ও মহানগর বিএনপি দলীয় কার্যলয়ের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে মহানগর বিএনপি। মহানগর বিএনপি সহসভাপতি আব্বাস উদ্দিন বাবলুর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপি উপদেষ্টা ও দৈনিক বিপ্লবী বাংলাদেশ পত্রিকা সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম ফরিদ, সুপ্রিম কোর্ট বার সদস্য অ্যাডভোকেট আলী হায়দার বাবুল, মহানগর আইনবিষয়ক সম্পাদক ও অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ। প্রতিবাদসভায় যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবকদলসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সদস্যরা অংশ গ্রহণ করেন।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু বলেছেন, বর্তমান সরকারের আমলে কোনো মানুষ নিরাপদ নয়। গতকাল বুধবার দুপুরে নগরীর মালোপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে রাস্তায় রাজশাহী মহানগর ও জেলা বিএনপির আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদ। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্যসচিব বিশ্বনাথ সরকার, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সহিদুন্নাহার কাজী হেনা, নওহাটা পৌরসভার মেয়র শেখ মকবুল হোসেন প্রমুখ।
যশোর অফিস জানায়, গতকাল বুধবার বিকেলে শহরের লাল দিঘিস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করেছে যশোর জেলা বিএনপি। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপি আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম। প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপি খুলনা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য গোলাম রেজা দুলু, আব্দুস সালাম আজাদ, পৌর বিএনপির সভাপতি সাবেক মেয়র মারুফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মুনির আহমেদ সিদ্দিকী বাচ্চু প্রমুখ।
ফরিদপুর সংবাদদাতা জানান, দপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে বিএনপি। গতকাল বুধবার সকালে শহরের আলীপুর গোরস্থান মোড় থেকে মিছিলটি বের হয়ে ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালের সামনে সমাবেশ করে। এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সাবেক মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক আমিনুর রহমান মুসা, সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক আশরাফ হোসেন, হাসানুর রহমান মৃধা প্রমুখ।
নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে জেলা বিএনপির আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ পণ্ড করে দিয়েছে পুলিশ। গতকাল বুধবার বিকেলে সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপি। পুলিশ বিএনপির মানববন্ধনের ব্যানার টেনে ছিঁড়ে ফেলে কর্মসূচি পণ্ড করে দেয়। জেলা বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক মো: রুহুল আমিন সিকদার নয়া দিগন্তকে এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।
নোয়াখালী সংবাদদাতা জানান, ভোলায় বর্বরোচিত হামলা ও নিহত হওয়ার প্রতিবাদে নোয়াখালীতে বুধবার বিকেলে জেলা বিএনপির প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পৌর বিএনপির সভাপতি আবু নাছেরের সভাপতিত্বে নোয়াখালী প্রেস ক্লাব চত্বরে সভায় বক্তব্য রাখেনÑ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, বিএনপি নেতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম প্রমুখ। বক্তারা ভোলায় বর্বরোচিত হামলা ও নিহত হওয়ার প্রতিবাদ জানান এবং সরকারের কঠোর সমালোচনা করেন।


আরো সংবাদ

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিজোরদারে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান স্পিকার কম্বোডিয়া গেছেন আহছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সুরক্ষা ফোরামের যাত্রা শুরু হাবীবুল্লাহ বাহার কলেজে লিফট ছিঁড়ে আহত ১২ পরীক্ষার্থী আরামবাগ ফুটবল অ্যাকাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির সভা ও নির্বাচন পঞ্চম দিনে মেলায় ৩১১ কোটি টাকার রাজস্ব আয় রাস্তা নিয়ে বিরোধে আপন ভাইকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এসআই পদে চাকরির প্রলোভন অর্থ আত্মসাৎ ভুয়া স্বরাষ্ট্র সচিব আটক ট্রাফিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল করতেই জরিমানা বাড়ানো হয়েছে : ডিএনসিসি মেয়র হুইপ এমপি আমলাসহ আরো ১১৮ জনের হিসাব তলব আমিরাতের বড় বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর

সকল