২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পানি পান শেষে কর্মসূচী স্থগিতের ঘোষণা শিক্ষকদের

-

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা বুধবার বিকেল ৩টায় আমরণ অনশন ভঙ্গ করেছেন। ১৬ দিন টানা অনশন চালিয়ে যাওয়ার পর জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানসহ কয়েকজন বিশিষ্ট নাগরিকের অনুরোধে এবং তাদের কাছ থেকে দাবী পূরনের আশ্বাস পেয়ে শিক্ষক-কর্মচারীরা তাদের কর্মসূচী স্থগিত করেছেন।
স্বীকৃতি প্রাপ্ত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভূক্তির দাবীতে গত ২৫ জুন থেকে আমরণ অনশন করে আসছিলেন তারা। উক্ত বিশিষ্ট নাগরিকগন বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের বিপরীত সড়কের ফুটপাতে অনশনস্থলে উপস্থিত হয়ে অনশনরত শিক্ষক নেতাদের পানি পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান। এ সময় বিশিষ্ট নাগরিকদের মধ্যে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধূরী ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের অন্যতম ট্রাস্টি সারওয়ার আলী।
এদিকে, নন-এমপিও শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলারের নেতৃত্বে অনশনরত ৫ জন শিক্ষক নেতার সাথে সকালে শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সাথে সচিবালয়ে মন্ত্রীর কক্ষে বৈঠক হয়। এ বৈঠকে শিক্ষা সচিব মোঃ সোহরাব হোসাইনও উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে মন্ত্রী জানান, বিকেলে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানসহ বিশিষ্ট নাগরিকরা অনশনস্থলে গিয়ে আপনাদের অনশন ভঙ্গ করাবেন। আপনাদের দাবী মেনে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী সংসদে যে বক্তব্য দিয়েছেন, তারই ভিত্তিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভূক্তির কাজ শুরু হয়ে গেছে। এমপিওভূক্তি হবে জুলাই মাসের পহেলা তারিখ থেকে।
শিক্ষক নেতারা প্রধানমন্ত্রী এবং শিক্ষা সচিবের কাছে যে দাবী পেশ করেছেন, শিক্ষামন্ত্রীর কাছেও একই দাবী ও তা মেনে নেয়ার জন্য অনুরোধ জানান। শিক্ষক নেতারা নতুন জারী করা জনবল কাঠামো ও এমকপিওভূক্তির নীতিমালা সংশোধনের দাবী করেন। মন্ত্রী ও সচিব তাদের দাবী বিবেচনার আশ্বাস দেন।
অনশনস্থলে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, আমি আপনাদের একজন সহকর্মী হিসেবে উপস্থিত হয়েছি। আমি মনে করি, আপনারা দীর্ঘদিন ধরে যে আমরণ অনশন করে আসছেন, তাতে দেশের মানুষের সাথে আমরাও উদ্বিগ্ন রয়েছি। আপনাদের এ কষ্টে সমগ্র জাতি আজ উদ্বিগ্ন। সবার চাওয়া ছিল অনশনে যেন কোন ক্ষতি না হয়। সবার আবেদন, অনশন ভঙ্গ করে আপনারা কর্মস্থলে ও শ্রেনিকক্ষে ফিরে যান।
সদ্য সরকার মনোনীত জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, আপনাদের দাবি যৌক্তিকতা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সংসদে আপনাদের বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। আমরা আশা করছি বিষয়টি দ্রুত সমাধান হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এমন উপায় বের করবে, যাতে এ সমস্যার সমাধান হয়। তিনি অনশনরত শিক্ষক-কর্মচারীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে গিয়ে দায়িত্ব পালনের অনুরোধ জানান।
তত্তাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরি শিক্ষকদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন, আপনারা মানুষের কথা ভাবেন। আপনাদের যৌক্তিক দাবি বাস্তবায়নে ধাপে ধাপে তা বাস্তবায়ন হবে। আপনারা শিক্ষার্থীদের কথা ও সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে অনশন ভেঙে পাঠদানে মনোযোগ দিন। দ্রুত আপনাদের দাবি বাস্তবায়ন করা হবে।
ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভুষণ রায় বলেন, সরকারের উপর আস্থা রেখে আমরা অনশন ভেঙে ক্লাসে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের বৈঠক হয়েছে। তিনি আমাদের দাবি আদায়ে আশ্বস্ত করেছেন। সরকারের বিভিন্ন মহল থেকে আমাদের আশ্বাস্ত করেছেন। দাবি বাস্তবায়নে আগামী দেড় থেকে দুই মাস সময় লাগতে পারে। জুলাই থেকে স¦ীকৃতি প্রাপ্ত সকল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও সুবিধা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।
এরপর অধ্যাপক আনিসুজ্জামান নন-এমপিও শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলারকে এবং রাশেদা কে চৌধুরি একজন মহিলা শিক্ষককে পানি পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান।


আরো সংবাদ