film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ইউজিসির শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালা প্রত্যাখ্যান বুয়েট শিক্ষক সমিতির

ইউজিসির শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালা প্রত্যাখ্যান বুয়েট শিক্ষক সমিতির - নয়া দিগন্ত

সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক নীতগতভাবে অনুমোদন দেয়া বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) প্রণীত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতির সংক্রান্ত অভিন্ন নীতিমালার প্রতিবাদ জানিয়ে তা প্রত্যাখ্যান করেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শিক্ষক সমিতি।

বুধবার দুপুরে বুয়েটের মিনারের পাদদেশে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে তারা এ প্রতিবাদ জানান।

মানববন্ধনে বুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. একেএম মাসুদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. মোস্তফা আলীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় দুইশতাধিক শিক্ষক অংশগ্রহণ করে। এ সময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সভাপতি অধ্যাপক ড. একেএম মাসুদ।

লিখিত বক্তব্যে অধ্যাপক একেএম মাসুদ বলেন, বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী এবং বিশেষায়িত বিদ্যালয় হিসেবে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সমূহ (বুয়েট, চুয়েট, ডুয়েট, কুয়েট এবং রুয়েট) স্ব-স্ব বিশ্ববিদ্যায়ের প্রচলিত নীতিমালার আলোকেই শিক্ষার মান বজায় রেখে চলেছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দেশে ও বিদেশে অত্যন্ত সাফল্য ও সুনামেরর সাথে তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন। শুধু তাই নয় বাংলাদেশের বিভিন্ন ভৌত ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে এই বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলছে। বাংলাদেশ সরকারের বড় বড় ভৌত ও অবকাঠমোগত পরিকল্পনার সম্ভাব্যতা যাচাই, নকশা প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নে সবধরনের কারিগরি সহায়তা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ করে থাকেন যার ফলে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রাসাশ্রয় হচ্ছে।

অধ্যাপক মাসুদ বলেন, অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় এই যে মেধাবী স্নাতকদের শিক্ষকতা পেশায় প্রবেশের পথ রুদ্ধ করার যে নীতিমালা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন প্রস্তাব করেছে তা গ্রহণ করা হলে প্রকৌশল শিক্ষার মানের অবনতি ঘটবে বলে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি দৃঢ়ভাবে মনে করে। সেই সাথে পিএইচডি ডিগ্রীধারী শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে এক বছর সক্রিয় শিক্ষকতার যে বিধান রাখা হয়েছে তার ফলে বিদেশে উচ্চ ডিগ্রী অর্জনের পর মেধাবী শিক্ষার্থীদের দেশে প্রত্যাবর্তনের অনীহা তৈরি হবে।

ইউজিসির নীতিমালার অসাড়তা তুলে ধরে তিনি বলেন, ইউজিসি কর্তৃক প্রস্তাবিত এই নীতিমালায় প্রকৌশল শিক্ষার মান উন্নয়নের কোন নির্দেশনা নেই এবং শিক্ষকদের মান মর্যাদা, স্বতন্ত্র বেতন কাঠামো, শিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ সুবিধার কোন উল্লেখ নাই। এই নীতিমালা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্ত্বশাসনের পরিপন্থী উল্লেখ করে তিনি বলেন, পৃথক পৃথক বিশ্ববিদ্যালয়ে বস্তবতা অনুধাবন না করে এবং একটি নতুন নীতিমালায় উপণিত হলে প্রকৌশল শিক্ষার মান এবং বাংলাদেশ সরকারের বর্তমান উন্নয়ন দীর্ঘ মেয়াদে ব্যাহত হতে পারে এবং এই নীতিমালা প্রণয়নের প্রক্রিয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসনের পরিপন্থী। 


আরো সংবাদ

ধেয়ে আসছে লাখে লাখে পঙ্গপাল, ভয়াবহ আক্রমণের ঝুঁকিতে ভারত (১২২৯৮)এরদোগানের যে বক্তব্যে তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠল ভারত (১০৮১০)বিয়ে হল ৬ ভাই-বোনের, বাসর সাজালো নাতি-নাতনিরা (৮২৩০)জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশের নির্মম অত্যাচারের ভিডিও ফাঁস(ভিডিও) (৭২০১)কেউ ঝুঁকি নেবে কেউ ঘুমাবে তা হয় না : ইশরাক (৬৩৩৩)আ জ ম নাছির বাদ চট্টগ্রামে নৌকা পেলেন রেজাউল করিম (৫২৮৮)মাওলানা আবদুস সুবহানের জানাজায় লাখো মানুষের ঢল (৫১১৩)‘ইরানি হামলায় মার্কিন ঘাঁটির ক্ষয়ক্ষতির বিবরণ নিজেরাই প্রকাশ করুন’ (৪৮০২)জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট দল ঘোষণা, বাদ মাহমুদউল্লাহ (৪৫৩০)মাঝরাতে ধর্ষণচেষ্টায় ৭০ বছরের বৃদ্ধের পুরুষাঙ্গ কাটল গৃহবধূ (৪৪৩৯)