১৬ অক্টোবর ২০১৯

রাব্বানীর সাথে কথোপকথনের অডিও ফাঁস : জাবি ছাত্রলীগ নেতাকে প্রক্টরের হুমকি!

ছাত্রলীগের বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ও জাবি ছাত্রলীগ নেতা হামজা রহমান অন্তর - সংগৃহিত

দুর্নীতির অডিও ফাঁসের অভিযোগে জাবি শাখা ছাত্রলীগ নেতা হামজা রহমান অন্তরকে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ফিরোজ উল হাসান হুমকি প্রদানের অভিযোগ উঠেছে। রোববার রাতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর তাকে হুমকি দিয়েছেন বলে লিখিতভাবে গণমাধ্যমে জানান ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হামজা রহমান অন্তর।

এক বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন,‘গত ১৩ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান সংকটের বিষয়ে জানতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ভাই হঠাৎ আমাকে ফোন দেন। ফোনালাপের এক পর্যায়ে শাখা ছাত্রলীগের অর্থ কেলেঙ্কারীর বিষয়ে জানতে চাইলে আমি ওই ঘটনার (টাকা আদান প্রদানের) প্রত্যক্ষদর্শী শাখা ছাত্রলীগের ১নং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের সাথে কথা বলিয়ে দেই। সেই ফোনকলের অডিও রেকর্ড প্রকাশিত ও ভাইরাল হলে, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান স্যার আমাকে ফোন দিয়ে ঐ ভাইরাল অডিও নিয়ে আমাকে প্রছন্ন হুমকির সুরে কথা বলেন।’

অন্তর বলেন ‘আমি কেন অডিও ভাইরাল করছি’ এবং এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মান-সম্মান নষ্ট করছে বলে দাবি করে,কাজটি ঠিক হয়নি বলেনও মন্তব্য করেন। এছাড়াও আমাকে দুর্নীতির প্রমাণ দেখাতে হুমকি প্রদান করলে আমি বলি,‘এটি জাহাঙ্গীরনগর ও দেশব্যাপী ওপেন সিক্রেট বিষয় এবং আমাকেও টাকার ভাগ দেবার চেষ্টা করলে আমি প্রত্যাখ্যান করি। জাবির ৩৮ থেকে ৪৫ ব্যাচের জুনিয়ররাও টাকার ভাগ পেয়েছে।’

এ কথা বলার পরে উনি আমতা-আমতা করে বিষয়টি স্বীকার করলেও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন। এমতাবস্থায় আমি আমার শিক্ষাজীবন ও নিরাপত্তা নিয়ে সংশয়ে আছি। আমার কোন ক্ষতি হলে তার দায়ভার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ওপর বর্তাবে।’

এ বিষয়ে প্রক্টর আসম ফিরোজ-উল হাসান বলেন, ‘আসলে অন্তর এক ধরণের হতাশা থেকে এসব অভিযোগ করছে যাচ্ছে। আমি তার সাথে সম্পর্কের জায়গা থেকে জানতে চেয়েছে কিন্তু সেখানে হুমকি বা উচ্চ শব্দের কোন কথাই ছিলোনা।’


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum