১৮ আগস্ট ২০১৯

খুনের মচ্ছব দেশজুড়ে

-

দেশজুড়ে খুনের মচ্ছব চলছে। বিভিন্ন স্থান থেকে উদ্ধার হচ্ছে লাশ। পারিবারিক, সামাজিক, রাজনৈতিক, আধিপত্য বিস্তারসহ নানা কারণে এসব খুনের ঘটনা ঘটছে। ট্রিপল খুন, ডাবল খুনের ঘটনাও ঘটছে। পুরো পরিবার নিহত হয়েছে; এমন ঘটনাও ঘটেছে। একের পর এক এসব নৃশংস খুনের ঘটনায় সাধারণ মানুষ এখন আতঙ্কের মধ্যে। তুচ্ছ ঘটনাতেও খুনের ঘটনা ঘটছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মানুষ অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে যে কারণে এরূপ ঘটনা মহামারী আকার ধারণ করছে।
একটি প্রতিবন্ধী শিশুর কান্নায় ‘বিরক্ত’ হয়ে ওই শিশু এবং তার মাকে খুন করা হয়েছে। নাটোরের নলডাঙ্গায় গত বুধবার এই ঘটনা ঘটে। প্রতিবন্ধী শিশু ভাতিজা আব্দুল্লাহর কান্নায় ‘বিরক্ত’ হয়ে তার মা শারমিন বেগম এবং ওই শিশুটিকে হত্যা করেছে শারমিনের দেবর। দেবরের নাম মাহাবুল আলম মুক্তা (২৩)। পুলিশ মুক্তাকে গ্রেফতার করেছে। ঝিনাইদহের মহেশপুরে আলমগীর হোসেন (৩৫) নামে এক দিনমজুরকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিবেশীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে তুচ্ছ ঘটনায় মহেশপুর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
বুধবার রাতে নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত ও একই পরিবারের আরো চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। নিহতের পরিবার জানায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার রাত দেড়টার দিকে মাসকা ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামের রুহুল আলম বাঙালির ছেলে জুবায়ের আলম হাসানের (২২) ওপর বাড়ির পাশেই হামলা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন। এ সময় হাসানের বাবা রুহুল আলম এগিয়ে এলে তাকেও কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করা হয়। একে একে হাসানের মাসহ পরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে আহত করে প্রতিপক্ষ।
ঘটনার পর স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ৩টার দিকে চিকিৎসক হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন। কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমারত হোসেন গাজী জানা, একই গ্রামের আবুল কালাম আজাদ এবং হাসানের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে রাত দেড়টার দিকে হামলা চালায় আজাদ ও তার লোকজন।
এ দিকে ধর্ষণ ও গণধর্ষণের পর হত্যার মতো বর্বর ঘটনাও ঘটছে। খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়ার বড়পাড়া এলাকার ধনিতা ত্রিপুরাকে (১৭) গণধর্ষণের পর বালিশচাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে তিন বন্ধু। খাগড়াছড়ি সদর থানার ওসি মো: সাহাদাত হোসেন টিটো জানান, গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কমল ত্রিপুরা, রনেল ত্রিপুরা ও কিরণ ত্রিপুরাকে গ্রেফতার করা হয়। তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। ধনিতা তাদের প্রতিবেশী। গত সোমবার রাতে এই ঘটনা ঘটে।
কোথাও কোথাও স্বামীর পরকীয়ায় প্রাণ হারাচ্ছেন স্ত্রী। আবার কোথাও স্ত্রীর পরকীয়ায় খুনের শিকার হচ্ছেন স্বামী। যশোরের বেনাপোলে স্বামী জামাল হোসেনকে (৩৬) দেশে ফেরার ১০ ঘণ্টার মধ্যেই প্রেমিকদের সহযোগিতায় কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার রাতে বেনাপোল পোর্ট থানার ধান্যখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জামাল হোসেন ওই গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে। এ ঘটনায় নিহত হন জামালের স্ত্রী আয়েশা খাতুন, আয়েশার বাবা রিয়াজুল ইসলাম টুকু ও মা ফুলবুড়ি গ্রেফতার হন।
গত মঙ্গলবার পাবনার সুজানগরে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দেয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে সজি খাতুন (২৫) নামের এক গৃহবধূ নিহত হন।
এভাবেই একের পর এক খুনের ঘটনায় উদ্বিগ্ন মানুষ। মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোস্তাফা সোহেল এ প্রসঙ্গে নয়া দিগন্তকে বলেছেন, দেশে রাজনৈতিক সঙ্কট থাকলে তখন এ ধরনের ঘটনা বাড়বে। মানুষ এখন অনেক অসহিষ্ণু। দুর্নীতি, অপকর্ম, অপকৌশল, প্রতারণা, আইনের শাসনের অভাবের কারণে এরূপ ঘটনা ঘটছে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয় না বলে অপরাধীরা বেপরোয়া। বিচারে এবং অন্যায় করলেও পার পাওয়া যায় মানুষের মধ্যে এ ধারণা সৃষ্টি হলে অপরাধ বাড়বেই।


আরো সংবাদ

রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের সাথে গুলি বিনিময়ে এক সেনাসদস্য নিহত স্মিথের বদলি লাবুশানে; টেস্ট ক্রিকেটে ইতিহাস ভারতের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার এখন ফ্যাসিস্ট মোদির হাতে : ইমরান খানের হুঁশিয়ারি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সর্বোচ্চ প্রস্তুতি স্বাধীনতা বিরোধীরা এখনো ঘড়যন্ত্র করছে : আইনমন্ত্রী দুর্ঘটনা কেড়ে নিলো একটি পরিবার, ঈদ আনন্দে বিষাদের ছায়া ছাত্রদলের সভাপতি ও সম্পাদক হতে ইচ্ছুক ১০৮ তরুণ নেতা মানিকগঞ্জে বেড়েই চলছে ডেঙ্গু রোগী সিরাজগঞ্জে ডেঙ্গু রোগে আক্রন্ত কলেজ ছাত্রের মৃত্যু উপকূল সুরক্ষায় ৬৪২ কিলোমিটার সুপার ডাইক নিমার্ণের উদ্যোগ ছাগলের ক্ষেত খাওয়াকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধা খুন

সকল




bedava internet