১৪ নভেম্বর ২০১৮

জাবিতে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে গণঅনশন

-

খালেদা জিয়ার কারামুক্তি ও চিকিৎসার দাবিতে গণঅনশন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরাম। কর্মসূচিটি জাবির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বেলা ১১টায় শুরু হয়ে দুপুর একটা পর্যন্ত চলতে থাকে।এসময় বক্তরা অসুস্থ খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অন্যায়ভাবে কারাগারে আদালত স্থাপনকে সংবিধান বিরোধী বলে মন্তব্যে করেন এবং তার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। অধ্যাপক শামছুল আলম সেলিমের সঞ্চালনায় গণঅনশনে জাতীয়তাবদী ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক সৈয়দ কামরুল আহছান টিটো বলেন,অসুস্থ মানুষকে নেয়ার কথা হাসপাতালে অথচ নেয়া হলো করাগারে স্থাপিত আদালতে।সরকার খালেদা জিয়াসহ জাতীয়তাবাদী শক্তিকে যেভাবে প্রতিহত করছে,মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে তার জবাব এদেশের জনগন আগামী নির্বাচনে দিবে।
এদিকে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক মো. কামরুল আহসান বলেন,‘যে শেখ হাসিনা সুযোগ পেলেই শহীদ জিয়ার সমালোচনা করে অথচ সে এখন ‘জিয়া আমলে’কারাগারে কর্ণেল তাহেরের বিচারকে উদাহরণ হিসেবে গ্রহন করছে। তিনবারের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সংবিধান পরিপন্থিভাবে কারাগারের আদালত বসানো হচ্ছে।এর সমুচিত জবাব অতিশীগ্রই দেশের মানুষ দিবে।এছাড়াও তিনি সারাদেশে দমননিপীড়নের রাজনীতি ও ইভিএম পদ্ধতির সমালোচনা করেন।’অধ্যাপক মাফরুহী সাত্তার বলেন,‘অগতান্ত্রিক শক্তি কখনো মুক্তিযুদ্ধের শক্তি হতে পারেন।’সর্বশেষ বেলা একটার দিকে দর্শনবিভাগের অধ্যাপক কামরুল আহসান জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক সৈয়দ কামরুল আহসান টিটো’কে তরল পানীয় পান করিয়ে কর্মসূচি শেষ করেন।
কর্মসূটিতে অধ্যাপক শরিফ উদ্দিন,অধ্যাপক মাফরুহী সাত্তার, অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনুসহ শতাধিক শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ