১৯ এপ্রিল ২০১৯

সংবিধানের বাইরে যাবো না : কাদের

-

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পৃথিবীর অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশে যেভাবে নির্বাচন হয়, বাংলাদেশেও একইভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা সংবিধানের বাইরে যাবো না। বিএনপি যত চেষ্টাই করুক, সরকারকে সংবিধানবহির্ভূত কোনো দাবি মানাতে পারবে না।
গতকাল বুধবার ঢাকা দণি সিটির নগরভবনে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপরে (ডিটিসিএ) ১১তম বোর্ড সভা শেষে এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। বিএনপি নেতাদের সরকারের পদত্যাগের দাবির কড়া সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে, এটা কি মামা বাড়ির আবদার! প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করে কার কাছে দায়িত্ব দেবেন, তাহলে কাকে বসাবো, দেশের দায়িত্বে কি ফখরুল সাহেব বসবে?
সংবিধানবহির্ভূত কোনো চাপের কাছে নতি স্বীকার না করার দৃঢ়প্রত্যয় ব্যক্ত করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি তো দেশের বিরুদ্ধে বিদেশীদের কাছে অভিযোগ দিয়েই যাচ্ছে, নালিশ করছে। জাতিসঙ্ঘ কাউকে ডাকলে যাবে। কোনো সমস্যা থাকলে জাতিসঙ্ঘ জানতে পারে। কিন্তু আমাদের সিদ্ধান্ত আমরাই নেব। সংবিধানবহির্ভূত কোনো চাপে আমরা নতি স্বীকার করব না। নির্বাচনকালীন সময়ে সংসদের কার্যপদ্ধতি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, সংসদের এই অধিবেশনের পরে আরেকটি অধিবেশন হবে, সম্ভবত অক্টোবরের মাঝামাঝি শেষ হবে। এরপর আর সংসদ বসবে না। পরবর্তী অধিবেশনই শেষ অধিবেশন। এরপর মন্ত্রীরা রুটিন ওয়ার্ক করবেন, এমপিদের কোনো পাওয়ার থাকবে না। সংসদ আন্ষ্ঠুানিকভাবে ভাঙাও হবে না, সংসদের কোনো কার্যক্রমও থাকবে না। নির্বাচনকালীন সময়ে সংসদ বসবেও না।
খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সরকারের কিছু করার নেই উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, আদালত ইতঃপূর্বে অন্তত ৩০টি মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন দিয়েছে। আদালতে সরকার হস্তপে করলে তিনি এতবার জামিন পেলেন কেমন করে? তিনি বলেন, আন্দোলন করেন, জনগণকে নিয়ে করেন। আন্দোলন অহিংস করলে শান্তি। আর যদি সহিংস হয় তাহলে জনগণকে নিয়ে প্রতিহত করব।
সভায় নির্বাচনের আগে জনগণের দুর্ভোগ কমাতে আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের খোঁড়াখুঁড়ি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে অন্যান্য প্রকল্পের অন্য কাজ চলবে। মন্ত্রী বলেন, ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে গাজীপুর পর্যন্ত সাড়ে ২০ কিলোমিটার বিআরটি চালু হলে উভয় দিক থেকে ঘণ্টায় ২৫ হাজার যাত্রী পরিবহন সম্ভব হবে। রাজউক থেকে ঢাকার পূর্বাচল উপশহর প্রকল্পে বাস ডিপো করতে ডিটিসিএ-এর নামে সাত একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী। এ ছাড়া রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মোটরসাইকেলে চড়া শিশুদেরও হেলমেট পরা নিশ্চিত করতে সভায় নির্দেশনা দেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, এখন পরিস্থিতি আগের চেয়ে ভালো।
সভা সঞ্চালনা করেন ডিটিসিএ-এর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রকিবুর রহমান। এতে সাভার, মানিকগঞ্জ ও নরসিংদী পৌরসভার মেয়র, পুলিশ, সরকারের বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি এবং পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।

 


আরো সংবাদ

iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Bursa evden eve nakliyat
arsa fiyatları tesettür giyim
Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al