১৯ নভেম্বর ২০১৮

আরো এক স্কুলছাত্র পিষ্ট হলো ট্রাকের চাকায়

প্রতীকী ছবি। - নয়া দিগন্ত।

ঢাকার দোহারে ট্রাকচাপায় মো. রিশাদ (১৩) নামে এক স্কুল শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। দোহারের চরকুশাই এলাকায় বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

রিশাদ নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দুরা হলিক্রস স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। তিনি দোহার উপজেলার জামালচর এলাকার সামছুল হকের ছেলে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে আম বোঝাই একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ন-১৩-০২৩০১) মানিকগঞ্জ থেকে দোহারে আসার পথে চরকুশাই নামক স্থানে বিপরীত দিক থেকে মোটরসাইকেলে আসা রিশাদকে চাপা দেয়। এসময় ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। স্থানীয়রা গুরুত্বর আহত অবস্থায় রিশাদকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এদিকে ঘটনার পরপরই পালিয়ে যায় ট্রাকের চালক। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

দোহার থানা মাহমুদপুর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক নুরুল হুদা বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

 

বান্ধবীকে বাড়ি পৌঁছাতে গিয়ে ট্রাকে পিষ্ট ছাত্রী

মঙ্গলবার কুমিল্লার চান্দিনায় ট্রাক চাপায় আকলিমা আক্তার(১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও এক ছাত্রী।  মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা ও মুরাদনগর উপজেলার সীমান্তবর্তী গোমতা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আকলিমা মুরাদনগর উপজেলাধীন বাবুটিপাড়া গ্রামের কৃষক আবিদ মিয়ার একমাত্র মেয়ে। সে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন গোমতা এলাকার গোমতা ইসহাকিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। আহত তামান্না একই গ্রামের মনির হোসেন এর মেয়ে। তারা একই সাথে লেখাপড়া করতো।


এদিকে এ ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী প্রায় দেড় ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করে অন্তত ১১টি ট্রাক ভাংচুর করে। বেলা ৩টায় হাইওয়ে ও জেলা পুলিশের সমন্বয়ে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক থেকে সরিয়ে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আব্দুল হান্নান সরকার জানান, ক্লাস চলাকালিন সময়ে দশম শ্রেণীর বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থী তামান্না অসুস্থ হয়ে পড়ে। টিফিনের বিরতির সময় অসুস্থ তামান্না ছুটি চেয়ে প্রধান শিক্ষকের নিকট একটি লিখিত দরখাস্ত দিলে প্রধান শিক্ষক তার ছুটি মঞ্জুর করে বাড়ি পাঠানোর সিদ্ধান্ত দেন। তামান্না একা বাড়ি যেতে পারবে না বিধায় তার সহপাঠি একই গ্রামের আকলিমাকেও ছুটি দিয়ে বাড়িতে পাঠান।

তারা মহাসড়কের পাশ ঘেঁষে বাড়ি ফেরার সময় পিছন থেকে বালুবাহী ট্রাক চাপায় ঘটনাস্থলেই আকলিমা নিহত হয়। এতে আহত হয় তামান্নাও। তাকে উদ্ধার করে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের বোন (নিহত আকলিমা ও আহত তামান্না) মহাসড়কের পাশ ঘেঁষে পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলো, কিন্তু ট্রাক চালকের বেপরোয়া গতিতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার প্রার্থনা করছি।

হাইওয়ে পুলিশ ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইন-চার্জ (ইন্সপেক্টর) মনিরুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার পরপর ঘাতক ট্রাকটি পালিয়ে যাওয়ায় আটক করা সম্ভব হয়নি। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ফাঁড়িতে নিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশ্বাস দিয়ে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

 

বাসের চাপায় প্রাণ গেল ২ শিক্ষার্থীর

রাজধানী ঢাকার বিমানবন্দর সড়কে বাসের চাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল এন্ড কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরো ১০ জন আহত হয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে একজন ছাত্রী বলে জানা গেছে। তবে তাৎক্ষণিক তাদের নাম জানা যায়নি।


রোববার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে হোটেল র‌্যাডিসনের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এরপর ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট এলাকার ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বেরিয়ে এসে রাস্তায় বিক্ষোভ শুরু করে। বিক্ষোভের কারণে রাস্তায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়।

হোটেল র‌্যাডিসনের কাছেই শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল এন্ড কলেজ।

এ সময় সেখানে বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুরের শিকার হয় বলে ক্যান্টনমেন্ট থানার এএসআই রেজাউল ইসলাম জানান।

স্থানীয়রা জানান, ঘটনার সময় শিক্ষার্থীরা র‌্যাডিসনের গ্যাপ দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন, অনেকে বাসের জন্য ফুটপাতে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস শিক্ষার্থীদের চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই দুইজনের মৃত্যু হয়।

সহপাঠিদের মৃত্যুর খবর পেয়ে শিক্ষার্থীরা বেরিয়ে এসে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা কয়েকটি যানবাহনে ভাঙচুরও চালায়।

জাবালে নূর (ঢাকা মেট্রো ব-১১৯২৯৭) পরিবহনের বাসটি জব্দ করা হয়েছে বলে জানান পুলিশ। তবে চালক পালিয়ে গেছেন। বাসের সুপারভাইজারকে শিক্ষার্থীরা আটক করেছে।

পুলিশ জানায়, বিক্ষোভের কারণে যানবাহনকে বিকল্প সড়ক ব্যবহার করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন।


আরো সংবাদ