২৩ জানুয়ারি ২০২০
নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পতাকা হাতে হাজারো কন্ঠে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবী

ঘরে বসে রাজনীতি করার সময় শেষ : এড. তৈমূর

ঘরে বসে রাজনীতি করার সময় শেষ : এড. তৈমূর - ছবি : নয়া দিগন্ত

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের কয়েক হাজার নেতা কর্মী জাতীয় পতাকা হাতে পতাকা মিছিল বের করেছে।
আজ সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সামনে থেকে তৈমূর আলম খন্দকারের নেতৃত্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করা ব্যানার প্ল্যাকার্ড নিয়ে মিছিল শুরু করে কয়েক হাজার নেতাকর্মী।সকাল ৯টা থেকে বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের জেলা, মহানগর ও থানা ইউনিটের নেতাকর্মীরা ব্যানার ফেস্টুনসহ নগর ভবনের সামনে জড়ো হতে শুরু করে।
পতাকা মিছিলটি মহানগরীর দক্ষিণ দিকের শেষ প্রান্ত নিতাইগঞ্জ থেকে শুরু করে নগরীর উত্তর প্রান্তের শেষ প্রান্তে এসে বিজয় স্তম্ভে শহীদদের প্রতি ফুলের শ্রদ্ধাঞ্জলী জানিয়ে শেষ হয়।

মিছিল শুরুর আগে ফতুল্লা থানার সাবেক সভাপতি অধ্যাপক খন্দকার মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, আমরা স্বাধীন ভূখণ্ড, পতাকা ও সংবিধান পেলেও প্রকৃত মুক্তি এখনো পাইনি। এখনো প্রতিনিয়ত আমাদের যুদ্ধ করতে হচ্ছে বাক-স্বাধীনতা, স্বাধীন বিচারব্যবস্থা ও অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য। দেশ আজ বিচারহীন। তাই বেগম খালেদা জিয়া এখনো কারাগারে। যদি স্বাধীন বিচারব্যবস্থা থাকত তবে ৭৫ বছর বয়সী তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ভুয়া মামলায় এত দিন কারাবন্দী থাকতেন না। তৈমূর বলেন বাকশালী শাসনের অবসান ঘটিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিই জাতির মুক্তির এমকাত্র সমাধান। তিনি সকল গ্রুপিং বাদ দিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে নেমে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তৈমূর বলেন, ঘরে বসে রাজনীতি করার সময় শেষ। এখন রাজপথে নামার সময়।

আরো বক্তব্য রাখেন জেলা ওলামাদলের সভাপতি শামছুজ্জামান বেনু, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব, জেলা বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন অনু, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, সাধারণ সম্পাদক মমতাজ উদ্দিন মন্তু, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহম্মেদ, সিনিঃ সহ-সভাপতি রাফি উদ্দিন রিয়াদ, যুগ্ম সম্পাদক সাইদুর রহমান, মহানগর শ্রমিক দলের সভাপতি এম এ আসলাম, জেলা মহিলা দলের সভাপতি নুরুন্নাহার বেগম, মহানগর মহিলা দলের আহ্বায়ক রাসিদা জামাল, ফতুল্লা থানা শ্রমিক দলের সভাপতি মোঃ বাবুল আহম্মেদ, রপগঞ্জ থানা শ্রমিক দলের সভাপতি ইদ্রিস আলী, বন্দর থানা যুবদলের সভাপতি আমির হোসেন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জুয়ের প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল রানা, আইনজীবি ফোরামের নেতা এড. ভাসানী, এড. বোরহান, এড. আজিজ আল মামুন, এড. আজিজ মোল্লা, জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি সাল্লাউদ্দিন বিএনপি নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন, রতন প্রমুখ।


আরো সংবাদ

ঢাবিতে ৪ শিক্ষার্থী‌কে রাতভর নির্যাতন ছাত্রলীগের (১১৬০৭)তাবিথের আজকের প্রচারণায় জনতার ঢল (৭৪৩২)ইরানি হামলায় আহত মার্কিন সেনারা গোপনে যেখানে চিকিৎসা নিয়েছে (৬৫৯২)খুলে দেয়া হলো দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর বন্ধ থাকা খদ্দের গেট (৫৩০৪)'বলির পাঁঠা' বানানো হয়েছিল আফজাল গুরুকে : বিস্ফোরক অভিনেত্রী (৫১৭৩)সোলাইমানি হত্যায় ট্রাম্পের যে দাবিতে চমকে যান তার উপদেষ্টারাও (৪৯৭১)আযাদ কাশ্মিরকে সব ধরনের সামরিক সমর্থন দেবে পাকিস্তানি সেনারা (৪৮২৬)‘মুক্তিযোদ্ধা ভাতা নিলে অবশ্যই আ’লীগ করতে হবে’ (৪৪৫৪)সূর্যগ্রহণ দেখে দৃষ্টিশক্তি হারালো ১৫ জন (৪২৫৫)লাহোরে বাংলাদেশ খেলবে দিনে, দেখে নিন টি-টোয়েন্টির সূচী (৪২১৯)



unblocked barbie games play