১৫ নভেম্বর ২০১৮
ঢাবিতে বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস পালিত

সুষ্ঠু পরিবেশে কমবে আত্মহত্যার প্রবণতা

-

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার বলেছেন, বাংলাদেশ তার সকল সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে যথাযথ পরিকল্পনা নিয়ে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এ দেশের মানুষ দৃঢ় মনোবলের অধিকারী। সুষ্ঠু পরিবেশ পেলে তারা আত্মহত্যার মতো নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে সহজেই বেরিয়ে আসতে পারে এবং এর ফলে দেশে আত্মহত্যার প্রবণতা কমবে। সোমবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ‘বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ব্রাইটার টুমোরো ফাউন্ডেশন (বিটিএফ) ও দ্য গ্রেট বাংলাদেশ রান (টিজিবিআর) যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক আত্মহত্যা প্রতিরোধে সবার আগে একটি সুস্থ সমাজ ব্যবস্থা জরুরি বলে মত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা আত্মহত্যা প্রতিরোধে সুষ্ঠু সমাজ ব্যবস্থার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। একটি মানবিক ও বন্ধুভাবাপন্ন সমাজ মানুষকে হতাশা ও নেতিবাচক আচরণ থেকে মুক্তি দিতে পারে বলে তারা উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট’র সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ, সংগীতশিল্পী সামিনা চৌধুরী, এভারেস্টজয়ী প্রথম বাংলাদেশী নারী নিশাত মজুমদার, জাতীয় দলের ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ, দ্য গ্রেট বাংলাদেশ রান (টিজিবিআর)-এর প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ সামসুজ্জামান আরাফাত।

এর আগে সকাল ৬ টায় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ থেকে ‘রান ফর লাইফ’ বা ‘জীবনের জন্য দৌড়’ শীর্ষক এক প্রতিযোগিতা শুরু হয় এবং ৫ কিলোমিটার ঘুরে আবার অপরাজেয় বাংলায় এসে সমাপ্ত হয়। এতে বিভিন্ন বয়স এবং শ্রেনী-পেশার মোট ২৫০ জন প্রতিযোগী অংশ নেয়। প্রতিযোগিতা শেষে নারী ও পুরুষ ক্যাটাগরিতে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী প্রতিযোগিদের সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এছাড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকলকেই সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।


আরো সংবাদ