২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আবারো আলোচনায় নেইমারের 'অভিনয়'

বিশ্বকাপ, নেইমার, ব্রাজিল,
মাঠে নেইমার যে অভিনয় করেন তা থেকে নতুন প্রজন্ম ভালো কিছু শিখবে না... - সংগৃহীত

এক নেইমারের কাছেই হেরে গেল মেক্সিকো। স্বপ্ন পূরণ হলো না তাদের শেষ আটে যাওয়ার। ব্রাজিল বিশ্বকাপে এই নেইমারের বেশ কয়েকটি প্রচেষ্টা রুখে দিয়ে মেক্সিকোকে এক পয়েন্টে এনে দিয়েছিলেন গোলরক্ষক গুইলেরমো ওচোয়া। সেবার লড়াইটা হয়েছিল মূলত নেইমার এবং ওচোয়ার মধ্যে। গতকাল সামারায়ও প্রথমার্থে ব্রাজিলের জন্য বাধা হয়ে দাঁড়ান এই কিপার। কিন্তু বিরতির পর ডিফেন্ডারদের ভুলে দুটি গোল হজম এবং দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় দুইবারের বিশ্বকাপের আয়োজকদের। দুটি গোলেই অবদান নেইমারের। এই ব্রাজিলিযান সুপারস্টার নিজে করেছেন এক গোল। এরপর অপর গোলে তার অবদান। সাথে মাঠে নেইমারের অভিনয়ও ছিল ফাউলের ক্ষেত্রে। তাই ম্যাচ পরবর্তী মিক্সড জোনে মেক্সিকান কিপারকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল নেইমার প্রসঙ্গে। কিন্তু এই বিষয়ে কোনো কথাই বললেন না বেলজিয়াম লিগে খেলা ওচোয়া।

নেইমারকে নিয়ে কোনো কথা বলতে অস্বীকার করলেন স্ট্রাইকার জাভিয়ের হার্নানদেজও। নেইমারের অভিনয় নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তার জবাব, ‘এ জন্য তো রেফারি ছিলেন। রেফারি তার কাজ করেছেন।’ সংবাদ সম্মেলনে নেইমারকে নিয়ে কথা বললেও মিক্সড জোনে কোনো কথা বলেননি। হাসি মুখে আর সতীর্থদের সাথে দুষ্টামি করতে করতে পার হন মিক্সড জোন।

তবে সংবাদ সম্মেলনে মেক্সিকেরা কোচ তার বিরুদ্ধে অভিনয়ের যে অভিযোগ করেছিলেন তার জবাবে নেইমার বলেন, ‘মাঠে আমি কোনো অভিনয় করি না। যা সত্য তাই করি।’

মেক্সিকোর কোচ হুয়ান কার্লোস ওসারিও অভিযোগের সুর, মাঠে নেইমার যে অভিনয় করেন তা থেকে নতুন প্রজন্ম ভালো কিছু শিখবে না।

নেইমার প্রসঙ্গ এড়িয়ে গেলেও ওচোয়া সন্তুষ্টি প্রকাশ করলেন নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে। তার বক্তব্য, আমি আমার পারফরম্যান্সে খুশি। কিন্তু দলতো জিততে পারেনি। এই হারকে আমি বলবো দুঃখজনক। এরপর যোগ করেন, আমি ভালো খেললেও তো তা পরাজয় ঠেকোনো জন্য যথেষ্ট ছিল না।

মিডফিল্ডার গুয়ারদাদোর মতে, আমরা প্রথম পর্বে জার্মানিকে হারিয়েছি। এই নিয়ে আত্মতুষ্টিতে থাকলে চলবে না। নতুন ফুটবলার তৈরিতে হাত দিতে হবে দেশের ফুটবল ফেডারেশনকে।

 

আরো পড়ুন : নেইমারের 'নাটক' নিয়ে দুশ্চিন্তায় মেক্সিকো

ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমারের ব্যাপারে একটু বেশি সতর্ক থাকার কথা জানিয়েছেন মেক্সিকোর অধিনায়ক আন্দ্রেস গুয়ারদাদো। তবে মাঠে তিনি দুর্দান্ত খেলেন সে বিষয়ে সতর্কতার কথা জানাননি তিনি। মেক্সিকোর অধিনায়ক বলেছেন, নেইমার একটু ধাক্কা লাগলেই মাঠে লুটিয়ে পড়ে ফাউল দাবি করার একটা প্রবণতা ইদানিং লক্ষ করা যাচ্ছে। এটা চিন্তার বিষয়। কারণ এ ব্যাপারে ফিফা ও রেফারিরাও যথেষ্ট সতর্ক। তবু আমি বলবো আসলেই ফাউল হয়েছে নাকি তিনি (নেইমার) ফাউলের ভান ধরে এটা ভিএআরের মাধ্যমে স্পষ্ট হওয়া উচিত হবে।

মেক্সিকোর কোচ বলেন, ‘আমরা চাই সুষ্ঠু বিচার। আমরা সেটাই আশা করব রেফারিদের কাছ থেকে।’ তিনি বলেন, ‘নেইমার একটুতেই মাটিতে লুটিয়ে পড়ার ভানটা বেশ চমৎকারভাবেই করতে পারেন।

রেফারিরা এতে বেশিরভাগ সময়ে বিভ্রান্তিতে পড়ে যান। যা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে চলে যায়। যেহেতু ভিডিও দেখে থার্ড রেফারির কাছ থেকে একটা সিদ্ধান্ত নেয়ার বিষয় রয়েছে। যিনিই ম্যাচের রেফারি থাকবেন তিনি এ বিষয়ের দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখবেন।’

অধিনায়ক আবারো তার কথার পুনরাবৃত্তি করে বলেন, ‘এটাই হয়তো তার খেলার স্টাইল। কিন্তু এতে যেন প্রতিপক্ষ ক্ষতিগ্রস্ত না হন সে দিকে নজর দেয়া উচিত।’

মেক্সিকো কখনই বিশ্বকাপে জার্মানিকে ও ব্রাজিলকে হারাতে পারেনি। কিন্তু এবার মেক্সিকোর জেতার একটা সুযোগ দেখছেন দলটির অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘আমরা এখনো বিশ্বকাপে হারাতে পারিনি ব্রাজিলকে। তবে আমরা এখানে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করতে এসেছি। আমরা সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছি। তা ছাড়া পেছনের পরিসংখ্যান কোনো কাজে লাগে না যদি ঠিকমতো মাঠে পারফরম্যান্সটা প্রদর্শন করা যায়। আমরা সেটাতেই বিশ্বাসী।’

মেক্সিকো গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে সুইডেনের কাছে ০-৩ গোলে হেরেছে। তবে কোরিয়ার কাছে জার্মানির পরাজয়ে তাদের দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠা নিশ্চিত হয়েছে। সুইডেনের বিপক্ষে তিনটি গোলই তারা হজম করে দ্বিতীয়ার্ধে। ৩১ বছর বয়সের এ ফুটবলার বলেন, ‘ব্রাজিলের বিরুদ্ধে জয় না পাওয়ার কোনো কারণ দেখছি না। তবে এর পূর্বশর্ত রয়েছে। আমাদের মাঠে প্লানের সবটাই বাস্তবায়ন করতে হবে। কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। এটা হলে ব্রাজিলকে হারানোর অতৃপ্তি ঘুচানো সম্ভব।’ (০১ জুলাই ২০১৮, প্রকাশিত সংবাদ)


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme