২০ মে ২০১৯

মেয়ের জামাইয়ের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচারণায় শাশুড়ি!

মেয়ে জামাইয়ের নির্বাচনী প্রতীক নৌকার পক্ষে গণসংযোগ না করে আনারস প্রতীকে ভোট চাইছেন শাশুড়ি - সংগৃহীত

উপজেলা নির্বাচন আসন্ন। চলছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই আর সরগরম প্রচারণা, গণসংযোগ। প্রচারণারও যেন শেষ নেই। কিন্তু এর মধ্যেই নৌকা প্রতীকের মনোনীত সরকারদলীয় প্রার্থী পড়েছেন চরম অস্বস্তিতে। তার অস্বস্তির কারণ আর কিছুই নয়। শেষ মূহুর্তের নির্বাচনী প্রচারণায় সবাই তার পক্ষে ঘাম ঝরালেও তার নিজের শাশুড়িই তার বিরুদ্ধে মাঠে নেমে পড়েছেন কোমর বেঁধে। এদিকে ওই শাশুড়িও মেয়ের জামাইকে বাদ দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী এক স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে। কেবল শাশুড়িই নয়, নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে নেমেছেন তারই একমাত্র শ্যালক। ঘটনাটি ঘটেছে যশোরের কেশবপুর উপজেলায়।

জানা যায়, জামাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী এইচ এম আমীর হোসেন। তার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী রফিকুল ইসলামের পক্ষে মাঠে নেমে গণসংযোগ করছেন আপন শাশুড়ি শাহিদা সিদ্দিক।

তাছাড়া দু’বারের উপজেলা পরিষদের এই চেয়ারম্যান এইচ এম আমীর হোসেনের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাচন শুরু থেকেই তার একমাত্র শ্যালক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ এবাদত সিদ্দিক বিপুল তার এই দুলাভায়ের বিপক্ষে সতন্ত্র প্রার্থী কাজী রফিকুল ইসলামের পক্ষে নির্বাচনী প্রচার, গণসংযোগ সভা সমাবেশে বক্তব্য রেখে চলেছেন। নৌকার প্রার্থীর একমাত্র শ্যালক এবং শাশুড়ি প্রতিপক্ষ প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কর্মকান্ডে অংশ নেয়ার ফলে উপজেলাব্যাপী ব্যাপক আলোচনা পর্যালোচনা শুরু হয়েছে।

কেশবপুর উপজেলা নির্বাচনের আর মাত্র দু’দিন বাকী। এরই মধ্যে গত বুধবার (২৭মার্চ) সকাল থেকে জামাই এইচ এম আমির হোসেনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন শাশুড়ি শাহিদা সিদ্দিক। ওইদিন সকালে তিনি দলীয় নেতাকর্মী ও মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে আনারস মার্কার প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে যান। এসময় উপস্থিত নেতাকর্মীদেরকে জামাই এইচ এম আমীর হোসেনের বিপক্ষে তার অবস্থানের কথা জানান।

এরপর তিনি উপজেলার হাসানপুর বাজার ও কাকিলাখালি গ্রামের ডাক্তার বিপুলের বাড়িতে এক উঠান বৈঠকে বক্তব্য রাখেন এবং আনারস প্রতীকে ভোট দেয়ার জন্য আহবান জানান। এ সময় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক কাজী রফিকুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহবায়ক এ্যাডভোকেট মিলন মিত্র, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ এবাদত সিদ্দিক বিপুল, সাগরদাঁড়ী ইউপি চেযারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্তো, দফতর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার দাস, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, ডেপুটি কমান্ডার কাইয়ুম উদ্দীন, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ, আবু বক্কার, মোসলেম উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক পৌর কাউন্সিলর বিশ্বাস শহীদুজ্জামান শহীদ, হাসানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহবায়ক আলতাফ হোসেন, হাসানপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক তুহিন রেজা, কেশবপুর পৌর যুবলীগ নেতা ফারুক হোসেন ও আব্দুর রউফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ

ব্যতিক্রমী সফরে তিব্বতে মার্কিন রাষ্ট্রদূত হুয়াওয়ে স্মার্টফোন অ্যান্ডয়েড ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা কোপায় নেইমারকে অব্যাহতি দেয়ার আহ্বান গোপালগঞ্জে মসজিদ ফান্ডের হিসাব চাওয়ায় কুপিয়ে জখম আড়াইহাজারে দেয়াল চাপায় নির্মাণশ্রমিকের মৃত্যু জাবিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আদলে হয়রানিমূলক শৃঙ্খলাবিধি পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে ফিরলেন আমির-ওয়াহাব-আসিফ দলিত সম্প্রদায়ের প্রথম গ্র্যাজুয়েট সনু রানী সৈয়দপুরে ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত ১৫২ জন হাসপাতালে ভর্তি ‘পঞ্চগড়’ এক্সপ্রেস ট্রেনের জয়পুরহাট স্টেশনে যাত্রা বিরতির দাবি রংপুর মহানগরীতে বিআরটিসির দ্বিতল সিটি সার্ভিস বাস চালু

সকল




agario agario - agario