১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

'ফ্রান্সের বিপক্ষে জিতবে আর্জেন্টিনা'

বিশ্বকাপ, আর্জেন্টিনা
আর্জেন্টিনার সাবেক ফুটবলার হুয়ান পাবলো সরিন - নয়া দিগন্ত

মস্কোর স্পার্টাক স্টেডিয়ামের মিডিয়া সেন্টারে দেয়ালে হেলান দিয়ে টিভিতে জার্মানি এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ম্যাচ দেখছিলেন আর্জেন্টিনার সাবেক ফুটবলার হুয়ান পাবলো সরিন। একটু পরেই তিনি স্টেডিয়ামে ঢুকবেন ব্রাজিল-সার্বিয়া ম্যাচ দেখার জন্য। ২৭ জুনের এই ম্যাচে জার্মানির পরাজয় এবং বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ে উপস্থিত ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, রাশিয়া এবং ইংল্যান্ডের সাংবাদিকরা বেশ খুশি ছিলেন। এই খুশির নেপথ্য একেক জনের কাছে একেক রকম। কারো রাজনৈতিক, কারো ফুটবলীয় শত্রুতা। ব্রাজিলিয়ানরাতো গত বিশ্বকাপে জার্মানদের কাছে ১-৭ গোলে হারের কষ্ট ভুলার চেষ্টা করছিল। আর্জেন্টিনাকে দুই ফাইনালে হতাশ এবং দুই কোর্য়াটার ফাইনালে বিদায় করেছিল জার্মানরা। সর্বশেষটি গত আসরে। কিন্তু সবাই জার্মানদের বিদায়ে উৎফুল্ল হলেও, এদের আচরণে বিস্মিত হলেন সরিন। তার মুখ আর হাত নাড়াই বিস্ময়ের ভাব প্রকাশ করছিল। এর ফাঁকেই তিনি জানান, আর্জেন্টিনার বর্তমান দল নিয়ে তিনি খুব আশাবাদী। ফ্রান্সের বিপক্ষে আজ তার দেশ জিতবে এটা দৃঢ়তার সাথেই উল্লেখ করলেন বর্তমানে ইএসপিএন এ কাজ করা এই সাবেক ফুটবলার।

বললেন, আমার প্রত্যাশা আর্জেন্টিনা এবারও ফাইনালে খেলবে। বিশেষ করে লিওনেল মেসি নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গোল পাওয়ায় উল্লসিত তিনি। তার মতে, মেসি এবার আরো এগিয়ে যাবে। বেশ ভালো করবে চলমান বিশ্বকাপে। ২০০২ এবং ২০০৬ বিশ্বকাপে খেলা আর্জেন্টিনার সাবেক এই ডিফেন্ডারের মতে, আর্জেন্টিনা দলে ডিফেন্সে কোনো সমস্যা নেই।

গোলরক্ষক সমস্যায় ভুগছে আর্জেন্টিনা। সার্জিও রোমেরোর ইনজুরির কারণে বাদ পড়া এবং এরপর ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে উইলফ্রেডো ক্যাভালেরোর মারাত্মক ভুল দলকে পরাজিত হতে বাধ্য করে। ফলে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে পোষ্টের নিচে দাঁড়ান জাতীয় দলে অভিষেক হওয়া ফ্রাঙ্কো আরমানি।

সরিন অবশ্য প্রশংসা করলেন আরমানির। দুইবার উল্লেখ করলেন, ‘আরমানি ভেরি গুড।’ এরপর আর কথা বললেন না গলা ব্যাথার কথা বলে। জানান , ‘নাইজেরিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর অনেক কথা বলতে হয়েছিল আমাকে। তাই গলাটা ব্যাথা। দুঃখিত আর কথা বলতে পারছি না।’ এর পর হাত বাড়িয়ে করমর্দন করে বিদায় নিলেন হুয়ান পাবলো সরিন।

 

আরো পড়ুন : টাইব্রেকারও অনুশীলন করলো আর্জেন্টিনা

আজ ফ্রান্সের বিপক্ষে নক আউটে লড়বে আর্জেন্টিনা। এই পর্বে নির্ধারিত সময় এবং অতিরিক্তি সময়ের খেলায় জয় পরাজয় নির্ধারিত না হলে টাইব্রেকারের আশ্রয় নিতে হয় রেফারিকে। তাই আর্জেন্টিনা দল টাইব্রেকারে গোল করা এবং গোল ঠেকোনের অনুশীলন করেছে। নির্ধারিত অনুশীলন শেষে কোচ জর্জ সাম্পাওলি ফুটবলারদের নির্দেশ দেন টাইব্রেকারের প্র্যাকটিস করতে।

আজ একাদশে থাকবেন গোলরক্ষক ফ্রাঙ্কো আরমানি। টাইব্রেকার অনুশীলনের সময় ছিলেন তিনি। তার সাথে ছিলেন ক্যাভালেরো এবং নিউয়েল গুজম্যানও।

উল্লেখ্য, আর্জেন্টিনার টাইব্রেকার ভাগ্য বেশ ভালো। পাঁচবারের চারটিতেই টাইব্রেকারে জয় তাদের। ২০০৬ সালের কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মানির কাছে এই স্পট কিকে হার ছাড়া বাকি সময়ে বিশ্বকাপে জিতেছে তারা। গত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে তারা টাইব্রেকার হারিয়ে ছিল নেদারল্যান্ডসেকে। ১৯৯০ সালে তাদের এই উপায়ে জয় কোয়ার্টার ফাইনালে যুগোশ্লাভিয়া এবং সেমিতে স্বাগতিক ইতালির বিপক্ষে। দুই ম্যাচেই নায়ক ছিলেন গোলরক্ষক সার্জিও গইকোচিয়া। ১৯৯৮ সালে কার্লোস রোয়ার কৃতিত্বে ইংল্যান্ডকে দ্বিতীয় রাউন্ডে হারিয়েছিল আর্জেন্টিনা। ২০১৪তে তাদের জয় গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরোর প্রতিরোধে।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme