১৪ নভেম্বর ২০১৮

হেরেও জঙ্গী বিমান পাহারায় দেশে ফিরলেন তারা

হেরে যাওয়ার পর জঙ্গী বিমান পাহারায় দেশে ফিরলেন তারা। ছবি - সংগৃহীত

সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনালে ফান্সের কাছে কাপ হাতছাড়া করে ক্রোয়েশিয়া। ফাইনালে ফ্রান্সের কাছে শোচনীয়ভাবে হেরে যায় ক্রোয়েটরা। এবারের বিশ্বকাপে শুরু থেকেই অসাধারণ খেলে আসা ক্রোয়েশিয়া ফাইনালে এসে ফ্রান্সের কাছে ধরাশয়ী হয়ে ফুটবল বিশ্বকাপ নিজেদের ঘরে তোলতে পারেনি।

আজকে ক্রোয়েটরা নিজ দেশে ফিরে আসে। এসময় দেখা যায় তাদেরকে বহনকারী বিমানটির দুই পাশে দুটি মিগ ২১ জঙ্গি বিমান পাহারা দিয়ে নিয়ে আসছে। ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড়দের বহসকারী বিমানটি রাজধানী শহর জাগারেবে অবতরণ করবে। সেখানে লাখো ভক্ত তাদের জন্য অপেক্ষায় আছে। লুকা মডরিচদের এত কাছে এসে কাপ নিজেদের ঘরে তোলতে না পারার আক্ষেপ কখন শেষ হবে তা সময়ই বলে দেবে।

গত রাতে শেষ হওয়া রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সের কাছে ৪-২ গোলে হেরে শিরোপার স্বাদ থেকে বঞ্চিত হয় ক্রোয়েশিয়া। পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত পারফরমেন্সেও করে শিরোপা জিততে না পারার আক্ষেপ রয়েছে বিশ্বকাপের গোল্ডেন বল জয় করা ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক লুকা মডরিচের। তিনি বলেন, ‘এটি সত্যিই হতাশার। শিরোপার এত কাছে এসে তা জিততে না পারাটা সত্যিই দুঃখজনক। আসলে সেরা দল সব সময়ে বড় সাফল্য পায় না।’

প্রথমবারের মত ফাইনালে উঠেও ফ্রান্সের কাছে হেরে বিশ্বকাপ শিরোপা বঞ্চিত হয়েছে ক্রোয়েশিয়া। তবে পারফরমেন্স দিয়ে পুরো ফুটবল বিশ্বের হৃদয় জয় করেছে ক্রোয়েশিয়া। বাহবা কুড়িয়েছে ফুটবলপ্রেমিদের। তথাপি বিশ্বকাপের সবচেয়ে সেরা সাফল্য অর্জন করতে পারেনি ক্রোয়েশিয়া। এতে হতাশায় মুষড়ে পড়েছেন শিরোপা জয়ের স্বপ্নে বিভোর ক্রোয়েশিয়া দলের অধিনায়ক মডরিচ। তিনি বলেন, ‘আমরা শিরোপা জয় ছাড়া অন্য কিছুই ভাবতে পারিনি। ক্রোয়েশিয়ার হয়ে শিরোপা জিততে চেয়েছিলাম। আমাদের স্বপ্ন পূরণ হলো না। আসলে ফাইনাল হারের স্মৃতি কোনভাবেই ভুলতে পারছি না।’

গোল্ডেন বল জিতলেও ফাইনাল ম্যাচের হার কষ্ট দিচ্ছে মডরিচকে। তারপরও গোল্ডেন বল জিতে গর্বিত তিনি, ‘গোল্ডেন বল জিতে আমি সত্যিই গর্বিত। বিশ্বকাপ শুরুর আগে গোল্ডেন বল নিয়ে চিন্তাও করিনি। এমনকি শিরোপা নিয়েও ভাবিনি। তবে দলের খেলোয়াড়রা যেভাবে খেলেছে, তাতে শিরোপার অন্যতম দাবীদার ছিলাম আমরাই। কিন্তু ভাগ্য আমাদের পক্ষে কথা বলেনি।’

কোচ ডেলিচের মত রেফারির সমালোচনা করেছেন মডরিচও। তিনি বলেন, ‘টিভি রিপ্লে দেখে, যেভাবে পেনাল্টি দেয়া হয়েছে তাতে আমরা সবাই অবাক হয়েছি। ঐ পেনাল্টিটি না দিলেও হতো। আসলে ঐ পেনাল্টিই ম্যাচের মোড় ঘুড়িয়ে দিয়েছে।’

তারপরও পুরো আসরে দল যেভাবে খেলেছে তাতে গর্বিত মডরিচ, এমনটা জানাতে ভুলে যাননি ক্রোয়েশিয়ার দলপতি, ‘আমরা ভালো খেলেছি। সেরা পারফরমেন্স করে ফাইনাল খেলেছি। তবে ফাইনালে ভাগ্য আমাদের সাথে ছিল না। কারণ আমরা দুটি গোল উপহার দিয়েছি ফ্রান্সকে। এতেই বোঝা যায় ভাগ্য আমাদের সাথে ছিলো না। তারপরও আমরা যা করেছি, যেভাবে খেলেছি তাতে আমাদের গর্ব করা উচিত।’

সূত্র : বাসস।


আরো সংবাদ