১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

গাজীপুরে ভোটের লড়াই শুরু

গাজীপুরে ভোটের লড়াই শুরু - নয়া দিগন্ত

গাজীপুর সিটি করপোরেশন (জিসিসি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এ ভোট গ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। জিসিসি নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন মোট ৭ জন প্রার্থী।

রাজধানীর পাশ্ববর্তী এ সিটি নির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকারের মধ্যে। মেয়র পদে অন্য প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কাস্তে প্রতীক নিয়ে মো. রুহুল আমিন, মিনার প্রতীক নিয়ে ফজলুর রহমান, টেবিল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে ফরিদ আহমদ, মোমবাতি প্রতীক নিয়ে মো. জালাল উদ্দিন ও হাত পাখা প্রতীক নিয়ে মো. নাসির উদ্দিন।

৫৭টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এ সিটির ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৩৬ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৯৩৫ জন আর মহিলা ভোটার ৫ লাখ ৬৭ হাজার ৮০১ জন। নির্বাচনে ৫৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে মোট প্রার্থী ২৫৬ জন আর সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৮৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণের জন্য মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার সব মিলিয়ে বিভিন্ন সংস্থার প্রায় ১৫ হাজার সদস্য। নিয়োগ দেয়া হয়েছে অর্ধশতাধিক ইসির নিজস্ব পর্যবেক্ষকসহ ১৯ জন বিচারিক ও ৫৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। নির্বাচনে ছয়টি ভোটকেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হবে। 

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের এটি দ্বিতীয় নির্বাচন। এর আগে ২০১৩ সালে প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে মেয়র পদে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক এম এ মান্নান নির্বাচিত হন। গত রাতে ভোট প্রদানের উপযোগী করে তোলা হয় কেন্দ্রসহ ভোটকক্ষগুলো। কোনো নাশকতা বা অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে জন্য কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। মোতায়েন করা হয়েছে বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব, এপিবিএন ও আনসারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় ১৬ হাজার সদস্য।

নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা এক মাসের বেশি সময় ধরে চলে। নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী গত রোববার রাত ১২টায় শেষ হয়েছে আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণা। এখন পর্যন্ত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে কোনো সহিংস ঘটনা ঘটেনি। তবে একাধিক প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ পাওয়া যায়।

নির্বাচনীকাজে মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ৫৭টি ওয়ার্ডে র‌্যাবের ৫৭টি টহল দল মোতায়েন করা হয়েছে। রোববার রাতে র‌্যাব-১ এর পোড়াবাড়ি ক্যাম্প থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, র‌্যাবের ৬০০ জন সদস্য নির্বাচনী এলাকায় দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন। র‌্যাবের প্রতিটি টহল দলে আটজন করে সদস্য থাকবেন। প্রতি ৪ ওয়ার্ডে একজন করে ১৪ জন অফিসার নির্বাচনী দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন। সার্বক্ষণিক তদারকিতে থাকবেন র‌্যাব-১ উত্তরার অধিনায়ক মো: সারওয়ার-বিন-কাশেম। এ ছাড়া চারটি ডগ স্কোয়াড ও বোম ডিসপোজাল ইউনিটও থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মণ্ডল জানান, গাজীপুরের চাপুলিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (ভোটার-২৪৮০), চাপুলিয়া মফিজউদ্দিন খান উচ্চবিদ্যালয় (ভোটার-২৫৫২), পশ্চিম জয়দেবপুরের মারিয়ালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র-১ (ভোটার-২৫৬২), মারিয়ালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র-২ (ভোটার-২৮২৭), রানী বিলাসমনি সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্র-১ (ভোটার-১৯২৭) ও রানী বিলাসমনি সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্র-২ (ভোটার-২০৭৭) এ ছয়টি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করার জন্য নির্বাচন কমিশনে প্রস্তাব পাঠানো হয়। কেন্দ্রগুলোর অবকাঠামো ও যাতায়াতব্যবস্থা, এলাকার পরিবেশ এবং এলাকাবাসীর শিক্ষাগত যোগ্যতাসহ নানা বিষয় বিবেচনায় নিয়ে এ কেন্দ্রগুলো নির্বাচন করা হয়।

মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন বিএনপির মো: হাসান উদ্দিন সরকার (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম (নৌকা), ইসলামী ঐক্য জোটের ফজলুর রহমান (মিনার), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো: নাসির উদ্দিন (হাতপাখা), বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মো: জালাল উদ্দিন (মোমবাতি), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কাজী মো: রুহুল আমিন (কাস্তে) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরিদ আহমদ (টেবিল ঘড়ি)।

অফিস-আদালত ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি আজ নির্বাচনী এলাকার ব্যাংকগুলোও বন্ধ থাকবে। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো: সিরাজুল ইসলাম স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন উপলক্ষে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজ নিজ ভোটাধিকার প্রয়োগ ও ভোট গ্রহণের সুবিধার্থে নির্বাচনী এলাকায় অবস্থিত ব্যাংকগুলোর আঞ্চলিক কার্যালয়সহ সব শাখা আজ বন্ধ থাকবে।


আরো সংবাদ