১৭ জুন ২০১৯

টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসন মহাজোটকে ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

জাতীয় পার্টির শফিউল্লাহ আল মুনির - নয়া দিগন্ত

টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনটি মহাজোটকে ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে টাঙ্গাইলের এক নির্বাচনী জনসভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তৃতাকালে এই ঘোষণা দেন। এখন এই আসনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন জাতীয় পার্টির শফিউল্লাহ আল মুনির। টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগ শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে এই সমাবেশের আয়োজন করেন।

শেখ হাসিনা বলেন,‘টাঙ্গাইল-৫ আসনে আমরা ছানোয়ার হোসেনকে মনোনয়ন দিয়েছিলাম। সেখানে আমাদের জাতীয় পার্টির শফিউল্লাহ আল মুনিরও প্রার্থী। জাতীয় পার্টির সাথে আমাদের মহাজোটের সমঝোতা হয়েছে। কাজেই ঐক্যটাও আমাদের ধরে রাখা একান্তভাবে প্রয়োজন।’

প্রধানমন্ত্রী সকলকে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য হাত তুলতে বলেন। এসময় টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনের নৌকার প্রার্থী ছানোয়ার হোসেন হাত না তুললে প্রধানমন্ত্রী বলেন-‘ছানোয়ার হাতটা তোল ভোটটাতো দিবা।’

প্রধানমন্ত্রী টাঙ্গাইলের সবগুলো আসনের দলীয় প্রার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেন। এসময় তিনি টাঙ্গাইলের সাতটি আসনের প্রার্থীদের পরিচয় করিয়ে দিলেও শুধু পরিচয় করাননি টাঙ্গাইল-৫ আসনের প্রার্থী বর্তমান এমপি ছানোয়ার হোসেনকে। তবে তাকে পরিচয় করিয়ে না দিলেও ছানোয়ার হোসেন নৌকা প্রতীক নিয়ে মাঠে থাকার ঘোষণা দেন।

এ আসনে ১৯৮৬ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মীর মাজেদুর রহমান এমপি নির্বাচিত হন। ১৯৮৮ ও ১৯৯১ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টি থেকে মাহমুদুল হাসান এমপি নির্বাচিত হন। পরে ১৯৯৪ সালে তিনি বিএনপিতে যোগদান করেন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে প্রবীণ রাজনীতিক আওয়ামী লীগের আব্দুল মান্নান এমপি নির্বাচিত হন। ২০০১ সালে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে এমপি নির্বাচিত হন মাহমুদুল হাসান। ২০০৮ সালের নির্বাচনে মহাজোট প্রার্থী হিসেবে জাতীয় পার্টির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আবুল কাশেম এমপি নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ এ আসনে মনোনয়ন দেয় বর্তমান এমপি ছানোয়ার হোসেনকে।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী শফিউল্লাহ আল মুনির বলেন, দশ বছর ধরে আমি এলাকায় কাজ করছি। আমার দল এবং মহাজোট আমার মূল্যায়ন করেছে। ভিডিও সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট করেই মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে আমার কথা বলেছেন।


আরো সংবাদ