১৫ অক্টোবর ২০১৯

বাংলাদেশে ১০০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ প্রস্তাবনা আরব আমিরাতের

বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)। বাংলাদেশে এক হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ করবেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) বেশ কয়েকটি ব্যবসায়িক গোষ্ঠী। আজ শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ ইকোনোমিক ফোরামের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে ইউএই-এর গণমাধ্যম গালফ টুডে।

দুবাইয়ে ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ এই ফোরাম শুরু হবে। এতে ৩০০ জনের বেশি সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী নেতা, বিনিয়োগকারী ও উদ্যোক্তা অংশগ্রহণ করবে। এক দিনের এই সম্মেলনের লক্ষ্য হলো বাংলাদেশ ও ইউএই-এর বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ প্রবাহকে শক্তিশালী করা।

ইউএই-এর অর্থনীতিতে প্রধান বিনিয়োগকারীরা হলেন বাংলাদেশিরা। দেশটিতে ৫০ হাজারের বেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক বাংলাদেশি প্রবাসীরা। তারা বেশ সফলতার সঙ্গেই এসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন। এগুলোতে এক লাখ ৫০ হাজারের বেশি মানুষ কাজ করে থাকেন।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বাংলাদেশ ইকোনোমিক ফোরামের দ্বিতীয় অধিবেশনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। তিনি একটি ২০ সদস্যের সরকারি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন।

প্যান এশিয়া মিডিয়ার মতে, ২০১৮ সালে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল ৭ দশমিক ৯ শতাংশ। এই প্রবৃদ্ধির পরিমাণ আরও বাড়ানোর সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। আগামী কয়েক বছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আট শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সালমান এফ রহমান বলেন, গত বছর বাংলাদেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ ৬৯ শতাংশ বেড়ে ৩৬১ বিলিয়ন হয়। বাংলাদেশ আরও সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ গ্রহণ করতে প্রস্তুত। আমরা চীন, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ পেয়েছি।

আমরা মনে করি জিসিসিভুক্ত দেশগুলো, বিশেষভাবে ইউএই ও সউদী আরবের বাংলাদেশে কম খরচে বিনিয়োগ করে বেশি লাভের সুযোগ নেয়া উচিত বলেও উল্লেখ করেন বাংলাদেশের সরকারপ্রধানের এই বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum