১৯ জানুয়ারি ২০২০

মেরিন ড্রাইভ সড়কে আহত ১০ টেকনাফে পাহাড়ধসে তিন শিশুর মৃত্যু

-

কক্সবাজার টেকনাফের পুরান পলানপাড়ায় ধসে যাওয়া পাহাড়ের মাটিচাপায় তিন শিশু নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১০ জন। অপর দিকে পানিতে ডুবে গিয়ে মোহাম্মদ হারিছ (১০) নামে এক শিশু মারা গেছে।
গত মঙ্গলবার ভোরবেলা মুষলধারে বৃষ্টির সময় পাহাড় ধসের এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ উপজেলা কর্মকর্তা মো: রবিউল হাসান। তিনি বলেন, এ পর্যন্ত দুই শিশুর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। বাকিরা হাসপাতালে রয়েছেন। অপর শিশুর মৃত্যু হয়েছে কি না খোঁজ নেয়া হচ্ছে।
নিহতরা হলোÑ মুহাম্মদ আলমের মেয়ে আফিয়া (৫), রবিউল হাসানের ছেলে মেহেদী হাসান (১০) এবং আব্দুল গফুরের ছেলে মো: খায়রুল।
উপজেলা কর্মকর্তা জানান, সোমবার রাতে থেমে থেমে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল। মঙ্গলবার ভোররাতে বৃষ্টির তোড়ে তাদের বাড়ির ওপর অংশে থাকা পাহাড়টি ধসে পড়ে। এতে দুই বাড়ির দুই শিশু মাটিচাপায় ঘটনাস্থলে মারা যায়। বাকিদের মাটি চাপা থেকে বের করে হাসপাতালে নেয়া হয়। তিনি আরো বলেন, তার নেতৃত্বে সিপিপি ও টেকনাফ উপজেলার স্বেচ্ছাসেবকেরা উদ্ধার অভিযানে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসও অংশ নেয়। টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান, বেশ কয়েকজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে শিশুও রয়েছে।
এদিকে ভারী বর্ষণে বেশ কিছু বাড়িঘর, মৎস্য ঘের ও রাস্তাঘাটের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এ ছাড়া রোহিঙ্গা শিবিরগুলোতেও পাহাড় ধসের আশঙ্কা রয়েছে। যেসব রোহিঙ্গা ঢালু নিচু স্থানে বসবাস করছে তাদের ঝুপড়ি ঘরগুলোতে পানি উঠেছে। প্রবল বর্ষণে অনেক রোহিঙ্গা নির্ঘুম রাত কাটিয়েছে। টেকনাফ থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) এ বি এম এস দোহা জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ ছুটে যায়। তিনি দুইজনের মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন।
টেকনাফে পানিতে ডুবে এক শিশু নিহত : পানিতে ডুবে গিয়ে মোহাম্মদ হারিছ (১০) নামে আরো এক শিশু মারা গেছে। সে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নতুন পলানপাড়া এলাকার আবদুল গফুরের ছেলে। সে স্থানীয় মাদরাসায় হেফজ বিভাগের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র ছিল।
টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানিয়েছেন মঙ্গলবার দুপুরের দিকে কয়েক শিশু বাড়ির বাইরে খেলতে বের হয়। এ সময় অতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে বিলের পানির স্রোতে পড়ে ভেসে যায় মো: হারিছ। পরে প্রত্যক্ষদর্শীরা দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মেরিন ড্রাইভ সড়কে পাহাড় ধস : আহত ১০
কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের হিমছড়িতে ভয়াবহ পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে। মাটিচাপায় আহত হয়েছে ১৮ জন। মঙ্গলবার বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে। পাহাড়ের মাটি পড়ায় মেরিন ড্রাইভ সড়কে যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। অতি বৃষ্টির কারণে মেরিন ড্রাইভ লাতোয়া পাহাড়ে ভয়াবহ ধস হয়। এতে মাটিচাপা পড়ে যায় ১০ জন। খবর পেয়ে দ্রুত তাদের উদ্ধার করতে সক্ষম হন সেনাবাহিনীর ১৬ ইসিবির সদস্যরা। সবাইকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটাপন্ন বলে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। আহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিক পাওয়া যায়নি।
চাপাপড়াদের সবাই গাড়ির যাত্রী ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। কয়েকটি সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী ছিল তারাÑ এমন তথ্য পাওয়া গেছে। ঘটনাস্থলে দুমড়েমুচড়ে যাওয়া দু’টি সিএনজি অটোরিকশা দেখতে পেয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। এ দিকে পাহাড় ধসের বিপুল মাটি জমে মেরিন ড্রাইভ সড়কে যান চলাচল সম্পূর্ণভাবে বন্ধ রয়েছে। উভয় পাশে আটকা পড়েছে শত শত গাড়ি। মাটি সরাতে কাজ করছে ১৬ ইসিবি প্রকৌশল বিভাগের কর্মীরা।


আরো সংবাদ

ধর্ষণ প্রতিরোধে কমিশন গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের ঢাকার অপহৃত ব্যবসায়ীর লাশ মিলল রংপুরে ইশরাকের গণসংযোগে ফুল ছিটিয়ে সাধারণ ভোটারদের অভিনন্দন পরীক্ষার তা‌রিখ এগিয়ে আনলে শিক্ষার্থীদের আরো উপকার হতো : তাপস আমি কোনো কিছু ভয় করব না : ইশরাক সাংহাই সহযোগিতা সংস্থায় ইরানের স্থায়ী সদস্যপদের প্রতি রাশিয়ার সমর্থন দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় তৃতীয় ঢাকা মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা : যুক্তরাষ্ট্র থেকে কাতারে গেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইমপিচমেন্টের অভিযোগ 'নির্লজ্জ ও বেআইনি' : ট্রাম্পের আইনজীবী দল জরায়ুতে জীবাণুর সংক্রমণ (পিআইডি) প্রতিরোধে করণীয় মাত্র ৫ টাকায় বাসে চড়ার সুযোগ পাচ্ছে চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরা

সকল