২৩ জুলাই ২০১৯

যেভাবে আত্মবিশ্বাস সঞ্চয় করলেন পগবা

বিশ্বকাপ শুরুর আগে ওমরাহ করেছিলেন পগবা - ছবি : সংগৃহীত

দু’বছর আগে ইউরো ফাইনালে যে ভুল ফ্রান্স করেছিল, এ বার তার পুনরাবৃত্তি হবে না বলে জানিয়ে দিলেন পল পোগবা। সে বার বিশ্বসেরা জার্মানিকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেও ফ্রান্স অতিরিক্ত সময়ের গোলে হেরে যায় পর্তুগালের কাছে। এ বারও সেমিফাইনাল ম্যাচে শক্তিশালী বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে দাপট নিয়ে জিতেছেন ফরাসিরা। ফাইনালে তাদের লড়াই ক্রোয়েশিয়ার সঙ্গে। পোগবা নিজে কিন্তু লুকা মদ্রিচরা পিছিয়ে থেকে শুরু করবেন মনে করছেন না। তাই ‘ফাইনালে ফ্রান্স ফেবারিট’, এমন ভাবনাকেও উড়িয়ে দিচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করতে এসে পোগবা বলেছেন, ‘‘বর্তমান পরিস্থিতির ব্যাপারে আমরা সচেতন। দু’বছর আগের ভুল এ বার আমরা করব না। তাই পুরো দলটাই প্রচুর খাটছে। যে কোনও অবস্থায় কাপ নিয়ে ফেরাটাই এখন আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।’’ নিজের বক্তব্যের স্বপক্ষে আরও যোগ করলেন, ‘‘ইউরোয় সেমিফাইনালে জার্মানির বিরুদ্ধে জিতেই আমরা ধরে নিয়েছিলাম, ফাইনাল খেলে ফেললাম। কিন্তু এখন আমাদের আর সেই মানসিকতা নেই। মিথ্যে কথা বলব না। সে বার সেমিফাইনালকেই আমরা ফাইনাল ধরে নিয়েছিলাম। তার পর ফাইনালে হেরে যাই। সে দিনই বুঝেছিলাম ফাইনালে হারতে কেমন লাগে। তাই এ বার আর তেমন কিছু ঘটুক, আমরা কেউ চাই না।’’

এখানেই থামেননি পোগবা। দু’বছর আগের ইউরো ফাইনালের স্মৃতি এখনও তাকে তাড়া করে। ‘‘পর্তুগালের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগেই আমরা ধরে নিয়েছিলাম জিতে গিয়েছি। আর সেই ধরে নেওয়ার পরিণতি কী হয়েছিল তা সবাই দেখেছেন। শুধু আমরা কেন, কোনও দলই এমন ভুল দ্বিতীয় বার করবে না,’’ বলেছেন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের তারকা। ফ্রান্সের বিরুদ্ধে ‘নেতিবাচক’ ফুটবল খেলার অভিযোগ এনেছেন বেলজিয়ামের ফুটবলাররা।

ঘটনা হচ্ছে, ফরাসিরা এ বার আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে, বেলজিয়ামের মতো দলকে নক-আউট পর্যায়ে হারিয়েছে টাইব্রেকারের সাহায্য ছাড়াই। পাশাপাশি ক্রোয়েশিয়া নক-আউটে ডেনমার্ক ও রাশিয়াকে হারিয়েছে টাইব্রেকারে। একই ভাবে জিতেছে রাশিয়ার বিরুদ্ধেও। এমনকি সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে হারাতে তাদের অতিরিক্ত সময় পর্যন্ত খেলতে হয়েছে। পোগবা কিন্তু মনে করেন এই ধরনের তথ্য দিয়ে এটা বলে দেওয়া যায় না যে, ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে উঠতে হয়েছে বেশি লড়াই করে। ফ্রান্সের তারকার মন্তব্য, ‘‘ওদের জন্য ইংল্যান্ডের ম্যাচটা সত্যিই কঠিন ছিল। সব চেয়ে বড় কথা ওরা পিছিয়ে ছিল। কিন্তু ক্রোয়েশিয়া মানসিকভাবে খুবই শক্তিশালী। তাই ফাইনালে ওরা অত সহজে আমাদের কাপ নিয়ে যেতে দেবে না। মনে রাখবেন, মস্কোয় ফাইনাল খেলবে দু’টি দল। এবং দু’দলই জেতার জন্য একই সময় পাবে। তাই আমাদের ফেভারিট ভাবাটা মারাত্মক ভুল।’’

এ বারের ফ্রান্স দল নিয়ে পোগবার বিশ্লেযণ, ‘‘আমরা প্রথম থেকেই একই রকমভাবে খেলছি। এটা খুব ভালো লক্ষণ। আমাদের ক্ষেত্রে অন্তত কোনও ম্যাচ খারাপ, কোনো ম্যাচ ভালো— এ রকম হয়নি। আমাদের শক্তি হচ্ছে একতা। এই শক্তির উপর ভর করেই আমরা রোববার কাপটা নিয়ে যেতে চাই।’’ এই নিয়ে তিন বার বিশ্বকাপ ফাইনালে খেলছে ফ্রান্স। জ়িনেদিন জ়িদানদের সময়ই শুধু তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

ক্রোয়েশিয়া এই প্রথম ফাইনাল খেলছে। অতীত ইতিহাস দেখেও ফ্রান্সকে এগিয়ে রাখছেন না পোগবা। বলে দিচ্ছেন, ‘‘আমাদের মতোই ক্রোয়েশিয়াও ক্ষুধার্ত। ওরাও বিশ্বকাপ জিততেই মাঠে নামবে। এখানে অতীত ইতিহাসের কোনো ভূমিকা নেই।’’


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi