film izle
esans aroma gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indir Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সদ্য নির্বাচিত ভিপি নুরুল হকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুম্ম-আহ্বায়ক নুরুল হক নুর - সংগৃহীত

২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে ভিপি নির্বাচিত হওয়া নুরুল হক নুরসহ নির্বাচনে ভিপি পদপ্রার্থী লিটন নন্দীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচন চলাকালে রোকেয়া হলের প্রভোস্ট ড. জিনাত হুদাকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে ভিপি প্রার্থী ও ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লিটন নন্দী, কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা ও সদ্য নির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুরুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

সোমবার রাতে ঢাবির নৃত্যকলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মারজুকা রায়না বাদি হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান এ তথ্য জানান।

ওসি আবুল হাসান বলেন, ঢাবির এক শিক্ষার্থী রোকেয়া হলের প্রভোস্টকে লাঞ্চিত করার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সেটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছি।

মামলায় লিটন ও নুরুল ছাড়াও জিএস প্রার্থী ঢাবির জহুরুল হক হল ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক খন্দকার আনিসুর রহমান, জিএস প্রার্থী ছাত্র ফেডারেশনের ঢাবি শাখার সভাপতি উম্মে হাবীবা বেনজীর ও রোকেয়া হল সংসদের স্বতন্ত্র ভিপি প্রার্থী শেখ মৌসুমীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরো ৩০-৪০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, সোমবার সকাল ১১টা ২০ মিনিটের দিকে মামলার বাদী মারজুকা রায়না রোকেয়া হলে ভোটের লাইনে দাঁড়ান। এর মধ্যে হেরে যাওয়ার ভয়ে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বানচাল করার চেষ্টা চালান অভিযুক্তরা। তারা গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে ‘গুজব ছড়িয়ে’ দেন যে, ট্রাংকভর্তি সিল মারা ব্যালট পেপার হলের ভেতরে রয়েছে। পাশাপাশি তারা শিক্ষার্থীদের ‘বিভ্রান্ত করে উসকে’ দেন।

এ পর্যায়ে হল প্রভোস্ট ড. জিনাত হুদা শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে বলেন, বাস্তবে তেমন কিছুই ঘটেনি। সংরক্ষিত ব্যালট পেপারগুলো সাদা। কিন্তু অভিযুক্তরা প্রভোস্টের কথা না শুনে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন এবং শিক্ষার্থীদের গালাগাল করেন। এ সময় তারা রোকেয়া হল সংসদের দরজা-জানালা লাথি মেরে ভেঙে ফেলার চেষ্টা চালান। পরে তারা সংসদের ভেতর অনধিকার প্রবেশ করে একটি ট্রাঙ্ক বের করে আনেন। সেটি খুলে দেখা যায়, সব ব্যালট পেপারই সাদা। কোনোটিতে সিল মারা নেই।

এদিকে সোমবার নির্বাচনের দিন ঘটনাস্থল রোকেয়া হলে উপস্থিত প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা বলছেন, ছাত্রলীগের নারী কর্মীরাই নুরুল হকের ওপর হামলা করেন। এ সময় তাঁকে মাটিতে ফেলে আঘাত করা হয়। হামলা ও মারধরে অজাঞান হয়ে পড়েন নুরুল হক। হামলার পর নুরুল হককে উদ্ধার করে বাইরে নিয়ে আসা হয়। পরে গণমাধ্যমের একটি গাড়িতে করে বেসরকারি একটি হাসপাতালে পাঠানো হয় তাকে।

আরো পড়ুন : ছাত্রলীগের হামলায় ভিপি প্রার্থী নুরুল হক নূর আহত
নয়া দিগন্ত অনলাইন, (১১ মার্চ ২০১৯)

ছাত্রলীগের হামলায় ডাকসু নির্বাচনে কোটা সংস্কার আন্দোলনের (বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ) প্যানেল থেকে ভিপি প্রার্থী নুরুল হক নূরসহ তিন প্রার্থী আহত হয়েছেন। সোমবার ভোট চলাকালে রোকেয়া হলের ছাত্রলীগকর্মীদের কয়েকজন তাদের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ করা হয়।

নুরুল হক নূরসহ অন্য আহতরা হলেন- স্বতন্ত্র জোটের প্রার্থী অরণী ও শ্রাবণী শফিক দীপ্তি। এদিকে হামলা ও মারধরের পর অজ্ঞান হয়ে পড়েন নুরুল হক নূর। তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে বলে জানা যায়।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোকেয়া হলে ভোট কারচুপি হচ্ছে এমন অভিযোগ পেয়ে নূর এবং অন্য বিরোধী প্রার্থীরা সেখানে যান। হলের শিক্ষার্থীরা একটি কক্ষ ঘেরাও করে রাখেন। তাদের অভিযোগ, সেখানে তিনটি ব্যালটবাক্স আগে থেকে ভরে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে শিক্ষক ও নির্বাচনী কর্তৃপক্ষের কাছে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চাইতে গেলে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন নূর ও তার সঙ্গে থাকা দুই প্রার্থী।

প্রসঙ্গত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এবং হল সংসদের নির্বাচনে বেগম রোকেয়া হল ভোটকেন্দ্র থেকে তিনটি ব্যালট বাক্স সরিয়ে ফেলার অভিযোগ করেছেন প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা। এ অভিযোগে বিক্ষোভের মুখে ভোটগ্রহণ বন্ধ রাখা হয়েছে।


এর আগে সোমবার সকাল ৮টা থেকে অন্যান্য ভোটকেন্দ্রে ভোট শুরু হলেও রোকেয়া হলে শুরু হয় এক ঘণ্টা দেরিতে।

ছাত্রদল, বাম জোট ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ আন্দোলনের একাধিক প্রার্থী অভিযোগ করেন যে, রোকেয়া হলে গায়েব হওয়া তিনটি ব্যালট বাক্স সরিয়ে ফেলেছে ছাত্রলীগ।


আরো সংবাদ




short haircuts for black women short haircuts for women Ümraniye evden eve nakliyat