২১ মার্চ ২০১৯

কবি মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার স্মরণসভা

কবি মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার স্মরণসভা - সংগৃহীত

কবি ও কথা সাহিত্যিক মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার অকাল মৃত্যুতে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেন রোডে সাওল মিলনায়তনে এ স্মরণসভার আয়োজন করে ‘কবিতাপত্র দিকচিহ্ন’।

মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) ডিআইজি ছিলেন। গোয়েন্দা বিভাগ থেকে প্রকাশিত ‘ডিটেকটিভ’ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। তিনি গত ৫ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৭টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। তিনি স্ত্রী, এক পুত্র ও এক কন্যাসহ বহু আত্মীয়স্বজন এবং গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

‘কবিতাপত্র দিকচিহ্ন’ আয়োজিত স্মরণসভায় পরলোকগত মোশাররফ হোসেন ভূঁঞার প্রতি গভীর শোক, শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানানো হয়। শুরুতেই তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ‘কবিতাপত্র দিকচিহ্ন’র সম্পাদক কবি মোহন রায়হান। সভাপতিত্ব করেন কবি মতিন বৈরাগী। স্মৃতিচারণ করেন বাংলা একাডেমিরি উপপরিচালক কবি রহিমা আক্তার কল্পনা, কবি ডা. মালিহা পারভীন, কবি কে এম কামাল, কথা সাহিত্যিক আনোয়ারা আজাদ, কবি জামিল জাহাঙ্গীর, প্রকাশক ও সাংবাদিক শাহ মুহাম্মদ মোশাহিদ এবং প্রয়াত কবির বন্ধু আবু আহমদ মারুফ, মির্জা আমিনুর রহমান। এছাড়াও অনুষ্ঠানে কবিপুত্র সালমান মেহেদী তিতাস ও কবিকন্যা মধুস্বিনী মোহনা তাদের বাবার স্মৃতিচারণ করেন।

কবি মোহন রায়হান বলেন, ‘পরলোকগত কবি মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁঞা তার বাবার নির্দেশ অনুযায়ী প্রতিদিন কমপক্ষে একটি ভালো কাজ করতেন এবং সবাইকে তা করার পরামর্শ দিতেন।’

অনুষ্ঠানে কবির বন্ধু, ভক্ত, শুভানুধ্যায়ী এবং সমাজের বিশিষ্ট গুণি ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা প্রয়াত কবি ও কথাসাহিত্যিক মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁঞাকে নিঃস্বার্থ, মহৎ, পরোপোকারী, বিনয়ী, আলোকিত মানুষ এবং দেশপ্রেমিক ব্যক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন।


আরো সংবাদ

iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al