২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

এক ভয়ঙ্কর তরুণীর ৬৭ মিলিয়ন ডলারের কাহিনী

এক ভয়ঙ্কর তরুণীর ৬৭ মিলিয়ন ডলারের কাহিনী - ছবি : সংগ্রহ

আসল নাম আনা সোরোকিন৷ বয়স ২৮৷ জন্ম মস্কোতে৷ ১৬ বছর বয়সে জার্মানিতে আসেন৷ প্রায় ৯ মাস তিনি নিউইয়র্কের ব্যাংক, অভিজাত হোটেল আর বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন৷ এখন যেতে হচ্ছে কারাগারে৷

আনা সোরোকিন প্রতারণার সময় নিজের নাম হিসেবে আনা ডেলভি ব্যবহার করেন৷ আশেপাশের সবাইকে জানিয়েছিলেন যে, উত্তরাধিকার সূত্রে তিনি প্রায় ৬৭ মিলিয়ন ডলারের মালিক৷ তার বাবা একজন কূটনীতিক বলেও সবাইকে জানান তিনি৷ যদিও এখন জানা যাচ্ছে, তার বাবা আসলে একজন সাবেক ট্রাকচালক, যিনি এখন ছোটখাটো একটি ব্যবসা করছেন৷

যা যা করেছেন

২০১৬ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৭ সালের আগস্ট পর্যন্ত নিউইয়র্কের অভিজাত এলাকায় থেকে সবার সঙ্গে প্রতারণা করেন সোরোকিন৷ এই সময় তিনি বেশ কিছুদিন অভিজাত হোটেলে থেকেছেন, তারকাদের সঙ্গে ওঠাবসা করেছেন, দামি পোশাক পরে শিল্প প্রদর্শনীর উদ্বোধনীতে গেছেন৷ শুধু তাই নয়, নিজে একটি ভিজ্যুয়াল আর্ট সেন্টার গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে ব্যাংক থেকে ২২ মিলিয়ন ডলারের ঋণ পাওয়ারও চেষ্টা করেছেন৷ তবে সফল হননি৷ অবশ্য আরেকটি ব্যাংক থেকে ঠিকই এক লক্ষ ডলারের ঋণ পেতে সমর্থ হন তিনি - যা পরে ফেরত দিতে পারেননি৷

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের নেব্রাস্কায় বিশ্বের অন্যতম সেরা ধনী ওয়ারেন বাফেটের সম্মেলনে যোগ দিতে প্রাইভেট জেট ব্যবহার করেন আনা সোরোকিন৷ এই বিমানযাত্রার ভাড়া ৩৫ হাজার চার শ' ডলারও তিনি পরিশোধ করেননি৷

সোরোকিনের প্রতারণা থেকে তার বন্ধুরাও বাদ পড়েননি৷ রাচেল ডেলোয়াচ উইলিয়ামস নামের এক বান্ধবীকে তিনি মরক্কো সফরে নিয়ে গিয়েছিলেন৷ কথা ছিল, পুরো সফরের টাকা সোরোকিন বহন করবেন৷ অথচ বান্ধবী উইলিয়ামসকেই ৬২ হাজার ডলার বিল পরিশোধ করতে হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল৷ অবশ্য আদালত সোরোকিনকে এই অভিযোগ থেকে মুক্তি দিয়েছে৷

তবে অন্যান্য অভিযোগে সোরোকিনকে চার থেকে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে নিউইয়র্কের একটি আদালত৷ ২০১৭ সালের অক্টোবরে ধরা পড়ার পর গত মাসে সোরোকিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়৷ এরপর বৃহস্পতিবার তার বিরুদ্ধে শাস্তি ঘোষণা করা হয়৷

আইনজীবীরা সোরোকিনের বিরুদ্ধে দুই লক্ষ ৭৫ হাজার ডলার চুরির অভিযোগ এনেছিলেন৷ রায়ে কারাদণ্ড ছাড়াও সোরোকিন যাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন তাদের দুই লক্ষ ডলার ফেরত দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে৷ এছাড়া তাকে ২৪ হাজার ডলার জরিমানাও করা হয়েছে৷

শাস্তি ঘোষণার সময় বিচারক ডিয়ানে কিসেল বলেন, সোরোকিন নিউইয়র্কের ঝলমলে জীবন দেখে অন্ধ হয়ে গিয়েছিলেন৷ তবে সোরোকিনের প্রতারণার ধরন দেখে তিনি চমকে গেছেন বলে জানান৷

এদিকে, সোরোকিনের আইনজাবী বলছেন, সোরোকিন কোনো দাগী অপরাধী নন, ‘সমাজের জন্য হুমকি’ও নন, তিনি শুধু কতগুলো ভুল করেছেন৷

যুক্তরাষ্ট্রে কারাদণ্ড ভোগের পর সোরোকিনকে জার্মানিতে ফেরত পাঠানো হবে বলে জানা গেছে৷

নেটফ্লিক্সে সোরোকিনের গল্প

‘স্ক্যান্ডাল’ নামে জনপ্রিয় একটি টিভি শো'র পরিকল্পনাকারী শোন্ডা রিমেস জানিয়েছেন, সোরোকিনের গল্প নিয়ে তিনি নেটফ্লিক্স সিরিজ তৈরি করবেন৷ এছাড়া লেনা ডানহাম নামের আরেকজন জানিয়েছেন, তিনিও সোরোকিনের গল্প নিয়ে নেটফ্লিক্সে অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করছেন৷

এদিকে, মরক্কোতে নিয়ে গিয়ে সোরোকিন যে বান্ধবীর সঙ্গে প্রতারণা করেছিলেন সেই বান্ধবী সোরোকিনের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে একটি বই লিখেছেন৷ বইয়ের চুক্তি থেকে তিনি তিন লক্ষ ডলার আয় করবেন৷ এছাড়া তিনি এইচবিও-র কাছে ৩৫ হাজার ডলারে তার গল্পটি বিক্রি করেছেন৷
সূত্র : ডয়চে ভেলে


আরো সংবাদ