২০ অক্টোবর ২০১৯

ছাত্রলীগের কলুষিত রূপ সারাবিশ্ব দেখেছে : ভিপি নুর

রাজু ভাস্কর্যের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নূরু - নয়া দিগন্ত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরু বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলের পাশাপাশি কোনো শিক্ষাঙ্গনে আর কোন ছাত্রকে ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগের টর্চার সেলে নির্যাতনের শিকার হতে না হয় তা নিশ্চিত করতেই আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে আমাদের আন্দোলন অব্যহত রাখতে হবে। আজকে ছাত্রসমাজ ক্যাম্পাসে গণতান্ত্রিক পরিবেশ রক্ষা করা, আবরার হত্যাকাণ্ডের বিচার ও দেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তি বাতিলের দাবিগুলোতে আজকে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। আমরা চাই এই প্রতিবাদের মধ্য দিয়ে শিক্ষাঙ্গনগুলো এগিয়ে যাক।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। সংক্ষিপ্ত সমাবেশের পূর্বে আবরার হত্যার প্রতিবাদে ডাকসু'র ভিপি নুরুল হক নূরুর নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল রাজধানীর শাহবাগ চত্বর, মৎস্য ভবন, হাইকোর্ট মোড়, দোয়েল চত্বর হয়ে আবারো রাজু ভাস্কর্যের সামনে এসে শেষ হয়। মিছিলে বাংলাদেশ ছাত্রফেডারেশনসহ বাম ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডাকসু'র ভিপি বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী চেতনাকে ধারণ করে ছাত্রলীগ করেছি। কিন্তু আমি যখন দেখেছি ছাত্রলীগ করলে সাধারণ ছাত্রদের স্বার্থবিরোধী কাজ করতে হয় তখন আমি ছাত্রলীগ থেকে সরে গেছি। আমাকে বহিষ্কার করা হয়নি। আজকে যে ছাত্রলীগের কলুষিত রূপ বেরিয়ে এসেছে, সেটা সমগ্র জাতি দেখেছে, সারাবিশ্ব দেখেছে।

নূরু বলেন, ইতোমধ্যে আপনারা দেখছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ একটি ঘোষণা দিয়েছে যে মাস্টার্স শেষ হওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে হল ছাড়তে হবে। এটি একটি ভালো উদ্যোগ। দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রসমাজ এই দাবি জানিয়ে আসছিল। সুতরাং নিপীড়নের বিরুদ্ধে, নির্যাতনের বিরুদ্ধে, হত্যার বিরুদ্ধে ছাত্রসমাজ রুখে দাঁড়িয়েছে আবরার হত্যার বিচার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত অন্তত সেই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। আপনারা কষ্ট করে হলেও আমাদের প্রতিটা কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন। আমরা সংবাদ সম্মেলন করে পরবর্তী কর্মসূচি জানিয়ে দিবো।

তিনি আরো বলেন, আজকে যখন ছাত্র সমাজ জেগে উঠেছে তখন এই ছাত্রসমাজকে থামানোর জন্য লোক দেখানো অনেকে অনেক প্রকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, শোক মিছিল করেছে। কিন্তু তাদের চেতনা তো এটি নয়। আমরা বলেছি, ভবিষ্যতে যেন সাধারণ কোনো শিক্ষার্থী ছাত্রলীগের এই ধরনের নির্যাতনের শিকার না হয় সে ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীকে ঘোষণা দিতে হবে।

নুরু বলেন, আজকে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা হলে সারা বাংলাদেশে স্বৈরতন্ত্র কায়েম হবে। কোটা সংস্কার আন্দোলন, আবরার হত্যা আন্দোলন, নুসরাত হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলন এগুলো রাজনৈতিক সচেতনতামূলক আন্দোলন। সুতরাং ছাত্র রাজনীতি যদি বন্ধ করা হয় তবে সেটি আমাদের জন্য ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করবে। দেশকে স্বৈরতন্ত্রের দিকে ধাবিত করবে। তাই সন্ত্রাসী ছাত্ররাজনীতি বন্ধ চাই আমরা।


আরো সংবাদ

দেশী-বিদেশী পাইলটরা লেজার লাইট আতঙ্কে (৩৯৯৩৬)পাকিস্তান বনাম ভারত যুদ্ধপ্রস্তুতি : কে কতটা এগিয়ে (২৮৪৮৪)ভারতীয় বিমানকে ধাওয়া পাকিস্তানের, আফগানিস্তান গিয়ে রক্ষা (২১৮৯৮)দুই বাঘের ভয়ঙ্কর লড়াই ভাইরাল (ভিডিও) (২০৬১৪)শীর্ষ মাদক সম্রাটের ছেলেকে আটকে রাখতে পারলো না পুলিশ, ব্যাপক দাঙ্গা-হাঙ্গামা (১৪৭১৯)রৌমারী সীমান্তে বিএসএফ’র গুলি ও ককটেল নিক্ষেপ! (১৪৫৭২)বিশাল বিমানবাহী রণতরী নির্মাণ চীনের, উদ্বেগে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেকে (১৪৩৩৮)‘গরু ছেড়ে মহিলাদের দিকে নজর দিন’,: মোদির প্রতি কোহিমা সুন্দরীর পরামর্শে তোলপাড় (১৩৫৮৪)বিএসএফ সদস্য নিহত হওয়ার বিষয়ে যা বললো বিজিবি (১১৮৬৩)লেন্দুপ দর্জির উত্থান এবং করুণ পরিণতি (৯৩৩৭)



portugal golden visa
paykwik