১৬ অক্টোবর ২০১৮

জাবি জাতীয়তাবাদী ফোরামের মানববন্ধন

-

গ্রেনেড হামলার রায়কে প্রত্যাখ্যান করে তারেক রহমানসহ সকল নেতৃবৃন্দকে সাজা থেকে মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরাম। বৃহস্পতিবার জাবির ‘অমর একুশ’ পাদদেশে এ মানবন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করা হয়।

জাবি জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের যুগ্ন আহ্বায়ক অধ্যাপক শামছুল আলম সেলিমের সঞ্চালনায় বিভিন্ন বক্তারা এ রায়কে ফরমায়েশি ও প্রতিহিংসামূলক রায় বলে মন্তব্য কওে এবং রায়কে পূর্ণবিবেচনা করে ন্যায় বিচার করার আবেদন করেন। 

দর্শন বিভাগের অধ্যাপক কামরুল আহসান বলেন, ‘বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় কেন নিজেদের মসনদকে দূর্বল করার জন্য গ্রেনেড হামলার মতো নিন্দনীয় কাজ করবে। এমন কাজ পাগল বা শিশুরাও করবেনা বা বিশ্বাস করবেনা। তারা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে এবং বিএনপিকে নির্বাচনের বাহিরে রাখতে এসব করছে।

ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক নূরুল ইসলাম বলেন, ‘আাওয়ামীলীগ রাজনীতিতে ও জনগনের কাছে পরাজিত হয়ে আদালতের মাধ্যমে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নির্মূল করার অপ্রচেষ্টা চালাচ্ছে। এজন্য প্রথমে খালেদা জিয়া ও এখন তারেক রহমানকে রাজনীতির বাহিরে রাখতে অপ্রচেষ্টা চালাচ্ছে। আগামী নির্বাচনে জনগন এর জবাব দিবে।’

সহযোগী অধ্যাপক জামাল উদ্দীন রুনু বলেন, ‘গ্রেনেড হামলার মামলার তদন্ত করানো হয়েছে একজন বরখাস্তকৃত ও বিতর্কিত পুলিশ অফিসার দিয়ে। সে আবার নিজ এলাকায় আওয়ামী লীগের মনোনয়নও চেয়েছে। এতে সহজেই বুঝা যায় সরকার আইনকে ব্যবহার করে হিংসার রাজনীতি চালু করছে।

এছাড়াও অধ্যাপক সালেহ আহমেদ, অধ্যাপক ফললুল করিম পাটোয়ারী, অধ্যাপক মাসুম শাহরিয়ার, অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান চয়ন, সহযোগী অধ্যাপক একেএম রাশেদুল আলম, সহকারী অধ্যাপক রোরহান উদ্দিন, কর্মকর্তা আব্দুর রহমান বাবুল ও আব্দুল খালেক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


আরো সংবাদ