০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

ঋণের সুদ ৯ ভাগ নামিয়ে আনতে ব্যর্থ ব্যাংক এডিপির আমানত পাবে না

-

ঋণের সুদ ৯ শতাংশ নামিয়ে না আনলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান এখন থেকে সরকারের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) অর্থ পাবে না। সরকারের নিয়ম অনুযায়ী এডিপির অর্থ আমানত হিসেবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ৬ শতাংশ সুদে গচ্ছিত থাকে। এখন নতুন নিয়মে যেসব ব্যাংক গত ২/০৮/২০১৮ তারিখে প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ঋণের সুদের হার ৯ শতাংশে নামিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে তারা এ সুবিধা পাবে না বলে গতকাল আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে জারিকৃত এক প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য এডিপির আওতায় সরকার থেকে প্রাপ্ত তহবিল এবং সরকারি, আধা-সরকারি প্রতিষ্ঠান, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়িত্তশাসিত সংস্থার মোট নিজস্ব তহবিলের অর্থ বাংলাদেশ ব্যাংকিং ব্যবসায় নিয়োজিত সব ব্যাংকে অথবা এ বিভাগ কর্তৃক বর্ণিত অ-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানে (এনবিএফআই) অথবা উভয় ধরনের প্রতিষ্ঠানে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে স্পেশাল নোটিশ ডেপোজিট (এসএনডি), সঞ্চয়ী হিসাব স্থায়ী আমানত (এফডিআর) এ সর্ব্বোচ্চ ৬ শতাংশ হারে আমানত রাখা যাবে। তবে যেসব ব্যাংক গত ০২.০৮.২০১৮ তারিখে প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ঋণের সুদের হার ৯ শতাংশে নামিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে তারা এ সুবিধা প্রাপ্য হবে না বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।
উল্লেখ্য গত বছরের ২ মে সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে ব্যাংক মালিকরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তারা ঋণের সুদের হার ৯ শতাংশে নামিয়ে আনবেন। কিন্তু সরকারি ব্যাংক ছাড়া অধিকাংশ ব্যাংক এ প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি।
এর আগে গত বছরের ১ আগস্ট আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছিল, বাংলাদেশে ব্যাংকিং ব্যবসায় নিয়োজিত বেসরকারি ব্যাংকগুলোয় অথবা ১৪টি অ-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান (এনবিএফ) অথবা উভয় ক্ষেত্রে স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য এডিপির আওতায় সরকার থেকে প্রাপ্ত তহবিলের সর্বোচ্চ ৫০ পর্যন্ত আমানত হিসেবে জমা রাখা যাবে।


আরো সংবাদ




Paykwik Paykasa
Paykwik