১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন ময়মনসিংহ মেডিক্যালের ছাত্র লোটে শেরিং

-

এবার ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের ২৮তম ব্যাচের ছাত্র ডা: লোটে শেরিং। তিনি ১৯৯১ সালে বাংলাদেশে এসে বিদেশী কোটায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি হন। ১৯৯৯ সালে এমবিবিএস পাস করে ঢাকায় সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়ে এফসিপিএস কোর্স সম্পন্ন করেন। ডা: লোটে শেরিং ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পর ময়মনসিংহ মেডিক্যালের সহপাঠীরা গর্ববোধ করছেন।
ডা: লোটে শেরিং সহপাঠী ডা: আসাদুজ্জামান রতন সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে জানান, লোটে শেরিং ১৯৯১ সালে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএসে ভর্তির পর বাঘমারা মেডিক্যাল হোস্টেলে পাশাপাশি ভবনে থাকতেন। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি খুবই বন্ধুবৎসল ছিলেন। লোটে শেরিং প্রফেসর ডা: খাদেমুল ইসলাম ও তার অধীনে জেনারেল সার্জারি বিষয়ে ছয় মাস ইন্টার্নশিপ করেছেন। এরপর ঢাকায় সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়ে এফসিপিএস কোর্স সমাপ্ত করেন।
আরেক সহপাঠী ডা: শফিকুল বারী তুহিন জানান, সেশন জটের কারণে তারা ১৯৯৮ সালে পাস করেন। তিনি ২০০৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশে ছিলেন। ওই সময় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজে ১২-১৩ জন বিদেশী শিক্ষার্থী ছিল।
২০১৩ সালে সিভিল সার্ভিস থেকে অব্যাহতি নিয়ে তিনি রাজনীতিতে যোগ দেন। গত ১৫ সেপ্টেম্বর ভুটানে অনুষ্ঠিত প্রথম দফা নির্বাচনে তার রাজনৈতিক ডিএনটি দল জয়লাভ করে চমক সৃষ্টি করে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে প্রথম দফা নির্বাচনে হেরে যান। অবশ্য তিনি পরাজয় মেনে নিয়েছেন। ডা: লোটে শেরিং প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চূড়ান্ত ফলাফল জানা যাবে আজ।
ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আনোয়ার হোসেন বলেন, ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের ২৮তম ব্যাচের ছাত্র ডা: লোটে শেরিং ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন জেনে খুব খুশি হন। তিনি বলেন, ‘এটা আমাদের সবার গর্ব, বাংলাদেশের গর্ব।’ তার উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন তিনি।


আরো সংবাদ