২৪ জুন ২০১৯

ঢাকা চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

-

ঢাকা, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন ছিনতাইকারী ও এক মাদক কারবারিসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।
শ্রীমঙ্গল থেকে ছিনতাই হওয়া চা বোঝাই একটি কভার্ডভ্যান নিয়ে ঢাকায় প্রবেশের সময় র্যাবের সাথে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্দেহভাজন ছিনতাইকারী চক্রের দুই সদস্য নিহত হয়েছে। গত রোববার রাত পৌনে ৩টার দিকে হাজারীবাগ মধুসিটির সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে র্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহতরা হচ্ছেন, মনির (৪৫) ও গিয়াস (৩৩)।
র্যাব কর্মকর্তার দাবি, নিহত দুজনেই পেশাদার গাড়িচালক। ওই পেশার আড়ালে তারা ছিনতাইকারীচক্রের সাথে কাজ করে আসছিলেন।
মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, শ্রীমঙ্গল থেকে চার-পাঁচ দিন আগে ইস্পাহানী কোম্পানির একটি চা ভর্তি কভার্ডভ্যান গায়েব হয়ে যায়। এ ছাড়া রক্সিপেইন্টসের একটি রঙ ভর্তি গাড়িও ছিনতাই হয়। এ নিয়ে র্যাবের পক্ষ থেকে তদন্ত করা হচ্ছিল। এরই মধ্যে খবর আসে, ছিনতাইকারীরা চায়ের কভার্ডভ্যানটি নিয়ে ঢাকা আসছে লালবাগে বিক্রির জন্য। মধুসিটির সামনে এলে র্যাব সদস্যরা কভার্ডভ্যানটি থামানোর চেষ্টা করে। তখন ভ্যানটি একটি পিলারের সাথে ধাক্কা খায়। এরপর ভ্যানে থাকা ছিনতাইকারীরা র্যাব সদস্যদের দিকে গুলি ছুড়তে থাকে। র্যাব আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে দু’জন গুলিবিদ্ধ হয় এবং আরো কয়েকজন পালিয়ে যায়। পরে গুলিবিদ্ধ দুইজনকে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন করেন। তিনি বলেন, নয় টন চাসহ ছিনতাই হওয়া ওই কাভার্ডভ্যানের পাশাপাশি একটি বিদেশী পিস্তল ও চার রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে ঘটনাস্থল থেকে।
কুমিল্লা সংবাদদাতা জানান, কুমিল্লায় বিজিবির সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো: সেলিম নামে এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছে। রোববার গভীর রাতে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার গোলাবাড়ি-শাহাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় দুই হাজার ২০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়। নিহত সেলিম একই উপজেলার গোলাবাড়ি গ্রামের মৃত আলী আহাম্মদের ছেলে।
কুমিল্লা কোটবাড়ির ১০ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আবু মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, মাদকের একটি বড় চালান যাচ্ছে, গোপনসূত্রে এমন খবর পেয়ে বিজিবির একটি দল রাত ১টার দিকে আদর্শ সদর উপজেলার ভারত সীমান্তের শাহাপুর দরগাহ মাদরাসার সন্নিকটে একটি নির্জন স্থানে অবস্থান নেয়। এ সময় মাদক কারবারিরা বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এতে বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালালে সেলিম (৪৫) নামে ওই মাদক কারবরি গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়, অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আহত মাদক কারবারি সেলিমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিহতের ময়নাতদন্ত শেষে লাশ তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রাম মহানগরীর পলোগ্রাউন্ড মাঠ সংলগ্ন এলাকায় পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মনসুর (৪২) নামে এক ছিনতাইকারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। গত রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সংঘটিত এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশী বন্দুক (এলজি) উদ্ধার করেছে।
পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, সঙ্ঘবদ্ধ ছিনতাকারী চক্রের সদস্যরা নগরীর পলোগ্রাউন্ড মাঠের পাশে অবস্থান করার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় ছিনতাকারী চক্রের সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। ঘটনার আকস্মিকতায় ছিনতাইকারীদের একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় এবং অন্যরা পালিয়ে যায়। এরপর আহত মনসুরকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
এ দিকে বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনায় এসআই তারেক ও এএসআই অনুপ আহত হয়েছেন।
পুলিশ জানায়, নিহত মনসুর সিএনজিচালিত অটোরিকশা ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। তার বিরুদ্ধে ছিনতাই, অস্ত্রসহ নগরীর বিভিন্ন থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে।


আরো সংবাদ