১৬ জুন ২০১৯
নয়া দিগন্তে সংবাদ প্রকাশের পর

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা : সেই ইয়াসিন গ্রেফতার

-

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ইয়াসিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে ‘মুন্সীগঞ্জে অনাগত সন্তান নিয়ে বিপাকে কিশোরী’ শিরোনামে গত ১৩ মে দৈনিক নয়া দিগন্ত অনলাইনে ও ১৪ তারিখ প্রিন্ট সংস্করণে খবর প্রকাশিত হয়।

আদালতে মামলার পরে গতকাল রোববার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার চেঙ্গাকান্দি এলাকায় মামাবাড়ি থেকে ইয়াসিনকে গ্রেফতার করা হয়। আজ সোমবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ইয়াসিন গজারিয়া উপজেলার বড়ভাটেরচর গ্রামের প্রবাসী নুরা মিয়ার ছেলে।

নির্যাতিতার মা ও বড় ভাই বলেন, ‘মেয়ে বিশ্বাস করে ইয়াসিনকে ভালোবেসেছে। উকিল নানি নাসিমার সহযোগিতায় এই ঘটনা ঘটেছে। এখন আমার অবুঝ মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা। আমরা এখন কি করব, কোথায় গিয়ে বিচার পাবো? এ নিয়ে কয়েকদফা স্থানীয়ভাবে চেয়ারম্যান, মেম্বার ও সাবেক চেয়ারম্যানের ভাতিজা বসে সমাধানের চেষ্টা করেছে। ৭০ হাজার টাকা দিয়ে অনাগত সন্তান নষ্ট করার জন্য পরামর্শ দিয়েছিল। কিন্তু টাকাও পাইনি। অসহায় মেয়েকে নিয়ে খুবই বিপদে আছি। আমার অবুঝ মেয়েকে দিয়ে আমার উকিল মা নাসিমা ইয়াসিনকে দিয়ে এই ঘটনা কেন ঘটাল? আমরা এর ন্যায়বিচার চাই।’

গজারিয়া থানার এসআই খায়রুল ইসলাম লস্কর জানান, বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে কয়েক দফা ধর্ষণ করে ইয়াসিন। এতে দরিদ্র পরিবারের কিশোরীটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। কিন্তু ইয়াসিন তাকে বিয়ে না করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় গত সপ্তাহে মেয়েটি বাদী হয়ে আদালতে মামলা করে।

গজারিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


আরো সংবাদ