২১ জানুয়ারি ২০২০

‘সনিক বুমে’ কেঁপে উঠলো লন্ডন

-

রোববার ভোর রাতে বড় ধরনের বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে লন্ডনে। উত্তর লন্ডনের বাসিন্দাদের অনেকেই বিস্ফোরণের শব্দ শুনে ঘুম থেকে উঠেছেন। তাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। প্রাথমিকভাবে পুলিশও জানিয়েছে তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। তবে পড়ে জানা গেছে ঘট্না খারাপ কিছু নয়। পুলিশ জানিয়েছে, ব্রিটিশ বিমান বাহিনীর দুটি যুদ্ধবিমান থেকে এই শব্দ এসেছে। যা ‘সনিক বুম’ নামে পরিচিত।

স্থানীয় সময় রোববার ভোর ৪টা ২০ মিনিটে বিস্ফোরণের শব্দে বাড়ি-ঘর কেঁপে ওঠে। এরপরেই সাইরেন বাজাতে শুরু করে পুলিশ। স্থানীয় এক বাসিন্দা এক টুইট বার্তায় বলেন, উত্তর-পশ্চিম লন্ডনে বড় ধরনের বিস্ফোরণের শব্দে ঘুম ভাঙল। আর কেউ এই শব্দ শুনতে পেয়েছেন?

লন্ডন পুলিশ এবং ফায়ার ব্রিগেড জানিয়েছে তারা বিষয়টি তদন্ত করছে। তবে এটা বড় ধরনের কিছু নয় বলে উল্লেখ করেছে ফায়ার ব্রিগেড। পুলিশ এক টুইট বার্তায় বলেছে, উত্তর লন্ডনে প্রচণ্ড শব্দের খবর আমরা পেয়েছি। তবে কোনো বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যায়নি। আমরা এই ঘটনা তদন্ত করছি। এই ঘটনায় জনগণের উদ্বেগের কোনো কারণ নেই।

যদিও কিছুক্ষণ পরেই তারা বিষয়টি নিশ্চত হতে পেরেছে। ডেইলি মেইল, বিবিসিসহ ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ব্রিটিশ রয়্যাল বিমান বাহিনীর দুটি টাইফুন যুদ্ধবিমান ওই সময় প্রচণ্ড গতিতে উড্ডয়ন করেছে লিঙ্কনশায়ার থেকে।

ল্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. জিম ওয়াইল্ড বিবিসিকে বলেছন, কোন বিমান যদি শব্দের চেয়ে দ্রুতগতিতে( ঘণ্টায় ১২৩৬ কি.মি) চলে তখন বাতাস বিমানটির সামনের দিকে প্রচণ্ড চাপ তৈরি করে। কারণ এই বাতাস সরে যাওয়ার সময় পায় না। এরপর প্রচণ্ড চাপ তৈরি করে বাতাস যখন পাশে সরে যায় তখনই এ ধরনের প্রকট শব্দ হয়।

বাতাস বিমানটির সামনের দিকে প্রচণ্ড চাপ তৈরি করে

বিমানটি দ্রুত স্থান পরিবর্তন করে বলে এই শব্দ বিভিন্ন এলাকা থেকে শোনা যায়। আর সেটিই আজ ঘটেছে লন্ডনে। বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে, লন্ডনের আকাশসীমায় উড়ে চলা একটি বোয়িং ৭৬৭ বিমান কন্ট্রোল টাওয়ারের সঙ্কেতে সাড়া না দেয়ার পর সন্দেহজনক কিছুর আশঙ্কা করা হয়। এরপরই দ্রুত ব্যবস্থা নিতে আকাশে ওঠে দুটি অত্যাধুনিক টাইফুন যুদ্ধবিমান।


আরো সংবাদ