১৪ নভেম্বর ২০১৮

ফ্রান্সকে ফেবারিট মানছেন না মাসচেরানো

বিশ্বকাপ, ফুটবল, আর্জেন্টিনা, মাসচেরানো
নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে রক্তাক্ত মাসচেরানো - সংগৃহীত

বহু কষ্টে প্রথম পর্বের বৈতরণী পার হওয়া। আইসল্যান্ডের সাথে ড্র, ক্রোয়েশিয়ার কাছে বাজে হার এবং শেষ খেলায় নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ৮৬ মিনিটের গোলে জয়। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে এভাবেই চার পয়েন্ট নিয়ে ম্যারাডোনা-মেসির দেশ এখন রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে। প্রথম রাউন্ডে তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ। কিন্তু নক আউট পর্বে এক ম্যাচ হারলেই মিশনের সমাপ্তি। এই নক আউট পর্বেই আর্জেন্টিনা পাচ্ছে শক্তিশালী ফ্রান্সকে। ৩০ জুন কাজানে অনুষ্ঠিতব্য ওই ম্যাচে কি পারবে মেসিরা ফরাসি বাধা ডিঙ্গাতে? আর্জেন্টিনা শিবিরসহ সব মহলে এইটা এখন আলোচ্য। যেখানে এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট ফ্রান্স। বেশ শক্তিশালী তারা। তাদের শক্তিশালী মানছেন মাসচেরানোও। তবে দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ফরাসিদের ফেবারিট মানছেন না এই আর্জেন্টিনার সাবেক অধিনায়ক ও ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার।

গত পরশু সেন্ট পিটার্সবার্গে খেলা শেষে যথারীতি মিক্সড জোনে সবচেয়ে বেশি সময় কথা বললেন হাভিয়ার মাসচেরানো। দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রতিপক্ষ ফ্রান্স সম্পর্কে বললেন, অবশ্যই আমাদের জন্য কঠিন প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। তাদের আমরা সম্মান করি। তাই বলে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে তারা ফেবারিট নয়। তাদের সাথে আমাদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রত্যাশা করছি সেই ম্যাচে।

এরপর তিনি ফিরে আসেন নাইজেরিয়া ম্যাচ প্রসঙ্গে। বললেন, ‘যে পেনাল্টি থেকে নাইজেরিয়া সমতা এনেছিল তা আসলে পেনাল্টি ছিল না। যে ফুটবলারটি আমার সাথে লেগে ছিল তাকে আমি টেনে ফেলে দেইনি। বিশাল শরীর নিয়ে সেই পড়ে গিয়েছিল। রেফারি ভিডিও দেখে তার সিদ্ধান্তের পক্ষে রায় পান। তবে আমার মতে এটা ছিল টেকনোলজির অপপ্রয়োগ।’

এরপর বলেন, পরে রেফারি নাইজেরিয়ার যে পেনাল্টির দাবি ভিডিও দেখে নাকচ করে দেন তা ছিল সঠিক সিদ্ধান্ত। ওটা তো পেনাল্টিই হয়নি। বল মাথা থেকে এসে হাতে লাগে।

তিনি আরো বলেন, যদি আমরা নাইজেরিয়ার সাথে ড্র করে বাদ পড়তাম তাহলে এই ব্যর্থতার দায় আমাদের ফুটবলারদেরই নিতে হতো। খুবই দুঃখজনক হতো বিষয়টি। তবে নাইজেরিয়া স্কোর লাইন ১-১ করে ফেলার পর বেশ কঠিন হয়ে গিয়েছিল ম্যাচটি। শেষে মার্কোস রোহোর গোলে উদ্ধার। বললেন, এই জয় এখন আমাদের মানসিকভাবে চাঙ্গা করছে পরের ম্যাচের জন্য।

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে হারের পর আর্জেন্টিনাসহ বিশ্ব মিডিয়ায় দলে কোচের সাথে খেলোয়াড়দের দ্বন্দ্বের খবর ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। এর জবাবে মাসচেরানো বলেন, এই আজগুবি নিউজ করে নিশ্চিত পত্রিকাগুলোর বিক্রি ভালো হয়েছে। দলে মোটেই এমন কিছু ঘটেনি। সব ঠিক আছে।

 

আরো পড়ুন : ফাইনালের স্বপ্ন দেখছেন হিগুয়েন

একটি জয় পাল্টে দিয়েছে পুরো আর্জেন্টিনা দলকে। ধুকতে থাকা দলটি এখন আত্মবিশ্বাসে ফুটছে। এই জয়ের পর স্ট্রাইকার গঞ্জালো হিউয়েন তো ১৫ জুলাই ফাইনাল খেলার স্বপ্ন দেখছেন। নাইজেরিয়াকে হারানোর পর আর্জেন্টাইনদের এই আশা মনে জাগতেই পারে।

মিস মাস্টার হিগুয়েনের মতে, ‘আমরা ছন্দে ফিরেছি। ভালো সুযোগ তৈরি হয়েছে সামনে এগুনোর। এখন আমাদের লক্ষ্য ফাইনাল খেলা।’

ফ্রান্সে জন্ম হয়েছে হিগুয়েনের। আর এই ফ্রান্সের বিপক্ষেই দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচ আর্জেন্টিনার। তাই হিগুয়েনের জন্য ম্যাচটি বিশেষ কিছু। বলেন, ‘আমার কাছে অন্যরকম ম্যাচ এটি। এই প্রথম খেলতে যাচ্ছি ফ্রান্সের বিপক্ষে।’

গত বিশ্বকাপের ফাইনালে সহজ গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেছিলেন হিগুয়েন। পরপর দুই কোপা আমেরিকার ফাইনালে আবার গোল মিস করেছেন তিনি। পরশু নাইজেরিযার বিপক্ষে ফের গোল করতে ব্যর্থ ইতালিয়ান লিগে খেলা এই ফুটবলার। দুটি সুযোগ হাতছাড়া করেন। তবে আগের তিন ম্যাচের মতো অবশ্য এবার হারেনি আর্জেন্টিনা।

নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গোল মিস সম্পর্কে বলেন, ‘বল খুব দ্রুত এসেছিল আমার কাছে। তাই বল আমার পায়ে লেগে বার উচিয়ে চলে যায়।’

ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা এবং জয়সূচক গোল করা মার্কোস রোহোর প্রশংসা করে বলেন, 'জয়ের পর অনেক ফুটবলারই তাদের আবেগ ধরে রাখতে পারেনি। কেঁদেছে তারা।'


আরো সংবাদ