১৯ অক্টোবর ২০১৯

বিএনপির সাথে ব্রিটিশ কনজারভেটিভ পার্র্টির প্রতিনিধিদলের বৈঠক

গুলশানে ব্রিটিশ সংসদীয় দলের সাথে বিএনপির বৈঠক : নয়া দিগন্ত -

বিএনপির সাথে বৈঠক করেছে সফররত ব্রিটিশ কনজারভেটিভ পার্র্টির একটি প্রতিনিধিদল।
গতকাল সন্ধ্যায় গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই বৈঠক হয়।
যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ ফ্রেন্ড অব বাংলাদেশের এই গ্রুপে নেতৃত্ব দেন পল স্কাউলি, যিনি কনজারভেটিভ পার্টির ডেপুটি চেয়ারম্যান। এ ছাড়া কনজারভেটিভ ফ্রেন্ড অব বাংলাদেশের চেয়ারপারসন অ্যান মেইনসহ কয়েকজন এমপি ও রাজনীতিবিদও ছিলেন প্রতিনিধিদলে।
অপর দিকে বিএনপির প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
ঘণ্টাব্যাপী এই বৈঠকে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা সমস্যা, মানবাধিকার পরিস্থিতি, একাদশ সংসদের বিতর্কিত নির্বাচন, অর্থনৈতিক অবস্থা প্রভৃতি বিষয় আলোচনা হয়।
বৈঠকে বিএনপির পক্ষ থেকে ব্রিটিশ প্রতিনিধিদলকে দলের কারাবন্দী চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং তার স্বাস্থ্যের অবনতিশীল অবস্থা জানানো হয়।
বৈঠকের পর স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, মূলত বাংলাদেশের প্রকৃত অবস্থাটা কী তারা (ব্রিটিশ প্রতিনিধি) আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন। আমরা বাস্তব অবস্থাটা তুলে ধরেছি। আলোচনায় অনেক ইস্যুর মধ্যে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি গুরুত্ব পেয়েছে। তারা অনুধাবন করতে পারছেন যে, বিষয়টি বাংলাদেশের রাজনীতিতে বড় ধরনের একটা ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেশনেত্রীর মুক্তির বিষয় যেমন রাজনীতির সাথে অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত, তেমনি বাংলাদেশের গণতন্ত্রের সাথেও ওতপ্রোতোভাবে জড়িত।
তিনি বলেন, দেশে যে নির্বাচন হয়ে গেল তা যে গ্রহণযোগ্য হয়নি দেশ-বিদেশে, এটার সমাধান কী হতে পারে এবং এটা থেকে কিভাবে আমরা বেরিয়ে আসতে পারি তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এ ছাড়া দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি, দেশের অর্থনীতি, দেশের বিচারব্যবস্থা, রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।
ব্রিটিশ প্রতিনিধিদলের সদস্যরা খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে কী বলেছেন জানতে চাইলে খসরু বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে যে অন্যায়ভাবে জেলে রাখা হয়েছে তা আমরা বিভিন্নভাবে তুলে ধরেছি, এ ব্যাপারে তো ইউনাইটেড নেশন থেকে শুরু করে বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তার স্বাস্থ্যগত দিক থেকে তার মুক্তির বিষয়টা, আইনগতভাবে কেন মুক্তি হচ্ছে না এটা এখন সবার কাছে প্রশ্ন।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি না হওয়ায় তারা (ব্রিটিশ প্রতিনিধিদল) উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তার মুক্তির সাথে গণতন্ত্র, মানবাধিকার, আইনের শাসন কোনো কিছুই আলাদা করে দেখার সুযোগ নেই।
ব্রিটিশ প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গা সমস্যা দ্রুত সমাধান চায় বলেও জানান তিনি।
বৈঠকে আরো ছিলেনÑ স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আবদুল মঈন খান, কেন্দ্রীয় নেতা জহিরউদ্দিন স্বপন, ফাহিমা নাসরিন মুন্নী, তাবিথ আউয়াল, জেবা খান, একাদশ সংসদের এমপি জি এম সিরাজ, মোশাররফ হোসেন, জাহিদুর রহমান জাহিদ ও রুমিন ফারহানা।


আরো সংবাদ

দেশী-বিদেশী পাইলটরা লেজার লাইট আতঙ্কে (৩৯৯৩৬)পাকিস্তান বনাম ভারত যুদ্ধপ্রস্তুতি : কে কতটা এগিয়ে (২৮৪৮৪)ভারতীয় বিমানকে ধাওয়া পাকিস্তানের, আফগানিস্তান গিয়ে রক্ষা (২১৮৯৮)দুই বাঘের ভয়ঙ্কর লড়াই ভাইরাল (ভিডিও) (২০৬১৪)শীর্ষ মাদক সম্রাটের ছেলেকে আটকে রাখতে পারলো না পুলিশ, ব্যাপক দাঙ্গা-হাঙ্গামা (১৪৭১৯)রৌমারী সীমান্তে বিএসএফ’র গুলি ও ককটেল নিক্ষেপ! (১৪৫৭২)বিশাল বিমানবাহী রণতরী নির্মাণ চীনের, উদ্বেগে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেকে (১৪৩৩৮)‘গরু ছেড়ে মহিলাদের দিকে নজর দিন’,: মোদির প্রতি কোহিমা সুন্দরীর পরামর্শে তোলপাড় (১৩৫৮২)বিএসএফ সদস্য নিহত হওয়ার বিষয়ে যা বললো বিজিবি (১১৮৬৩)লেন্দুপ দর্জির উত্থান এবং করুণ পরিণতি (৯৩৩৫)



portugal golden visa