২২ মে ২০১৯

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে আসছে নতুন প্লাটফর্ম

-

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্র সুসংহতকরণ এবং একটি মধ্যবর্তী সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে এবার নতুন প্লাটফর্ম আসছে। যার সম্ভাব্য নাম হবে ‘গণতন্ত্রের মাতা’ ‘খালেদা জিয়া মুক্তি মঞ্চ’। খ্যাতিমান মুক্তিযোদ্ধা এবং দেশের বিশিষ্ট নাগরিক ও রাজনীতিবিদ এবং পেশাজীবীদের সমন্বয়ে হবে এই প্লাটফর্ম। নতুন এই প্লাটফর্মের প্রধান দাবি থাকবে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি। আগামী সপ্তাহে বা অল্প কিছু দিনের মধ্যেই এই প্লাটফর্মের ঘোষণা আসবে। তার আগে একাধিক প্রস্তুতিমূলক বৈঠক করবেন সংশ্লিষ্টরা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রায় পনেরো মাস ধরে কারাগারে বন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। স্বাভাবিক আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তির কোনো লক্ষণ দেখছে না বিএনপি। তার মুক্তির দাবিতে কালো পতাকা মিছিল, বিক্ষোভ, সমাবেশ, গণজমায়েত, গণ-অনশন, মানববন্ধন, জেলা প্রশাসকদের কাছে স্মারকলিপি দেয়াসহ অসংখ্য কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে এখনো কর্মসূচি অব্যাহত আছে। কিন্তু মুক্তির কোনো কিনারা পাচ্ছে না দলটি। এখন খালেদা জিয়ার মুক্তির লক্ষ্যে একটি সার্বজনীন অভিন্ন প্লাটফর্ম দাঁড় করানো হচ্ছে। যেখানে বিভিন্ন পেশার লোকজনকে সম্পৃক্ত হবেন।
বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে গত সোমবার বিবৃতি দিয়েছেন দেশের রণাঙ্গনের ১৩৭ জন খ্যাতিমান মুক্তিযোদ্ধা। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন ব্যানারে ও সংগঠনের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে পর্যায়ক্রমে কর্মসূচি পালন করা হবে। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি ছাড়াও অন্যায়ভাবে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের বাদ দেয়া, দেশে নারী নির্যাতন, উন্নয়নের আড়ালে দুর্নীতির জন্য সরকারকে জবাবদিহি করতে চাপ দেয়া হবে।
জানা গেছে, ‘খালেদা জিয়া মুক্তি মঞ্চের’ ব্যানারে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই নতুন প্লাটফর্মের ঘোষণা করা হবে। শুরুতে কয়েকটি রাজনৈতিক সংগঠন ও খ্যাতিমান মুক্তিযোদ্ধা, পেশাজীবী সংগঠনের শীর্ষ ব্যক্তিরা এই মঞ্চে যোগ দেবেন। এরই মধ্যে তারা একটি মতৈক্যে পৌঁছতে পেরেছেন। আরো আলোচনা করে বিস্তারিত কাঠামো তৈরির পর নতুন প্লাটফর্মের ঘোষণা দেয়া হবে। ঘোষিতব্য এই প্লাটফর্ম সব ধরনের ব্যক্তির জন্য উন্মুক্ত থাকবে। যার ইচ্ছা হবে তিনি খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে একাত্মতা ঘোষণা দিয়ে এখানে যোগ দিতে পারবেন।
‘খালেদা জিয়া মুক্তি মঞ্চ’ গঠন প্রক্রিয়ায় জড়িত সংশ্লিষ্ট একজন নেতা জানান, খালেদা জিয়া মুক্তি মঞ্চের প্রথম দাবি থাকবে বেগম জিয়ার মুক্তি। প্রথমে দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করা হবে। এরপর সব ধরনের মানুষের কাছ থেকে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করা হবে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া একজন বয়স্ক মহিলা। তিনি গুরুতর অসুস্থ। আজকে জামিনযোগ্য মামলায় তাকে দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে বন্দী রাখা হয়েছে। তার প্রতি নিষ্ঠুর আচরণ করা হচ্ছে। অথচ তার স্বামী শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান, যিনি মহান স্বাধীনতার ঘোষক ও সাবেক সেনাপ্রধান এবং একজন সেক্টর কমান্ডার। সুতরাং একজন অসুস্থ ও বয়স্ক সাবেক নারী প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক। কিন্তু তাকে মুক্তি দেয়া হচ্ছে না। এখন তার মুক্তি দাবি আরো কিভাবে ত্বরান্বিত করা যায় সে জন্য আমরা একটি বডি চাই। দলমত নির্বিশেষে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য একটি অভিন্ন প্লাটফর্ম করা যায় কি না তা নিয়ে চিন্তাভাবনা হচ্ছে। সেটি হলে সময়মতো জেনে যাবেন।


আরো সংবাদ

কাশ্মীরে নিরাপত্তা হেফাজতে নির্যাতনের লোমহর্ষক বিবরণ সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে : প্রধানমন্ত্রী পেশাজীবীদের সম্মানে প্রধানমন্ত্রীর ইফতার ৬ মাস পর কারামুক্ত বিএনপি নেতা শেখ রবিউল আলম নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে তিন মন্ত্রণালয়কে সমন্বিতভাবে কাজ করার পরামর্শ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন ২ জুলাই ৩ টাকার বালিশ তুলতে খরচ ৫ টাকা? রুমিন ফারহানার প্রার্থিতা বৈধ কৃষকেরা অধিকার থেকে বঞ্চিত : মাওলানা আতাউল্লাহ শাহজালাল বিমানবন্দরে সোয়া ৩ কোটি টাকার স্বর্ণসহ একজন গ্রেফতার পশ্চিম রাজাবাজারের জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবি আওয়ামী লীগ-বিএনপির তরুণ নেতাদের

সকল




agario agario - agario