২২ নভেম্বর ২০১৮

মাঠে এমবাপের 'নাটক', কার প্ররোচণায়?

বিশ্বকাপ,
প্রতিপক্ষের ট্যাকেলে এমবাপের অতি অভিনয় নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে - সংগৃহীত

বেলজিয়ামের বিপক্ষে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ফ্রান্সের হয়ে অংশগ্রহণের সময় ‘নাটকীয়’ আচরণের জন্য কিলিয়ান এমবাপের সমালোচনা করেছেন তার ক্লাব সতীর্থ বেলজিয়ান ডিফেন্ডার টমাস মুয়েনিয়ার। বলেছেন, তার সামনে রয়েছে জিনেদিন জিদান ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার অপার সম্ভাবনা।

রেড ডেভিসের এই ডিফেন্ডার নিষেধাজ্ঞার কারণে খেলতে পারেনি মঙ্গলবারের সেমিফাইনাল। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে স্যামুয়েল উমতিতির গোল বেলজিয়ামকে ছিটকে দেয় প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে অংশগ্রহণের সুযোগ থেকে। ওই হারের কারণে রবার্তো মার্টিনেজের বেলজিয়াম এখন আসরের তৃতীয় স্থানের লড়াইয়ে আজ ইংল্যান্ডের মোকাবেলা করবে। গ্রুপ পর্বে যে দলকে তারা ১-০ গোলে হারিয়েছিল। ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে তার প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি) সতীর্থ এমবাপেকে নিয়ে মুয়েনিয়ার হতাশা চেপে রাখতে পারেননি।

সেমিফাইনালে ১৯ বছর বয়সী এমবাপ্পের আচরণের প্রসঙ্গে টেনে মুয়েনিয়ার বলেন, তিনি যদি ফুটবলের সর্বকালের সেরা হতে চান তাহলে অবশ্যই এ ধরনের আচরণ সম্পূর্ণভাবে ছাড়তে হবে। সংবাদ সম্মেলনে মুয়েনিয়ার বলেন, ‘সেমিতে তাকে (এমবাপে) যেভাবে আমাদের বিপক্ষে সময় নষ্ট করার চেষ্টা করতে দেখেছি, তা প্যারিসে কমই দেখেছি। আমি নিশ্চিত, কারো প্ররোচণায় তিনি এমন কাজ করেছেন। কিলিয়ান হচ্ছেন সুপার মেধাবী এবং ভবিষ্যতের সুপারস্টার। আশা করছি আগামীতে তিনি এ ধরনের খারাপ ইন্ধনে প্রভাবিত হবেন না।’

 

আরো পড়ুন : রিয়াল সমর্থকদের পছন্দ এমবাপ্পে

বিশ্বকাপ শেষ হতে আর মাত্র এক দিন বাকি। এরপরই শুরু হয়ে ক্লাব ফুটবল নিয়ে আলোচনা। কিছু কিছু নামকরা ক্লাব বিশ্বকাপ চলাকালীনই এসেছে আলোচনায়। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে নাম লিখিয়েছেন ইতালির ক্লাব জুভেন্টাসে। তার জায়গায় শোনা যাচ্ছে ব্রাজিলের নেইমার ও ফ্রান্সের এমবাপ্পের নাম। তবে রিয়াল মাদ্রিদ দর্শকদের প্রথম পছন্দ এমবাপ্পে। রোনালদোর জায়গায় কাকে দেখতে চান, এই প্রশ্নে রিয়াল সমর্থকদের জন্য ভোটের আয়োজন করেছিল স্পেনের জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক মার্কা। যেটি রিয়াল মাদ্রিদের মুখপাত্র হিসেবেই পরিচিত। সেখানেই সাফ সাফ জানা গেল এমবাপ্পের কথা।

রোনালদোর শূন্যতা পূরণে একজন তারকা খেলোয়াড় কেনা রিয়াল মাদ্রিদের জন্য এখন অপরিহার্য বিষয়। সম্ভাব্য বিকল্প হিসেবে পছন্দের তালিকায় ১০ জনের নাম রয়েছে। সেখানে এক নম্বরে পিএসজি তারকা নেইমার। কিন্তু কর্তাদের সাথে রিয়াল সমর্থকদের পছন্দে বিস্তর ফারাক। নেইমার নন, রোনালদোর বিকল্প হিসেবে তারা চান এমবাপ্পেকে। শুধু পছন্দ নয়, ৫৪ শতাংশ রিয়াল সমর্থক চাইছেন এমবাপ্পেকে। আন্দাজে নয়, রীতিমতো ভোটের মাধ্যমেই নিজেদের রায় জানিয়ে দিয়েছে রিয়াল সমর্থকেরা।

অনলাইন ৫৪ শতাংশ ভোট দিয়ে বিশ্বজুড়ে রিয়াল সমর্থকেরা রোনালদোর জায়গায় এমবাপ্পেকেই পছন্দ করেছে। সমর্থকদের পছন্দের তালিকায় এমবাপ্পের পরেই রয়েছেন চেলসির বেলজিয়ান মিডফিল্ডার/ফরোয়ার্ড এডেন হ্যাজার্ড। রাশিয়া বিশ্বকাপে বিশেষ নজর কাড়া হ্যাজার্ডের পক্ষে ভোট পড়েছে ১৫ শতাংশ। রিয়াল কর্তারা যাকে কেনার জন্য মরিয়া হয়ে ছুটেছেন, সেই নেইমার আছেন সমর্থকদের তালিকার তিন নম্বরে। ১৪ শতাংশ ভোট পড়েছে নেইমারের পক্ষে। রাশিয়া বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার পাওয়ার দৌড়ে এগিয়ে থাকা হ্যারি কেনও আছেন রিয়ালের পছন্দের তালিকায়। ভোট দাতাদের ১০ শতাংশ সমর্থক চান হ্যারি কেনকে। তালিকায় বাকি যে ৬ জন আছেন, তারা পেয়েছেন বাকি ৭ শতাংশ ভোট।

টার্গেট এক নম্বরে না হলেও রিয়াল কর্তাদের পছন্দের তালিকাতে উপরের দিকেই আছেন এমবাপ্পে। ফরাসি এ তরুণকে গত মওসুমেই কিনতে চেয়েছিল রিয়াল। ১৮০ মিলিয়ন ইউরোর লোভনীয় প্রস্তাবও ছিল। কিন্তু এমবাপ্পের তৎকালীন দল মোনাকো রিয়ালের প্রস্তাবে রাজি হলেও এমবাপ্পে নিজে তা প্রত্যাখ্যান করেন। রিয়ালকে হতাশ করে ফ্রান্সের বিস্ময় বালক বেছে নেন স্বদেশী ক্লাব পিএসজিকে। তখন ব্যর্থ হলেও এবার নেইমারের পাশাপাশি তাকেও কেনার জন্য ছুটছে রিয়াল। কয়েক দিন আগেই গুঞ্জন ছড়ায়, এমবাপ্পেকে ২৭২ মিলিয়ন ইউরোয় কিনতে যাচ্ছে রিয়াল।

এমবাপ্পে নিজের প্রতিভার প্রমাণ দিয়েছেন আগেই। রাশিয়া বিশ্বকাপে নিজের জাতটা চিনিয়েছেন আলাদা করে। অবিশ্বাস্য নৈপুণ্যে জয় করেছেন বিশ্ব ফুটবলপ্রেমীদের মন। পেয়েছেন বিশ্বতারকার খেতাব। এ কারণেই হয়তো এমবাপ্পেকে নিয়ে গেছে রিয়াল সমর্থকদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে।


আরো সংবাদ