২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দ্যুতি ছড়িয়ে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় এমবাপ্পে

দ্যুতি ছড়িয়ে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় এমবাপ্পে - সংগৃহীত

ফ্রান্স চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মাধ্যমে শেষ হলো ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। রবিবার রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে ক্রোয়েয়িশাকে ৪-২ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা ঘরে তুলেছে ফরাসি। ফ্রান্সের শিরোপা জয়ে ১৯ বছর বয়সী ফুটবলার কিলিয়ান এমবাপ্পের বড় অবদান রয়েছে। তিনি পেয়েছেন বেস্ট ইয়ং প্লেয়ারের পুরস্কার।

নেইমারের ক্লাবের জুনিয়র সতীর্থ কিলিয়ান এমবাপ্পে বিশ্বকাপে চিনিয়ে দিয়েছেন নিজের নাম। বিশ্বকাপে চার গোল করার পাশাপাশি দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখানোয় সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের খেতাব পেয়েছেন তিনি।   

চলতি বিশ্বকাপে সেরা আবিষ্কার এমবাপ্পে। তার অবিশ্বাস্য গতি আর স্কিল মুগ্ধ করেছে সবাইকে। শেষ ষোলোয় আর্জেন্টিনাকে ৪-৩ গোলে বিধ্বস্ত করে ফ্রান্স। সেই ম্যাচে তার জোড়া গোলের সঙ্গে ক্ষীপ্রগতির দৌড় অনেকদিন মনে রাখবেন ফুটবলরসিকরা। ৪-৩ গোলে মেসিদের বিদায় করে দলকে কোয়ার্টার ফাইনালে নিয়ে যেতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখেন তিনি। 

‍৪ গোল করা ১৯ বছরের বিস্ময় ফিরিয়ে এনেছেন পেলের স্মৃতি। ১৯৫৮ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে প্রথম টিনেজ খেলোয়াড় হিসাবে গোল করেছিলেন ব্রাজিল কিংবদন্তি পেলে। রবিবার দ্বিতীয় টিনেজার হিসাবে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে গোল করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে।

এমবাপের খেলার ক্ষিপ্রতা গোলপোস্টের সামনে যে কোনো দলের জন্যই ছিল একটা আতঙ্কের কারণ। তার সেই নজরকাড়া খেলায় সম্ভবত ফুটবল বিশ্বে এমন কোনো সমর্থক নেই যার কাছে এই নামটি পৌঁছে যায়নি।  সময়ের সেরা ফুটবলারদের জীবনের একটা বড় শূন্যতা থাকে বিশ্বকাপ জিততে না পারার আঁফসোস। যা হয়েছে মেসি বা রোনালদোর ক্ষেত্রে। সেখানে ক্যারিয়ারের যাত্রাটাই বিশ্বকাপ দিয়ে করলেন। শুধু তাই নয়, দ্যুতি ছড়িয়ে টুর্নামেন্টের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের খেতাবটাও জিতে নিলেন। 

 


আরো সংবাদ